ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

বোনের সনদে সহকারী শিক্ষক, অতঃপর বরখাস্ত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৪ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০২০
বোনের সনদে সহকারী শিক্ষক, অতঃপর বরখাস্ত

লালমনিরহাট: বোনের সনদে জাল জালিয়াতি করার দায়ে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় হাছনা আক্তার নামে এক সহকারী শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।  

হাছনা আক্তার উপজেলার পূর্ব বিছনদই ডাঙ্গাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, বড় বোনের দাখিল পাস সনদপত্র ব্যবহার করে হাছনা আক্তার পূর্ব বিছনদই ডাঙ্গাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ গ্রহণ করেন। এতে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) জাল জালিয়াতির আশ্রয় নেন হাছনা আক্তার। চাকরির কাগজপত্র তদন্ত করতে গিয়ে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা এ জাল-জালিয়াতির সত্যতা পান। এ নিয়ে গত ২৯ অক্টোবর ৬৪৪/০১-২০২০ স্মারকে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে চিঠি পাঠান লালমনিরহাট পুলিশ সুপার।  

পুলিশ সুপারের পাঠানো চিঠির আলোকে জাল জালিয়াতির দায়ে গত ৫ নভেম্বর জেপ্রাশিঅ/লাল/এফ-সামঃ-বরঃ/২০২০/১৬৭৩/৮ স্মারকে এক অফিস আদেশে ওই শিক্ষক হাছনা আক্তারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সাময়িক বরখাস্তাদেশ গত ১৯ অক্টোবর থেকে কার্যকর করা হবে। তবে বরখাস্তকালীন ওই শিক্ষক খোরপোষভাতা প্রাপ্য হবেন বলেও অফিস আদেশে বলা হয়েছে।  

লালমনিরহাট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম নবী বাংলানিউজকে বলেন, জাল-জালিয়াতির দায়ে সহকারী শিক্ষক হাছনা আক্তারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। অফিস আদেশ ওই শিক্ষকসহ বিভিন্ন দফতরে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa