শব-ই-বরাত: জায়গা ভাড়া নিয়ে প্রস্তুত ভিক্ষুকরাও

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

পবিত্র শব-ই-বরাত। ইবাদত বন্দেগি করে কাটবে ধর্মপ্রাণ মুসলমানের রাত। অধিক পূণ্যলাভের আশায় দান-খয়রাতও করবেন তারা। ধর্মীয় মতানুসারে এ রাতেই এক বছরের জন্য প্রত্যেক মানুষের ভাগ্য লেখা হয়ে থাকে।

ঢাকা: পবিত্র শব-ই-বরাত। ইবাদত বন্দেগি করে কাটবে ধর্মপ্রাণ মুসলমানের রাত। অধিক পূণ্যলাভের আশায় দান-খয়রাতও করবেন তারা। ধর্মীয় মতানুসারে এ রাতেই এক বছরের জন্য প্রত্যেক মানুষের ভাগ্য লেখা হয়ে থাকে।

এ কারণে মসজিদে মসজিদে ইবাদত বন্দেগির প্রস্তুতি যেমন চলছে তেমনি অবারিত দান খয়রাত দু’হাত ভরে নেওয়ার জন্য ভিুকদেরও কোমর বাঁধা প্রস্তুতির কথাও সবার জানা।   

ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানে অভাব দারিদ্রের প্রান্তসীমায় দাঁড়িয়ে থাকা ছিন্নমূল মানুষগুলো একটু সাহায্যের আশায় ভিড় জমায় রাজধানীতে। মুসলমানের এই ভাগ্যরজনীকে সামনে রেখে রাজধানীতে তাদের আনাগোনাও বেড়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, গত ২৩ জুলাই শুক্রবার থেকেই রাজধানীতে ছিন্নমূল মানুষের আনাগোনা তুলনামূলকভাবে বাড়তে শুরু করে। রাজধানীর আশেপাশে এমনকি দূরদূরান্ত,থেকে আসছে এসব ছিন্নমূল মানুষের দল।

টঙ্গী, গাজীপুর, মানিকগঞ্জ, কুমিল্লা, নরসিংদীসহ ঢাকার আশেপাশের এসব জেলা শহর ছাড়াও দেশের দারিদ্রপীড়িত জেলাগুলোর মধ্যে কুড়িগ্রাম, চাপাইনবাবগঞ্জ, পঞ্চগড়ের মত দূরদূরান্ত থেকেও এসব মানুষ সাহায্য ও ভিক্ষালাভের আশায় পাড়ি জমিয়েছেন রাজধানীতে।

কমলাপুর রেলস্টেশন, সায়েদাবাদ-মহাখালী-গাবতলী বাস টার্মিনাল, সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে এসব মানুষদের অতিরিক্ত চাপ লক্ষ্য করা যায়।

তবে রাজধানীর বুকে পা ফেললেই চলবে না, ভালো ভিক্ষা পেতে হলে একটি ভাল স্থানও বাছাই করতে হয়।  

সে চেষ্টারও কমতি নেই। তবে চেষ্টাই শেষ কথা নয়। সেকাজেও খরচ আছে।

ব্যবসার মূলধন খাটানোর মতো ভিক্ষার জায়গা পেতেও খরচ করতে হচ্ছে টাকা।

ভিুকদের জায়গা ভাড়া দিয়ে টুপাইস কামিয়ে দিচ্ছে একটি চক্র।

ছিন্নমূল মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেল, শব-ই-বরাতের রাতে মূলত ঢাকার হাইকোর্ট মাজার প্রাঙ্গন, মিরপুরের শাহ আলী মাজার এলাকা এবং বায়তুল মোকাররম মসজিদকে কেন্দ্র করেই এসব ছিন্নমূল মানুষ তাদের ভিক্ষার স্থান নির্ধারণের প্রতিযোগিতায় মেতে ওঠে।
 
কমলাপুর রেলস্টেশনে ভৈরব থেকে আসা ভিক্ষুক জ্যোৎস্না বিবি বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বললেন, এলাকায় সারাদিন ভিক্ষা করে পাই ৩০ টাকা। সে হিসাবে মাসে আসে হাজার খানেক। অথচ শবে বরাতের কয়েকদিন আগে এসে একটি ভাল জায়গা যদি পাওয়া যায় তাহলে এক রাতেই কমপক্ষে আয় হবে আট থেকে দশহাজার টাকা। এছাড়া বাকী কয়টা দিন ঢাকায় ভিক্ষা করলেই কামাইটা ভালোই হয়।   

ভিুকরাই জানালেন, এসব স্থান নির্ধারণ এবং এর টাকা লেনদেনের সঙ্গে জড়িত দালালরাই পুরো বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করেন।

