ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

বেহাল সুনামগঞ্জ শহরের রাস্তা-ঘাট

মো.আশিকুর রহমান পীর, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫২৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০
বেহাল  সুনামগঞ্জ শহরের রাস্তা-ঘাট বেহাল দশা সুনামগঞ্জ শহরের রাস্তা-ঘাট

সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জ পৌর শহরের রাস্তা-ঘাটের বেহাল দশা দীর্ঘদিন ধরে। সংস্কার না হওয়ায় সুনামগঞ্জের ট্রাফিক পয়েন্ট থেকে ষোলঘরের প্রধান সড়কের বিভিন্ন স্থানে ছোট-বড় অসংখ্য খানাখন্দ সৃষ্টি হয়েছে।

রাস্তাটি এখন যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই রাস্তাটির অবস্থা আরও বেহাল হয়ে পড়ে। রাস্তার অধিকাংশ খানাখন্দে বৃষ্টির পানি জমে থাকার কারণে প্রায় ঘটছে দুর্ঘটনা। প্রতিদিনই লেগে থাকছে যানজট। আর এতে করে পৌরবাসীর ভোগান্তির যেন শেষ নেই।  

সুনামগঞ্জের পৌর শহরের ট্রাফিক পয়েন্ট এলাকাটি প্রধানত ব্যস্ত এলাকা। এই পয়েন্ট থেকে শুরু করে ডিএস রোড, উকিলপাড়া, কাজীর পয়েন্ট, ষোলঘর পয়েন্ট, নবীনগর এলাকা পর্যন্ত রাস্তাটিতে খানাখন্দগুলো দিন দিন আরও বড় আকার ধারণ করে মরণ ফাঁদে পরিণত হচ্ছে। প্রতিদিনই কোন না কোন স্থানে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন স্থানীয় নাগরিকরা।

গত তিন দফা বন্যার কারণে শহরের ভিতের পানি ঢুকে সড়কগুলো ভেঙে যায়। বন্যা অনেক আগে শেষ হলেও পৌর কর্তৃপক্ষ মেরামতের কোনও উদ্যোগ নেন নি। অনেকেইে বলছেন টেন্ডার প্রক্রিয়ার মধ্যেই নাকি আটকে আছে এ সব কাজ।  

পৌর কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় নাগরিকদের মধ্যে দেখা দিয়েছে ক্ষোভ। শহরের চায়ের দোকানগুলো থেকে শুরু করে রিকশা-অটোরিকশা যাত্রীদের মধ্যে ও হাট বাজারে এখন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে পৌর শহরের সড়কের বেহাল অবস্থার বিষয়টি। সামাজিক যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ফেসবুকেও হচ্ছে আলোচনা-সমালোচনা।

শহরের রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন কয়েক লাখ মানুষ চলাচল করেন। প্রতিদিনই জীবনের ঝুঁকি নিয়েই চলাচল করছেন তারা। চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন সুনামগঞ্জ শহরবাসী।  

কিন্তু এসব দেখার যেনো কেউ নেই। পৌর কর্তৃপক্ষের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের নামে যতো অব্যবস্থাপনা ও অপরিকল্পিত কর্মপন্থা আরও সৃষ্টি করেছে জনভোগান্তি। যত্রতত্রই চলছে রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি।

স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, পৌর শহরের প্রধান সড়ক ট্রাফিক পয়েন্ট থেকে ষোলঘর পয়েন্ট রাস্তাটি পৌর কর্তৃপক্ষের চরম অবহেলায় পরে আছে। উন্নয়নের আশ্বাসের ওপর ভর করেই কেটে গেছে মেয়র নাদেরের সময়কাল। রাস্তা ঘাটের বেহাল দশায় বেড়েছে চলাচলে ভোগান্তি।  

পৌর শহরের ষোলঘর এলাকার বাসিন্দা সেরজাহান আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, রাস্তা নিয়ে কি আর বলবো? পৌরসভার রাস্তাগুলোর সমস্যার শেষ নেই। আমাদের প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে শুধুমাত্র অবহেলার কারণে। রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের জন্য পৌরসভার সুদৃষ্টি কামনা করছি। শহরের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলো যথাযথ টেকসই করে কাজ করা হচ্ছে না।  

শহরের উকিলপাড়া এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, রাস্তাগুলোর এমন অবস্থা আগে কখনো মানুষ দেখেনি। শহরের একটি রাস্তাও ভালো না। সব রাস্তা ভাঙাচোরা। মেয়র এই রাস্তা দিয়েই চলাচল করেন কিন্তু দেখেও না দেখার ভান করছেন। মনে হয় তিনি টিনের চশমা পড়ে চলাচল করেন। সুনামগঞ্জ পৌরসভা এখন দুর্নীতিবাজদের কারখানায় পরিণত হয়েছে।

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত বাংলানিউজকে বলেন, ইতোমধ্যে আমাদের শহরের ট্রাফিক পয়েন্ট থেকে ষোলঘর পয়েন্টের রাস্তাটির সংস্কার কাজের টেন্ডার হয়েছে এবং ঠিকাদার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বর্ষা মৌসুম অর্থাৎ বৃষ্টি শেষ হওয়ার অপেক্ষায় আছি। টানা রোদ ছাড়া বৃষ্টিকালে বিটুমিন দিয়ে রাস্তার কাজ করা সম্ভব না। আশা করছি খুব দ্রুত সড়ক সংস্কারের কাজ শুরু হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০
এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa