রাজশাহীতে বিপৎসীমার ৪.১০ মিটার নিচে পদ্মার পানি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রাজশাহীতে বিপদসীমার ৪.১০ মিটার নিচে পদ্মা। ছবি: বাংলানিউজ

walton

রাজশাহী: আষাঢ়ে বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে রাজশাহীর পদ্মা নদীতে হু হু করে পানি বাড়ছে। রাজশাহীতে পদ্মার বিপদসীমা ১৮ দশমিক ৫০ মিটার। আর সোমবার (২৯ জুন) সন্ধ্যা ৬টায় পানির উচ্চতা মাপা হয়েছে ১৪ দশমিক ৪০ মিটার। অর্থাৎ বিপদসীমার মাত্র ৪ দশমিক ১০ মিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে পদ্মা। 

বর্তমানে যেভাবে পানি বাড়ছে তাতে এবার বিপদসীমা অতিক্রমের আশঙ্কা করা হচ্ছে। আর ক্রমাগত পানি বাড়তে থাকায় এবার নদীর তীরে ভাঙনের আশঙ্কাও করা হচ্ছে। এরই মধ্যে তীরে আছড়ে পড়ছে নদীর উত্তাল স্রোত। এছাড়া রাজশাহী জেলার পবা, চারঘাট-বাঘা ও গোদাগাড়ীতে নদীর তীরবর্তী এলাকায় ভাঙন শুরু হয়েছে। এভাবে পানি বাড়লে আগামী সপ্তাহের মধ্যে ভাঙনও বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন নদীপাড়ের মানুষ।

যদিও রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ড বলছে, এখনই উদ্বিগ্ন হওয়ার মত সময় আসেনি। এভাবে আরও কিছুদিন গেলে তবেই আশঙ্কা রয়েছে। নয় তো নয়। কারণ আগামী অক্টোবর পর্যন্ত পদ্মা নদীতে পানি বাড়তে থাকবে। এ সময় বিপদসীমা ছুঁই ছুঁই করবে পদ্মা। কিন্তু গতবছর সেপ্টেম্বরের পর আর পদ্মায় পানি বাড়েনি। ফি বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় রাজশাহী পয়েন্টে পদ্মার পানির উচ্চতা মাপা হয়েছিল ১৭ দশমিক ৫১ মিটার। এরপর আর পানি বাড়েনি। এতে অক্ষত থাকে শহর রক্ষা বাঁধ। 

এদিকে, দেশের এক বন্যার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় বর্ষার শুরুতে বৃষ্টি হচ্ছে। এর ফলে নদ-নদীর পানি বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। এতে পদ্মায় তেমন প্রভাব না পড়লেও ব্রহ্মপুত্র ও যমুনা নদীর পানি সমতল থেকে বাড়তে পারে। এই সময় কোনো কোনো জায়গায় পানি সমতল থেকে বিপদসীমার এক মিটারের মধ্যে আসতে পারে। তবে ব্রহ্মপুত্র ও যমুনা নদীর অববাহিকায় বন্যা হওয়ার আশঙ্কা নেই।

জানতে চাইলে রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডের গেজ রিডার এনামুল হক বাংলানিউজকে বলেন, মূলত ১৬ জুনের পর থেকে রাজশাহী পয়েন্টে পদ্মা নদীর পানি বাড়ছেই। 

তবে প্রতিবছরই মে-জুন মাসে এমন হয়। এক পরিসংখ্যান তুলে ধরে গেজ রিডার এনামুল হক বলেন, গত ১৬ জুন রাজশাহীতে পদ্মা নদীর উচ্চতা ছিল ১১ দশমিক ২২ মিটার। এরপর তা প্রতিদিনই ধাপে ধাপে বেড়েছে। সবশেষ সোমবার (২৯ জুন) সন্ধ্যা ৬টায় রাজশাহীতে পানির উচ্চতা মাপা হয়েছে ১৪ দশমিক ৪০ মিটার।

রাজশাহী পয়েন্ট পদ্মার বিপৎসীমা ১৮ দশমিক ৫০ মিটার। অর্থাৎ রাজশাহীতে বর্তমানে বিপৎসীমার ৪ দশমিক ১০ মিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে পদ্মা।    

এ সময় অতীতের পরিসংখ্যান টেনে পাউবোর গেজ রিডার এনামুল হক বলেন, পানি বাড়া নিয়ে উৎকণ্ঠার কিছু নেই। গেল ১৭ বছরে রাজশাহীতে পদ্মা নদীর পানি বিপদসীমা (১৮.৫০) অতিক্রম করেছে মাত্র দু’বার। এর মধ্যে ২০০৪ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত টানা ৮ বছর রাজশাহীতে পদ্মার পানি বিপদসীমা অতিক্রম করেনি। কেবল ২০০৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মার সর্বোচ্চ উচ্চতা ছিল ১৮ দশমিক ৮৫ মিটার।

এরপর ২০১৩ সালের ৭ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মা বিপদসীমা অতিক্রম করেছিল। ওই বছর পদ্মার উচ্চতা দাঁড়িয়েছিল ১৮ দশমিক ৭০ মিটার। এর পর আর এই রেকর্ড ভাঙেনি বলেও উল্লেখ করেন রাজাশাহী পাউবোর এই গেজ রিডার।

রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কহিনুর আলম বলেন, দেশের বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বাড়তে থাকায় তারা পদ্মার পানিও নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করছেন। তবে এখনই উদ্বিগ্ন হওয়ার প্রয়োজন নেই। ভাঙন বা বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় তাদের আগাম প্রস্তুতি রয়েছে। অবস্থার অবনতি ঘটলে দ্রুতই ব্যবস্থা নেওয়া যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ২২৩৯ ঘণ্টা, জুন ২৯, ২০২০
এসএস/এমকেআর

Nagad
সিআইইউতে অনলাইন ক্লাস আনন্দ দিয়েছে নতুনদের
চবি শিক্ষার্থীদের বৃত্তিতে রোটারি ক্লাবের অর্থ সহায়তা
বগুড়া-১ ও যশোর-৬ উপ-নির্বাচন বর্জন বিএনপির
দৌলতপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু
করোনায় সিলেটে মৃত্যু বেড়ে ৮৭, আশঙ্কজনক ২৮


চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা, দুজন কারাগারে
পাকুন্দিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রেনু বরখাস্ত
বেনাপোলে সাড়ে ৩ মাস পর রপ্তানি বাণিজ্য সচল
ইতালির রোমে বিমানের চার্টার্ড ফ্লাইট ১৩ জুলাই 
বগুড়ায় কমছে যমুনা ও বাঙ্গালী নদীর পানি