তবে নিজেদের ভিক্ষায় ক্ষতি হতে পারে আশঙ্কায় দালালদের বা কোন নেতার নাম জানাতে রাজি হননি কেউই।

ছিন্নমূল মানুষদের সাথে কথা বলে জানা যায়, হাইকোর্ট মাজার প্রাঙ্গন, মিরপুরের শাহ আলী মাজার এলাকা এবং বায়তুল মোকাররম মসজিদের মূল ফটকের পাশে এবং সংলগ্ন এলাকার শুরুতে জায়গা নিতে পারলে ভিক্ষা বেশি পাওয়ার নিশ্চিত সম্ভাবনা থাকে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর ও দক্ষিণ গেট, হাইকোর্ট মাজারের গেট এবং শাহ আলী মাজারের দিকে যাওয়ার প্রধান দুটি রাস্তায় সারারাতের জন্য জায়গার ভাড়া পঞ্চাশ থেকে দেড়শ’ টাকা পর্যন্ত। জায়গাটি মূল গেটের কতটা কাছাকাছি তার ভিত্তিতে এই ভাড়া নির্ধারণ হয়।

কুড়িগ্রাম থেকে আসা পঞ্চাশোর্ধ করিমন নেসা জানান, বায়তুল মোকাররম উত্তর এবং দক্ষিণ গেটের ঠিক সামনেই জায়গার ভাড়া ১৫০ টাকা। পূর্ব অভিজ্ঞতা থেকে তিনি জানেন, এ জায়গায় ভিক্ষা পাওয়া যায় কমপক্ষে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা। তবে বঙ্গবন্ধু ফোয়ারা এবং জিরো পয়েন্টের সামনে ৯০ টাকায় জায়গা ভাড়া নিতে পারলে ভিক্ষা পাওয়া যায় ৫ থেকে ৮ হাজার টাকা।

চাপাইনবাবগঞ্জের আছিয়া জানান, মিরপুরের শাহআলী মাজারের মূল গেটের সামনে জায়গা ১৫০ টাকায় ভাড়া নিয়ে ভিক্ষা পাওয়া যায় ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা। তবে মিরপুর ১ নম্বর মোড় এবং মাজার সড়কে ৫০ টাকায় ভাড়া নিয়ে সর্বোচ্চ ৭ হাজার টাকা ভিক্ষা পাওয়া যায়।

পঞ্চগড় থেকে আসা ষাটোর্ধ ভিক্ষুক মো: আখলাক জানান, হাইকোর্টের গেটের সামনে ১৬০ টাকা দিয়ে সারারাতের জন্য জায়গা ভাড়া নিয়েছেন তিনি। এ মূহুর্তে একদিন কিছু খাওয়ার টাকা তার সাথে না থাকলেও আশা করছেন শবে বরাতের এক রাতেই তিনি কমপক্ষে ২০ হাজার টাকা ভিক্ষা পাবেন।

এছাড়াও হাইকোর্টের সামনের সড়কের ভাড়াও অন্যান্য বছরের তুলনায় কিছুটা বাড়ানো হয়েছে বলে জানান তিনি। এ বছর এ স্থানগুলোর ভাড়া সর্বনিম্ন ৫০ টাকা থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত আদায় করা হচ্ছে।

তবে এ সকল ছিন্নমূল মানুষেরা নিজেদের নাম ঠিকানা জানাতে নারাজ। তাদের ভয়, নাম ধাম ফাঁস হয়ে পড়লে তাদের ভিক্ষার ক্ষতি হতে পারে।

বাংলাদেশ সময় : ১৫২৬ ঘন্টা, জুলাই ২৭, ২০১০।

Nagad
জাহাকে বর্ণবাদী মেসেজ, গ্রেফতার ১২ বছরের বালক
‘সাহেদের ব্যাপারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সতর্কতা প্রয়োজন ছিল’
ধরা পড়লেই বলে হাওয়া ভবনের লোক: রিজভী
ঈদের এক সপ্তাহ আগেই বেতন-বোনাস পরিশোধের দাবি স্কপের
কুয়েতের নতুন রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল আশিকুজ্জামান


ভারতের এক কিউরেটরের মৃত্যু
চলে গেলেন হলিউড অভিনেত্রী কেলি প্রেসটন
‘পাটশিল্পের সঙ্গে জড়িতরা অভিশপ্ত জীবনের দিকে ধাবিত হচ্ছেন’
দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করে অর্থ-সম্পদ বাড়ালে ছাড় নয় 
ঢাকা উত্তরে ‘স্মার্ট ল্যাম্প পোল’ চালু করলো ইডটকো