ঢাকা, বুধবার, ৬ মাঘ ১৪২৭, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ০৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

নারীদের সহায়তায় ‘আমরা মেয়েরা বলছি’র যাত্রা শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০২০
নারীদের সহায়তায়  ‘আমরা মেয়েরা বলছি’র যাত্রা শুরু গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা, ছবি: জি এম মুজিবুর

ঢাকা: সহিংসতা এবং নির্যাতনের শিকার নারীদের সহায়তা দেওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে যাত্রা শুরু করলো ‘আমরা মেয়েরা বলছি’ প্ল্যাটফর্ম। বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ব্র্যান্ড কনসোর্টিয়াম এবং দেশের শীর্ষ অনলাইনভিত্তিক গণমাধ্যম বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম এর যৌথ উদ্যোগে এই প্ল্যাটফর্মের যাত্রা শুরু হলো।

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ কার্যালয়ে এক গোলটেবিল আলোচনার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘আমরা মেয়েরা বলছি’র যাত্রা শুরু হয়। সমাজের সব পর্যায়ের জন্য ২৪ ঘণ্টা উন্মুক্ত এই প্ল্যাটফর্মে দেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, নারী ও শিশু অধিকার নিয়ে কাজ করা ব্যক্তিসহ বিভিন্ন খাত সংশ্লিষ্টরা স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে যুক্ত থাকবেন।

গোলটেবিল আলোচনায় জানানো হয়, সমাজের যেসব নারীরা বিভিন্ন ধরনের অপরাধ ও সহিংসতার শিকার, তারা এই প্ল্যাটফর্মে তাদের অভিজ্ঞতা জানাতে পারবেন। সরকারি-বেসরকারি পেশাজীবীদের সাহায্যে নির্যাতিত নারীদের সহায়তা করবে ‘আমরা মেয়েরা বলছি’। নির্যাতিত নারী যেন দ্রুত আইনি এবং সামাজিক প্রতিকার পান, সে বিষয়ে কাজ করবে প্ল্যাটফর্মটি।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম-এর সম্পাদক জুয়েল মাজহার বলেন, পুরুষতান্ত্রিক সমাজে নারীদের প্রতি অতীতেও অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। প্রযুক্তির কল্যাণে আমাদের যেমন সুযোগ এসেছে, তেমনি অপরাধীদের জন্যও সুযোগ তৈরি হয়েছে। এই সুযোগ নারী ও শিশুদের বিষিয়ে তুলেছে। তবে প্রযুক্তির যারা অপব্যবহার করছে, প্রযুক্তিই তাদের ধরার সুযোগ করে দিচ্ছে। বাংলানিউজ সেই উদ্যোগের একটি ক্ষুদ্র অংশ। আমাদের শুধু অ্যাকশনে যেতে হবে, আমরা অ্যাকশনে যাবো। একজন নির্যাতিতার চিৎকারে আমরা যত দ্রুত অ্যাকশনে যাবো তত দ্রুত প্রতিকার পাওয়া যাবে।

‘প্রতিবাদ আর প্রতিরোধে এখন এক নতুন নারী’ প্রতিপাদ্যে গঠিত ‘আমরা মেয়েরা বলছি’ প্ল্যাটফর্মকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বাংলানিউজ সম্পাদক আরও বলেন, আমরা চাই এই প্ল্যাটফর্মটি যেন ডাইনামিক পদ্ধতিতে চলে। আমরা চাই সবাই যেন বন্ধুর মতো, ভাইয়ের মতো, বোনের মতো নির্যাতিত এবং অন্যায়ের শিকার নারীদের সাহায্য করতে পারি। বাংলানিউজ সব ভালো কাজের সাথে থাকে। আমরা এর সঙ্গে থাকতে চাই।

