php glass

এক ডিমে পাঁচ কুসুম!

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

এক ডিমে পাঁচটি কুসুম (ছবি: ইন্টারনেট)

walton

ডিম ভেঙ্গে বাটিতে ঢেলে অবাক বনে গেলেন চীনা এক নারী। ভাঙ্গলেন মোটে একটা ডিম। কিন্তু বাটিতে পাঁচ-পাঁচটি কুসুম। মধ্য চীনের হুবেই প্রদেশের নারী মিজ তাও গত ২৩ জানুয়ারি চীনা নববর্ষের আয়োজন খাবার তৈরি করছিলেন, তখনই এই ঘটনা।

খাদ্য বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, এই ডিম নিঃসন্দেহে খাওয়ার যোগ্য। ডিমে কুসুমের সংখ্যা একাধিক হতে পারে। মুরগীর ডিম্বাশয়ের অস্বাভাবিকতায় এমনটা হয়।

গত ২১ জানুয়ারি স্থানীয় একটি বাজার থেকে ডিমটি খরিদ করেন মিজ তাও। চীনা নববর্ষ সামনে রেখে কিছু মজাদার খাবার বানাচ্ছিলেন তিনি। বাইরে থেকে ডিমটি অন্য ডিমের মতোই দেখতে। তবে ভাঙ্গার পর বের হয়ে আসে পাঁচটি কুসুম।

প্রতিটি কুসুম আধা ইঞ্চি গোলাকার ব্যাসের।

এতে কেবল যে তাও অবাক তাই নয়, তার পরিবারও হতবাক। বিশেষ করে তার ৮০ বছরের মা বলেছেন এতবড় জীবনে তিনি কখনোই এমনটা আর দেখেননি।

তবে ডিমটি পেয়ে পরিবারের সবাই বেশ খুশি। তারা এই পাঁচ-কুসুমের ডিমটিকে তাদের সৌভাগ্যের প্রতীক হিসেবেই দেখছেন, বিশেষ করে নববর্ষের প্রাক্কালে। আগামী ২৮ জানুয়ারি নববর্ষ উদযাপন চীনে।

উইচ্যাট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা আত্মীয় স্বজন ও বন্ধু বান্ধবের সঙ্গে তারা এটি শেয়ারও করেছেন।  

তাতে মিজ তাও’র বন্ধরা নানা মন্তব্য করেছেন ও পরিবারটির জন্য শুভকামনা করছেন।

হুয়াজং বিশ্ববিদ্যালয়ের এগ্রিকালচার ইউনিভার্সিটির সহযোগী অধ্যাপক জিন গুফেংয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে একটি সংবাদমাধ্যম বলছে, দুই কুসুমের ডিম মাঝে মধ্যেই দেখা যায়, তবে এতগুলো কুসুমের ডিম সত্যিই বিরল।

গুফেং বলেন, মুরগীটির ডিম্বাশনে কোনও অস্বাভাবিকতার কারণেই এমনটা হয়েছে।

রান্না হলেই এই ডিম খেতে কোনও সমস্যা নেই বলে মত তার।     

বাংলাদেশ সময় ১৮১৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০১৭
এমএমকে

সেই ইউএনও মিজানূরকে নাগরিক সমাজের আল্টিমেটাম
বাগেরহাটে ম্যাটস শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, ভাংচুর
স্থানীয় সরকার পর্যায়ের কাজে সম্পৃক্ত হতে চান প্রতিবন্ধীরা
নিউ সিটিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভ
ফ্রান্স প্রবাসীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান


খুলনায় আ’লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের প্রযুক্তির প্রশিক্ষণ
সিলেটে লবণ বিক্রেতাকে জরিমানা
লবণের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির চেষ্টা, হবিগঞ্জে আটক ৪
‘খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার অধিকার থেকে বঞ্চিত করছে সরকার’
আবাসন খাতে সর্বোচ্চ করদাতা র‌্যাংগস প্রপার্টিজ লিমিটেড