php glass

মেয়ে থেকে ছেলে.. এখন অন্তঃসত্ত্বা পুরুষ!

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ব্রিটেনে প্রথম কোনও পুরুষ মা হতে চলেছে

walton

অদ্ভুত হলেও সত্য। ব্রিটেনের এক যুবক মা হতে চলেছেন। এখন চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা হেডেন ক্রস নামে ২০ বছরের এই যুবক। সম্প্রতি মিডিয়ার সামনে বেশ গর্বভরেই তিনি দেখাচ্ছিলেন নিজের গর্ভ।

একসময় কিন্তু মেয়েই ছিলেন হেডেন। পরে হরমোন পাল্টে হয়ে যাচ্ছিলেন পুরুষ। তাতে তার বক্ষের আকার পাল্টে যেতে থাকে, মুখে ওঠে দাঁড়ি গোঁফ। কিন্তু হঠাৎই খেয়াল চাপলো পুরোপুরি পুরুষ হয়ে যাওয়ার আগে একটি সন্তানের জন্ম দেবেন। আর অতঃপর বাবা হিসেবেই যত্ন নেবেন সে সন্তানের।

পরিকল্পনামাফিকই এগুচ্ছে সবকিছু। আর কোনও ব্যত্যয় না ঘটলে হেডেনই ব্রিটেনে প্রথম কোনও পুরুষ যিনি মা হতে চলেছেন।

মেয়ে হয়ে জন্মানো হেডেনের মা হওয়ার ইচ্ছা আগেও ছিলো। আর সে কারণেই ডিম্বানু তুলে রেখেছিলেন সুবিধামতো একসময় তার সঙ্গে শুক্রানু মিশিয়ে টেস্টটিউবে জন্ম নেবে তার সন্তান।
তিন বছর ধরে পুরুষ হিসেবে গণ্য হচ্ছেন হেডেন
কিন্তু তাতে অনেক খরচ শুনে সিদ্ধান্ত নিলেন হরমোন পাল্টে নারীত্ব হারিয়ে ফেলার আগেই একটা সন্তানের জন্ম দেবেন। যদিও এরই মধ্যে অনেকটা পুরুষের মতোই দেখতে হয়ে গেছেন হেডেন। তারপরেও শিঁকেয় তুলে রাখলে প্রক্রিয়াটি। এরপর ফেসবুকে ঘোষণা দিয়ে স্পার্ম ডোনার খুঁজলেন। আর পেয়েও গেলেন। সে শুক্রানুতেই অন্তঃসত্ত্বা হলেন তাও আজ চার মাস।

মা হয়ে জন্ম দিলেও সন্তান প্রসবের পর হরমোন পাল্টানোর বাদবাকি কাজ দ্রুতই শেষ করতে চান হেডেন ক্রস। এসময় তার স্তন ও ডিম্বাশয় কেটে ফেলা হবে।  

হেডেন বলেন, আমি বাবা হিসেবেই সন্তানটিকে লালন-পালন করতে চাই।  

তবে হেডেন পুরুষ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়ে গেছেন আরও আগেই। ব্রিটেনের গ্লুচেস্টারে গত তিন বছর ধরে পুরুষ হিসেবে বেকার ভাতা নিয়েই চলছে তার দিন।

এরই মধ্যে তার মুখের লোম আর কণ্ঠের ভারিক্কি দুটোই চলে এসেছে।  

শিশুটি জন্ম লাভের পর তার বড় হওয়া পর্যন্ত একাই থাকবেন হেডেন। যাতে কোনও ধরনের জটিলতা সৃষ্টি না হয়।

তবে পুরোপুরি পুরুষ হয়ে যাওয়ার পর দেখতে কেমন হবেন, আর লোকে কি বলবে তা নিয়ে এখন বেশ উদ্বিগ্ন তিনি।

‘চারিদিকে ছোট মনের মানুষের তো অভাব নেই!’ বলেন হেডেন।  
তিন সন্তানের মা হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ব্রিটি
ছোটবেলায় গ্লুচেস্টারের গার্লস স্কুলগুলোতেই যেতেন হেডেন। তবে যখন তার বয়স ১৪ তখন পরিবারে নেমে আসে নানা বিপদ। বাবা-মায়ের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। তখন স্কুল থেকেও তাকে নাম কাটিয়ে দেওয়া হয়। বাবা ভীষণ মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন।

এই অবস্থায় তার অনেক পুরুষ বন্ধু হতে থাকে। তাদের সঙ্গে ফুটবল খেলতে খুব ভালোবাসতেন।

বাইসেক্সুয়াল হিসেবে ছেলে ও মেয়ে উভরের সঙ্গেই তার ডেটিং হয়েছে। তবে পুরুষদেরই তার বেশি পছন্দ হতো।
পরে তিনি হরমোন পাল্টে নিজেই পুরুষ হয়ে যেতে থাকেন। 
 
এর আগে বিশ্বে প্রথম যে পুরুষটি গর্ভধারণ করেছিলেন তিনি হচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনার বাসিন্দা টমাস বিটি। পুরোপুরি লিঙ্গ পরিবর্তন হওয়ার পরেই তিনি তিনটি সন্তানেরও জন্ম দেন।

বিটি যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াইয়ে ১৯৭৪ সালে নারী হিসেবে প্রথম জন্ম নেন। তবে তারও সারাক্ষণই মনে হতো তিনি আসলে পুরুষ। ২০০২ সালে মাসটেকটমির মাধ্যমে পুরোপুরি বৈধভাবে তিনি পুরুষে রুপান্তরিত হন।

বাংলাদেশ সময় ০২৫৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৯, ২০১৬
এমএমকে  

করফাঁকির অভিযোগে ৫৫০০ কেজি তামাক জব্দ
শিপিং রিপোর্টার্স ফোরামের নতুন কমিটি
কেরানীগঞ্জে উদ্ধার কদমতলীর অপহৃত নারী, আটক ১
বেনাপোল কাস্টমসে নিয়োগ পরীক্ষার্থীদের ভোগান্তি 
জ্যাঠা শ্বশুরের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ


শ্রীমঙ্গলে ক্রেতা সেজে দুটি ডাহুক উদ্ধার
গোলাপি বলের প্রথম দিনে ‘ব্যর্থ’ বাংলাদেশ
৪১ বছরে ইবি, শিক্ষার্থী ৩০০ থেকে ১৪ হাজার 
কৃষক-শ্রমিকের মুক্তি ছিল ভাসানীর রাজনীতির মূলমন্ত্র
ইবতেদায়ি পরীক্ষার্থীকে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