গোলটেবিল আলোচনায় ব্র্যান্ড কনসোর্টিয়ামের প্রধান নির্বাহী শাখাওয়াত আলম রনো বলেন, করোনায় লকডাউনের মধ্যে রাজধানীতে সাড়ে তিন বছরের একটি শিশু ধর্ষণের শিকার হয়। বিষয়টি আমাদের খুব নাড়া দেয়। এরপর গেলো ১৬ জুলাই তুরস্কের ইনার গুলতেকিনের ঘটনাও আমাদের সামনে এসেছে। এসব ঘটনা থেকে আমাদের মধ্যে একটা তাগিদ আসে এমন একটা প্ল্যাটফর্ম তৈরি করার। মেয়েদের জন্য, মেয়েদের নিয়ে, মেয়েদের এই প্ল্যাটফর্ম। এই প্ল্যাটফর্মে হয়তো নারী পুরুষ সবাই কাজ করবেন কিন্তু মূলত নারীরা নেতৃত্ব দেবেন। আমরা বসুন্ধরা গ্রুপের অনলাইন পোর্টাল বাংলানিউজের মতো একটি জনপ্রিয় মিডিয়াকে আমাদের পাশে পেয়ে আনন্দিত। আশা করছি, বাংলানিউজের মাধ্যমে এটি দেশের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়বে।

গোলটেবিল বৈঠকের সঞ্চালক বাংলানিউজের লাইফস্টাইল বিভাগের প্রধান শারমীনা ইসলাম অপরাধের শিকার নারীদের বিচার প্রার্থনায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এজন্য বাংলানিউজ এবং ‘আমরা মেয়েরা বলছি’ প্ল্যাটফর্মকে বিনা সংকোচে এবং পূর্ণ আস্থা রেখে নিজের বা আশ-পাশের অন্য নারীদের সঙ্গে সংঘটিত অপরাধের তথ্য দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

শারমীনা ইসলাম বলেন, আমরা আশা করি, একদিন নারীদের সঙ্গে কোনো অপরাধ সংঘটিত হবে না, তারা নির্যাতিত হবে না। আমাদের প্ল্যাটফর্মে সহিংসতা নিয়ে কোনো ফোন আসবে না। তবে সেই দিনটি অর্জন করতে হলে আজ যারা অপরাধের শিকার হচ্ছেন তাদের এগিয়ে আসতে হবে। আমরা আহ্বান জানাবো যারাই নির্যাতিত হচ্ছেন বা অপরাধের শিকার হচ্ছেন, তারা তাদের সমস্যা আমাদের জানান।

তিনি বলেন, আপনার অবস্থানের সঙ্গে নিকটস্থ যেসব ব্যক্তিরা আপনাকে সাহায্য করতে পারবেন, আমরা তাদের সাথে আপনাদের যোগাযোগ করিয়ে দেবো। একইসঙ্গে সমস্যা সমাধানে আমরাও অ্যাডভোকেসি করবো। ভিকটিম চাইলে আমরা তার নাম পরিচয় কিছুই প্রকাশ করবো না। নারীরা সম্পূর্ণ আস্থা রেখে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন। আমরা তাদের আস্থার পূর্ণ সম্মান রাখবো। ‘আমরা মেয়েরা বলছি’ সবসময় সজাগ থাকবে।

নির্যাতিত কোনো নারী অথবা কোনো অপরাধের শিকার হওয়া নারী চাইলে ফেসবুকের মাধ্যমে ‘আমরা মেয়েরা বলছি’ প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন ফেসবুক লিংক- https://bit.ly/3mF4ZFm থেকে।

এছাড়াও বাংলানিউজের একটি সাব ডোমেইন বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) দিনগত রাত ১২টায় উন্মুক্ত হবে। সেখানেও যোগাযোগ করা যাবে। একইসঙ্গে ২৪ ঘণ্টা চালু থাকা হটলাইন ০১৭৩০৭১৩১৭৭ নম্বরেও যোগাযোগ করা যাবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম এর হেড অব নিউজ আহমেদ জুয়েল, ডিজিএম (মার্কেটিং) আজিজুর রহমান অনু, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (এডিসি) মাহমুদা আফরোজ লাকী, সাইবার ক্রাইম বিভাগের এডিসি নাজমুল ইসলাম, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শারমিন জাহান, সেলিনা আখতার চৌধুরী, সহকারী এটর্নি জেনারেল শাহ লা শরাফত নিজাদ, স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব ফারজানা ইব্রাহিম, লীজান হারবালের চেয়ারম্যান তানিয়া হক, ওমেন অ্যান্ড ই-কমার্স ফোরামের সভাপতি নাসিমা আক্তার নিশাসহ অন্যান্য অতিথিরা বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০২০
এসএইচএস/এইচএমএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad
Alexa