php glass

যে শহরে এক কেজি ৮৪৯ গ্রাম ওজনের আপেল পাওয়া যায়!

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

একটি আপেলের ওজন কত হতে পারে? প্রশ্ন করলে চোখের সামনে আসবে ২৫০ গ্রাম থেকে ৩৫০ গ্রাম ওজনের আপেল। কিন্তু ২০০৫ সালে জাপানে উৎপাদিত হয়েছে এক কেজি ৮৪৯ গ্রাম ওজনের আপেল!

একটি আপেলের ওজন কত হতে পারে? প্রশ্ন করলে চোখের সামনে আসবে ২৫০ গ্রাম থেকে ৩৫০ গ্রাম ওজনের আপেল।

কিন্তু ২০০৫ সালে জাপানে উৎপাদিত হয়েছে এক কেজি ৮৪৯ গ্রাম ওজনের আপেল!

জাপানের আওমরি এলাকার হিরোসাকি সিটিতে প্রায় দুই কেজি ওজনের আপেলটি ফলিয়ে ফার্মের মালিক চিসাতো গিনেস বুকে নামও তুলেছেন। দেশটির অর্ধেকেরও বেশি অঞ্চলে আপেল উৎপাদন হয়। য‍া এশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রফতানিও হয়ে থাকে।

আওমরির আপেল চাষ
১৮৭৫ সালে আওমরিতে আপেল চাষ শুরু হয়। সন্তোষজনক ফলন পাওয়ায় ১৯৩১ সালে জাপান সরকার সিদ্ধান্ত নেয় আপেল চাষের ব্যাপক উন্নয়নে আপেল রিসার্চ ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করার। শুধু তাই নয়, ১৯৭৫ সালে স্থানীয়রা আপেল চাষের শতবর্ষ উদযাপন করে।

ওই সময় যেখানে প্রথম আপেল গাছ রোপন করা হয়েছিলো সেখানে একটি স্মারক ফলকও স্থাপন করা হয়।









 

আপেলের রকম ফের
মূলত ছয় ধরনের আপেল আওমরিতে উৎপাদন করে কৃষকরা। প্রতিটি আপেলের রঙ, স্বাদ ও গন্ধ আলাদা। বড় আপেলের মধ্যে সেকাই ইচি অন্যতম। এ আপেলের ওজন ৫০০ থেকে প্রায় ১,০০০ গ্রাম পর্যন্ত হয়।

মুটসু: ১৯৩০ সাল থেকে আওমরিতে এ জাতের আপেল উৎপাদন হচ্ছে। এটাই এখন জাপানের সবচেয়ে জনপ্রিয় আপেল। এই আপেলটির ওজন হয় ৫০০-৬০০ গ্রাম।

ফুজি: ৩০০ থেকে ৫০০ গ্রাম ওজনের এ আপেল খুবই সুস্বাদু। এর দাম সেকাই ইচি আপেলের চেয়ে কম।

কিনসেই: অন্যগুলোর চেয়ে কিনসেই আপেলের ওজন কিছুটা কম হলেও বেশি জনপ্রিয় এটাই। এর ওজন প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ গ্রাম।

জোনাগোল্ড: জোনাগোল্ড আপেল কিছু রোগের প্রতিষেধক হিসেবেও কাজ করে। ওজন ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে এই আপেল। ওজন প্রায় ৩০০ গ্রামের মতো।

ওহরিন: ২৫০ থেকে ৩০০ গ্রাম ওজনের আপেলটি ক্যান্সার, ডায়বেটিসসহ হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস করে বলেই চিকিৎসকদের মত।

আপেলের মৌসুম
আওমরির মধ্যে হিরোসাকি সিটি আপেলের হোম হিসেবে পরিচিত। শীতল আবহাওয়ার কারণে আওমরি জেলার আপেলের চাষ হয় সবচেয়ে বেশি। জাপানের মোট আপেলের চাহিদার অর্ধেকেরও বেশি মেটে এ জেলা থেকে। আপেল তোলার প্রধান মৌসুম হচ্ছে অক্টোবর।

আপেলের বিভিন্ন ব্যবহার
হিরোসাকির সাকুরা এবং স্থানীয় বিভিন্ন উৎসবে ছয় ধরনের আপেলের পাই তৈরি করে বিক্রি করা হয়। একবার ৪০০ আপেল ব্যবহার করে গিনেস বুকে রেকর্ডের জন্য দুই মিটারের একটি আপেল পাই তৈরি করা হয়েছিলো হিরোসাকির চেরি ব্লসম উৎসবে।

আপেল পার্ক
হিরোসাকিতে ৬৫ জাতের ১৩০০ এর বেশি আপেল গাছ রয়েছে। যাকে হিরোসাকি আপেল পার্ক বলা হয়। আপেল স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। প্রচলিত রয়েছে, একটি আপেল প্রতিদিন ডাক্তার থেকে দ‍ূরে রাখে। আপেল বাথ- শুধু আমাদের ত্বক ভালো রাখে তা নয়, আপেলের ঘ্রাণ আমাদের মনও উৎফুল্ল রাখে।

সবচেয়ে বড় আপেল
হিরোসাকি সিটিতে চিসাতোর ফার্মে ২০০৫ সালের ২৪ অক্টোবর সবচেয়ে বড় আপেল উৎপাদিত হয়েছিলো ১.৮৪৯ কেজি ওজনের। ফুজি এবং ম‍ুটসু আপেলের সমন্বয়ে হাইব্রিড আপেল ছিলো সেটি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৫, ২০১৬
ইএস/এটি

ইসরায়েলের জেলে নায়েলের ৪০ বছর, আশাবাদী পরিবার
রাজশাহীতে আখমাড়াই শুরু
যেন এক টুকরো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়!
হাত হারিয়ে পা দিয়েই পিইসি পরীক্ষা দিচ্ছে মুক্তামনি
উইকেটে জেঁকে বসা পূজারাকে ফেরালেন এবাদত


নরসিংদীর এমপি বুবলীকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার
ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক বরাবরই ভালো: মমতা
ভারত মুক্তিযুদ্ধের সময় পাশে ছিল তা ভুলিনি: প্রধানমন্ত্রী
২ উইকেট হারিয়েই বড় লিডের পথে ভারত
আগুন থেকে বাঁচতে মেয়র নাছিরের প্রচারপত্র