ঢাকা, রবিবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৬ রজব ১৪৪২

জাতীয়

শীতার্তদের পাশে মুসলিম রিসার্চ সেন্টার

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২১
শীতার্তদের পাশে মুসলিম রিসার্চ সেন্টার

ঢাকা: তীব্র এই শীতে দেশের অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে ইসলাম বিষয়ক শিক্ষা-গবেষণা ও মানব সেবামূলক প্রতিষ্ঠান মুসলিম রিসার্চ সেন্টার (এমআরসি)। এ ধারাবাহিকভাবে দেশের বিভিন্ন এলাকার দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করছে প্রতিষ্ঠানটি।

 

দেশের অন্যান্য অঞ্চলের তুলনায় হিমালয় পর্বতের কাছাকাছি হওয়ায় উত্তরের জেলাগুলো শীতটা একটু বেশিই অনুভূত হয়। এতে সেখানকার দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষগুলোকে দুর্ভোগ পোহাতে হয় বেশি।

এদিক বিবেচনায় চলতি মাসের শুরুতেই উত্তরের জেলাগুলোতে গরমকাপড় বিতরণের মধ্য দিয়ে নিজেদের শীতবস্ত্র বিতরণ কার্যক্রম শুরু করে মুসলিম রিসার্চ সেন্টার। কার্যক্রমের দ্বিতীয় ধাপে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে চট্টগ্রামের লোহাগড়া উপজেলার চুনতি ইউনিয়নে।  

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এই শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুসলিম রিসার্চ সেন্টারের চট্টগ্রাম জেলা প্রধান রিয়াজ আহমেদ সিদ্দিকী, উপদেষ্টা শাহীন আক্তার, আহ্বায়ক মো. ছৈয়দ উদ্দিন সিদ্দিকী এবং সমন্বয়ক মোহাম্মদ সোহাইব।

অনুষ্ঠানে বক্তব্যকালে প্রতিষ্ঠানটির চট্টগ্রাম জেলা প্রধান রিয়াজ আহমেদ সিদ্দিকী বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগসহ যেকোনো বিপর্যয়ে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত শ্রেণির পাশে দাঁড়ানো প্রত্যেকটি স্বচ্ছল মুসলমানের ঈমানী দায়িত্ব। এই দায়িত্ববোধ থেকেই আমরা আমাদের সর্বোচ্চটা দিয়ে দেশের অসহায় মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

চট্টগ্রাম জেলা প্রধান মহোদয়ের কথার সঙ্গে যুক্ত করে আহ্বায়ক মো. ছৈয়দ উদ্দিন সিদ্দিকী বলেন, এমআরসি প্রতিষ্ঠার অন্যতম প্রধান লক্ষ্যই হলো- আর্ত-মানবতার সেবায় কাজ করা। এই লক্ষ্য পূরণে মুসলিম রিসার্চ সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ রশিদ আল মাজিদ খান সিদ্দিকী মামুন সহযোগিতায় আমরা প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মানুষের সেবায় নিজেদেরকে নিয়োজিত রেখেছি এবং আগামীতেও ইনশাল্লাহ মানবকল্যাণের এই ধারা অব্যাহত থাকবে।

এছাড়া বরাবরেরই মতো ব্যক্তিগত ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়েও শীতবস্ত্রসহ নানান ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছেন মুহাম্মদ রশিদ আল মাজিদ খান সিদ্দিকী মামুন। এক্ষেত্রে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান সাহায্য পেতে চাইলে ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগের পাশাপাশি এমআরসির নিজস্ব ওয়েবসাইট www.muslimresearchcentre.com এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে আবেদন করবে পারবেন।

কোরআন ও হাদিসের ওপর উন্নত গবেষণা, ইসলামী প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন এবং বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে এবছর আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে মুসলিম রিসার্চ সেন্টার (এমআরসি)। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই নিজস্ব ওয়েবসাইট ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে সবার কাছে ইসলাম সম্পর্কিত দরকারী তথ্য সরবরাহ করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। পাশাপাশি আর্ত-মানবতার সেবায় নানান সামাজিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে মুসলিম রিসার্চ সেন্টার। চলমান করোনা মহামারির মধ্যে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশাপাশি বিপদগ্রস্ত আলেমদের পাশে দাঁড়িয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এছাড়া দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তিদান থেকে শুরু করে ক্ষতিগ্রস্ত পুরাতন মসজিদ ও এতিমখানা সংস্কার, সঠিক নিয়মে কোরআর শিক্ষা, মরদেহ দাফন ও ইসলামী পরামর্শ দেওয়াসহ নানামুখী সামাজিক কাজ করে যাচ্ছে মুসলিম রিসার্চ সেন্টার।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) ওই সেন্টার থেকে পাঠানো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২১
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa