ঢাকা, রবিবার, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

ঢাকা থেকে বিদায় নিচ্ছেন রীভা গাঙ্গুলি

তৌহিদুর রহমান, ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০
ঢাকা থেকে বিদায় নিচ্ছেন রীভা গাঙ্গুলি রীভা গাঙ্গুলি দাশ, ফাইল ফটো

ঢাকা: দে‍ড় বছর দায়িত্ব পালন শেষে ঢাকা থেকে বিদায় নিচ্ছেন ভারতীয় হাই কমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। ঢাকায় দায়িত্ব পালনকালে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ককে আরও উচ্চতায় নিয়ে গেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) তিনি ঢাকা ছাড়ছেন।

ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা ঢাকা থেকে বিদায় নেওয়ার পরে যোগ দেন রীভা গাঙ্গুলি দাশ। তিনি গত বছর ১ মার্চ ঢাকার ভারতীয় মিশনে হাইকমিশনার হিসেবে যোগ দেন। তবে রীভা গাঙ্গুলি ঢাকায় নতুন ছিলেন না। এর আগেও তিনি ঢাকায় দায়িত্ব পালন করে গেছেন। বাংলাদেশের সংস্কৃতি-ইতিহাস তার খুব ভালো করেই জানা ছিলো। সে কারণে ঢাকায় দায়িত্ব পালন করাও তার জন্য ছিলো অনেকটাই সহজ।  

রীভা গাঙ্গুলি ঢাকায় দায়িত্ব পালনকালে দুই দেশের মধ্যে সোনালী সম্পর্ক আরও উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। রীভার ঢাকায় দায়িত্ব পালনের সময় মে মাসে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিসেবে যোগ দেন ড. এস জয়শঙ্কর। আর সেপ্টেম্বরের শুরুতে বাংলাদেশ সফর করেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে সেটাই ছিলো জয়শঙ্করের প্রথম বিদেশ সফর। রীভা গাঙ্গুলির দায়িত্ব পালনের শেষ সময়ে চলতি বছর ১৮ আগস্ট ঢাকা সফর করেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।

ঢাকা থেকে বিদায় নেওয়ার দুই দিন আগেই বাংলাদেশ-ভারত যৌথ পরামর্শক সভা (জেসিসি) অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেসিসি সভা অনেক দিন ধরে ঝুলে থাকলেও তিনি বিদায় নেওয়ার আগেই দুই দেশের মধ্যে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই সভাটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই সভায় দুই দেশের মধ্যে ২৮টি যৌথ ঘোষণা এসেছে। আর এই সভা আয়োজনে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।

রীভা গাঙ্গুলি বাংলা ভাষা জানেন। সে কারণে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সহজেই পৌঁ‍ছাতে পেরেছেন তিনি। ঢাকা ছাড়ার আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মত বিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, ‘গত বছরের মার্চে বাংলাদেশে এসেছি। এখানে কেউ এলে গভীর সম্পর্ক হয়ে যায়। এখানে এলে বাংলাদেশের সঙ্গে যে বন্ধুত্ব ও আতিথেয়তা পাই, পৃথিবীর কোনো জায়গায় সেটা আমরা আর পাই না। এটা অতুলনীয়। আমি আপনাদের মিস করবো। ’

বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করেছেন। করোনাকালে চলাচল সীমিত হয়ে পড়লেও ওয়েবিনারে সরব ছিলেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠান ওয়েবিনারে করেছেন। এছাড়া করোনাকালে বাংলাদেশে আটকে পড়া ভারতীয় নাগরিকদের বিশেষ ব্যবস্থায় দেশে ফেরাতে সক্ষম হয়েছেন।

রীভা গাঙ্গুলির সময়ে করোনাকালে ভারত থেকে প্রথমবারের মতো পার্সেল ট্রেন বাংলাদেশে আসে। সে সময় অন্ধ্র প্রদেশ থেকে ৩৮৪ টন শুকনো মরিচ পার্সেল ট্রেনে বাংলাদেশে আসে। একইসঙ্গে কলকাতা থেকে প্রথমবারের মতো ভারতীয় পণ্য চট্টগ্রাম বন্দর হয়ে আসাম ও ত্রিপুরায় যায়। বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে যোগাযোগে এটা ছিল মাইলফলক।  

বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পূর্ব বিভাগের সচিব হিসেবে যোগ দেবেন। তিনি এখান থেকে আরও অনেক বড় দায়িত্ব নিয়ে সেখানে যোগ দিচ্ছেন। রীভা গাঙ্গুলি দাশ ঢাকায় আসার আগে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক সম্পর্ক কাউন্সিলের (আইসিসিআর) মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ঢাকায় আসছেন বিক্রম দোরাইস্বামী:
রীভা গাঙ্গুলি বিদায় নেওয়ার পর ঢাকায় আসছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় নতুন হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী। ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার হিসেবে ইতোমধ্যেই বিক্রম দোরাইস্বামীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি আগামী ৫ অক্টোবর ঢাকায় এসে যোগ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। এরপর ৮ অক্টোবর তিনি রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ করবেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০
টিআর/এজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa