ঢাকা, রবিবার, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

রক্ত জোগাড়ের কথা বলে ধর্ষণ, আটক ২

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০
রক্ত জোগাড়ের কথা বলে ধর্ষণ, আটক ২ আটক মনোয়ার হাসান ও মাশনু আরা শিল্পী

ঢাকা: মুমূর্ষু স্বামীর রক্ত জোগাড় করে দেওয়ার কথা বলে অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে স্ত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় নারীসহ দুইজনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-২।

রাজধানীর মিরপুর থানা এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটকরা হলেন, মনোয়ার হাসান ওরফে সজীব (৪৩) ও মাশনু আরা বেগম ওরফে শিল্পী (৪০)। এদের মধ্যে মনোয়ার হাসানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আর শিল্পীর বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগ।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে র‍্যাব-২ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি মো. আবদুল্লাহ আল মামুন বাংলানিউকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

র‍্যাব জানায়, মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে ভিকটিম তার অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করান। দায়িত্বরত ডাক্তার তার স্বামীর জন্য জরুরিভাবে রক্তের ব্যবস্থা করার পরার্মশ দেন। ভিকটিম সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার ব্লাড ব্যাংকের সামনে গিয়ে কয়েকজন লোককে বসা দেখতে পান।

তিনি সেখানে ‘ও পজিটিভ’ রক্তের বিষয় জানতে চাইলে মনোয়ার হাসান ওরফে সজীব রক্তের ব্যবস্থা করে দেওয়ার কথা বলেন। বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে রক্তের ব্যবস্থা করে দেওয়ার নাম করে তাকে কৌশলে মিরপুর থানার মনিপুরের শিফা ভিলার মাশনু আরা বেগম ওরফে শিল্পীর বাসায় নিয়ে যান। শিল্পীর সহযোগিতায় মনোয়ার হাসান ওই নারীকে ধষর্ণ করেন। এসময় তিনি চিৎকার করলে গলা চেপে ধরে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেন মনোয়ার।

আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, ভিকটিম লাজলজ্জার ভয় ও স্বামীর অসুস্থতার কারণে ধর্ষণের বিষয়টি এতদিন গোপন রেখেছিলেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মনোয়ার ভিকটিমের স্বামীর মোবাইলে ফোন করে বলেন রক্তের ব্যবস্থা হয়েছে। আপনার স্ত্রীকে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় পাঠিয়ে দিন। তখন ভিকটিম ফের ধর্ষিত হওয়ার ভয়ে তার স্বামীকে আগের বিষয়টি জানান।

তিনি অভিযোগ সর্ম্পকে জানান, তারা দুজন শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে র‌্যাব-২ এ অভিযাগ করেন। অভিযাগের পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাব-২ এর একটি দল শুক্রবার রাতে মিরপুর থানার মনিপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে আসামিদের আটক করে।

জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে তিনি জানান, আসামি মনোয়ার ভিকটিমকে ধর্ষণ করার কথা স্বীকার করেছেন। এছাড়া মনোয়ার এও জানান, মাশনু আরা শিল্পীর সঙ্গে তার অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে। এছাড়া আসামিদের বিরুদ্ধে মিরপুর মডল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করা হয়েছে বলে জানান এএসপি মামুন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০
এমএমআই/এমএমএস/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa