ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৪ আগস্ট ২০২০, ১৩ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

শরণখোলায় স্কুলের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৬-২০ ১০:০৬:৪২ পিএম
শরণখোলায় স্কুলের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগ

বাগেরহাট: বাগেরহাটের শরণখোলা তাফালবাড়ি স্কুল অ্যান্ড কলেজে ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। ওই পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে মোটা অংকের অর্থ লেনদেন  হতে পারে এমন অভিযোগ করে লিখিত অভিযোগ করেছেন প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য মো. ওবায়দুল হক। 

যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, এ বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারি ভোরের পাতা পত্রিকায় শরণখোলা তাফালবাড়ি স্কুল অ্যান্ড কলেজে চতুর্থ শ্রেণির একটি শুন্য পদে নিয়োগের জন্য দরখাস্ত আহবান করা হয়। যার পরিপ্রেক্ষিতে চলতি মাসের ২২ তারিখ নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রমাণ করে এ নিয়োগে অবৈধ পন্থা অবলম্বনের সম্ভাবনা রয়েছে। আমরা বিশ্বস্ত সূত্রে জানতে পেরেছি বর্তমানে কর্মরত ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারী মো. আলী হোসেনের ছেলে মো. রহিম হাওলাদারকে এই পদে নিয়োগ দেওয়ার জন্য থেকে মোটা অংকের টাকার লেনদেন চলছে। প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মানিক চাঁদ রায়সহ গভর্নিং বডির সদস্যরা এই লেনদেনের সঙ্গে জড়িত রয়েছে বলে আমরা ধারণা করছি।

অভিযোগকারী মো. ওবায়দুল হক বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে শুন্য সহিষ্ণুতা ঘোষণা করেছেন। আমার সামনে কোনো দুর্নীতি হতে পারবে না। তাই আমি যশোর শিক্ষা বোর্ডে অভিযোগ দিয়েছি। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, বাগেরহাট জেলা প্রশাসক, উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন দপ্তরে আমি অভিযোগের কপি দিয়েছি। আশাকরি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেবে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ মানিক চাঁদ রায় বলেন, যেখানে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়নি সেখানে দুর্নীতির প্রশ্নই আসে না। আর ২২ তারিখে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছ করার জন্য আমরা ৫ সদস্য বিশিষ্ট্য কমিটি গঠন করেছি। যাতে কোনো প্রকার অনিয়ম না হতে পারে এ জন্য আমরা স্থানীয় সাংবাদিক, উপজেলা প্রশাসন, জন প্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করেছি। সর্বোপরি এ নিয়োগে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার জন্য আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি।

প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন খোকন বলেন, প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির একজন সদস্য একটি অভিযোগ দিয়েছেন। আমরা বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছি। এখন পর্যন্ত এ নিয়োগে কোনো প্রকার অনিয়ম খুঁজে পাওয়া যায়নি। এ নিয়োগ প্রক্রিয়াকে স্বচ্ছ করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করার কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২২০৩ ঘণ্টা, জুন ২০, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa