ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭, ০২ মার্চ ২০২১, ১৭ রজব ১৪৪২

জাতীয়

দুর্ঘটনার পর পুলিশের মোটরসাইকেল পুড়িয়ে সড়ক অবরোধ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১
দুর্ঘটনার পর পুলিশের মোটরসাইকেল পুড়িয়ে সড়ক অবরোধ পুড়িয়ে দেওয়া মোটরসাইকেল। ছবি: বাংলানিউজ

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলায় সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশা খাদে পড়ে গাড়িটির চালক নিহত ও পাঁচ যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার পর স্থানীয় বিক্ষুব্ধ লোকজন পুলিশের একটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে প্রায় এক ঘণ্টা ধরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে অবরোধ করে রাখেন।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত অটোরিকশা চালক তোফায়েল আহমেদ (২৩) হবিগঞ্জ সদর উপজেলার সুলতানশী গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে বাহুবল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, পাঁচ জন যাত্রী নিয়ে অটোরিকশাটি শায়েস্তাগঞ্জ থেকে বাহুবলের দিকে যাচ্ছিল। পথে বাগানবাড়ি এলাকায় চেকপোস্টে থাকা পুলিশ সদস্যরা অটোরিকশাটি থামানোর চেষ্টা করে। এ সময় অটোরিকশাটি দ্রুতগতিতে পালানোর চেষ্টা করলে মামুন পরিবহন নামে একটি বাসের ধাক্কায় মহাসড়ক থেকে খাদে পড়ে যায়।

এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশাটির চালক তোফায়েল আহমেদ মারা যান। আহত পাঁচ যাত্রীর অবস্থাও আশঙ্কাজনক। তাদের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

দুর্ঘটনার পর স্থানীয় বিক্ষুব্ধ লোকজন মহাসড়কে থাকা পুলিশের একটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এরপর অবরোধ করলে প্রায় এক ঘণ্টা মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ ছিল। পরে পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের চেষ্টায় পরিস্থিতি শান্ত হলে যান চলাচল শুরু হয়।

বাহুবল মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আলমগীর কবির বাংলানিউজকে বলেন, কিভাবে দুর্ঘটনা ঘটেছে এখনও জানা যায়নি। সিসি টিভির ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পুড়িয়ে ফেলা মোটরসাইকেলটি ট্রাফিক পুলিশের টিআই মিজানুর রহমানের বলে তিনি জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa