ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ সফর ১৪৪২

জাতীয়

‘আন্তর্জাতিক চাহিদা বিবেচনায় পাটখাত সংস্কার করা হচ্ছে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৫ ঘণ্টা, আগস্ট ৪, ২০২০
‘আন্তর্জাতিক চাহিদা বিবেচনায় পাটখাত সংস্কার করা হচ্ছে’ বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে উজবেক রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে পাট সচিব

ঢাকা: আন্তর্জাতিক বাজারের চাহিদা বিবেচনায় পাটখাতের যুগোপযোগী সংস্কারে কার্যকরী পদক্ষেপ নিয়েছে বাংলাদেশ। পরিবেশবান্ধব পাটের ব্যবহার বহুমুখীকরণ এবং উচ্চমূল্য সংযোজিত পাট পণ্যের উৎপাদন, বাজারজাতকরণ ও ব্যবহার বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করছে বর্তমান সরকার।

মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে উজবেকিস্তান-বাংলাদেশের সম্ভাব্য স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে দেশটির নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মো. জাহাঙ্গীর আলমের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে বস্ত্র ও পাট সচিব লোকমান হোসেন মিয়া এসব কথা বলেন।  

সচিব বলেন, সরকার পাট পণ্যের উৎপাদন, বাজারজাতকরণ ও ব্যবহার বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করছে। ইতোমধ্যে পাটকাঠি থেকে চারকোল, কম্পোজিট জুট টেক্সটাইল, পাট পাতার পানীয়, জুট জিও-টেক্সটাইল এবং পলিথিনের বিকল্প ‘সোনালি ব্যাগ’ উৎপাদনের মাধ্যমে পাটখাতে নতুন দিগন্ত উন্মোচন করা সম্ভব হয়েছে।

পলিথিন ও প্লাস্টিকের অতি ব্যবহারের ফলে সৃষ্ট পরিবেশ বিপর্যয়ের প্রেক্ষাপটে বিকল্প হিসেবে প্রাকৃতিক তন্তু ব্যবহারে বিশ্বব্যাপী নতুন আগ্রহ ও মতৈক্য জোরদার হচ্ছে। পাটের তৈরি বহুমুখী পরিবেশবান্ধব নতুন পণ্যের উৎপাদন ও ব্যবহার বৃদ্ধির মাধ্যমে বিশ্বে পাটের গৌরব পুনরুদ্ধারে কাজ করতে উজবেকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে আহ্বান জানান।  

উজবেক রাষ্ট্রদূতকে সচিব আরো জানান, বাংলাদেশে এরই মাঝে বহুমুখী পাটজাত পণ্যের প্রায় ৭০০ উদ্যোক্তা ২৮২ প্রকার দৃষ্টিনন্দন পাট পণ্য উৎপাদন করছেন, যার অধিকাংশই এখন বিদেশে রপ্তানি করা হচ্ছে। বহুমুখী পাটজাত পণ্যকে জনপ্রিয় করতে প্রচার-প্রচারণাসহ আগামীতে বিদেশে বিভিন্ন মেলার আয়োজন করা হবে। বহুমুখী পাটজাত পণ্যের মেলা পাটজাত পণ্য উৎপাদনকারী, বিপণণকারী, ব্যবহারকারী ও বিদেশি ক্রেতাদের মধ্যে অধিক যোগাযোগ স্থাপনে সহায়ক হবে। এ ধরনের উদ্যোগ যথাযথ বাস্তবায়নের মাধ্যমে পাটকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৩ ঘণ্টা, আগস্ট ০৪, ২০২০
জিসিজি/এইচজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa