ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ সফর ১৪৪২

জাতীয়

স্কুল-রাস্তার পাশে আশ্রয় নিয়েছে ৫ শতাধিক বানভাসী 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৭ ঘণ্টা, আগস্ট ৪, ২০২০
স্কুল-রাস্তার পাশে আশ্রয় নিয়েছে ৫ শতাধিক বানভাসী  রাস্তার পাশে ঘর করে বসবাস করছেন বানভাসীরা। ছবি: বাংলানিউজ

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জে বন্যার পানিতে প্রতিদিনই নতুন নতুন এলাকা তলিয়ে যাচ্ছে। আগে গোপালগঞ্জ সদর, কাশিয়ানী ও মুকসুদপুর উপজেলার ১৫টি গ্রামের বাসিন্দারা পানিবন্দি ছিল।

বর্তমানে নতুন করে যোগ হয়েছে কোটালীপাড়া উপজেলার কলাবাড়ি ইউনিয়নের শিমুলবাড়ি, কাফুলাবাড়ি, রামনগর, কলাবাড়ি ও বৈকন্ঠপুর গ্রাম।

এ নিয়ে জেলার ২০টি গ্রামের অন্তত তিন হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। ৫শ পরিবার উঁচু এলাকার বিভিন্ন স্কুল ও রাস্তার পাশে কুঁড়ে ঘর বানিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। এসব এলাকার ছোট বড় এক হাজারের বেশি পুকুর বন্যার পানিতে ভেসে গেছে।

গোপালগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বিশ্বজিৎ বৈদ্য জানিয়েছেন, মধুমতি নদীতে পানি এখনো বিপৎসীমার ৪০ সেন্টিমিটার এবং মধুমতি বিলরুট চ্যানেলে ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যা গতকাল সোমবার (৩ আগস্ট) মধুমতি নদীতে পানি বিপৎসীমার ৩৮ সেন্টিমিটার এবং মধুমতি বিলরুট চ্যানেলে ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছিল।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে দুর্গতদের সাহায্যের জন্য ৩শ মেট্রিক টন চাল এবং শিশু, গো-খাদ্য ও শুকনা খাবারের জন্য ৬ লাখ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪২ আগস্ট ০৪, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa