ঢাকা, বুধবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৭, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ সফর ১৪৪২

জাতীয়

৯৫ কোটি ৬২ লাখ টাকার দুই ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০২০
৯৫ কোটি ৬২ লাখ টাকার দুই ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল

ঢাকা: দেশের ৩০টি পৌরসভায় পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন প্রকল্পে পরামর্শক নিয়োগ প্রস্তাবসহ ৯৫ কোটি ৬২ লাখ ২১ হাজার টাকার দুটি ক্রয় প্রস্তাবের অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

বুধবার (১২ আগস্ট) সচিবালয়ে জুম অ্যাপসের মাধ্যমে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত কমিটির ১৮তম সভায় প্রস্তাবগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির আহ্বায়ক অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, মৎস্য ও প্রাণিসস্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নাসিমা বেগম, অর্থ সচিব আবদুর রউফ তালুকদারসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নেন।

বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী প্রকল্পের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে সাংবাদিকদের জানান, আজকের ক্রয় সংক্রান্ত সভায় দুই প্রস্তাব উত্থাপিত হলে দুটি প্রস্তাবই অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে একটি স্থানীয় সরকার বিভাগের ও অপরটি শিল্প মন্ত্রণালয়ের।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের ৩০টি পৌরসভায় পানি সরবরাহ এবং স্যানিটেশন প্রকল্প এর পরার্মশক সেবার জন্য পরার্মশক প্রতিষ্ঠান নিয়োগের প্রস্তাবে ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি অনুমোদন দিয়েছে। তিনটি প্রতিষ্ঠানকে পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে— জায়েন্ট ভেঞ্চার অব ডেভেলপমেন্ট কনসালট্যান্ট লিমিটেড ঢাকা, বিইটিএস কনসালটিং সার্ভিস লিমিটেড বাংলাদেশ এবং মেসবাংলা কনসালটিং লিমিটেড। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৮ কোটি ২ লাখ ৬০ হাজার ৯৮ টাকা।

বৈঠকে অনুমোদিত অন্য প্রস্তাটি হলো, ২০২০-২১ অর্থবছরে কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেড (কাফকো), বাংলাদেশের কাছ থেকে চুক্তিবদ্ধ ৫.৫০ (পাঁচ দশমিক পাঁচ শূন্য) লক্ষ মেট্রিক টনের মধ্যে ২য় লটে 
৩০ হাজার মেট্রিক টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

প্রতি মেট্রিক টন ইউরিয়া সার ব্যাগিং চার্জসহ এফওটি মার্কিন ডলার ২২৬.০০ হিসেবে মোট ৬৭ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ বাংলাদেশি মুদ্রায় ৫৭ কোটি ৫৯ লাখ ৬১ হাজার টাকা ব্যয়ে আমদানি করা হবে।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবনায় ২০২০-২০২১ অর্থবছরের চাহিদা অনুযায়ী মিনি পিক সিজন, মিনি পিক সিজন, পরর্বতী অফ পিক সিজন এবং পিক সিজনে নিরবচ্ছিন্নভাবে সার সরবরাহের লক্ষ্যে অনুমোদিত সংগ্রহ পরিকল্পনা মোতাবেক কাফকো-বাংলাদেশ হতে সার আমদানির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ২য় লটের ভ্যালিডিটির মেয়াদ আছে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৩ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০২০
জিসিজি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa