ঢাকা, বুধবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ আগস্ট ২০২০, ২১ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

কুড়িগ্রামে বাড়ছে নদ-নদীর পানি, তলিয়ে গেছে ফসল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৮ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২০
কুড়িগ্রামে বাড়ছে নদ-নদীর পানি, তলিয়ে গেছে ফসল

কুড়িগ্রাম: উজানের ঢল আর বৃষ্টিপাতে কুড়িগ্রামে ধরলা, তিস্তা, ব্রহ্মপুত্র ও দুধকুমারসহ সবকটি নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে বন্যার আশংকা দেখা দিয়েছে। পানিতে তলিয়ে গেছে পাট, ভুট্টা, সবজি ক্ষেত ও বীজতলাসহ বিভিন্ন ফসল। 

বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) বিকেল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ধরলায় ১৪ সেন্টিমিটার, তিস্তায় ১৬ সেন্টিমিটার, দুধকুমারে ২৮ সেন্টিমিটার ও ব্রহ্মপুত্রে ২৭ সেন্টিমিটার পানি বাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ড কন্ট্রোল রুম।

পানি বৃদ্ধি পেয়ে ধরলা অববাহিকায় গত দু’দিনে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে প্রায় অর্ধশত কাঁচা সড়ক তলিয়ে গেছে।

পানিতে তলিয়ে গেছে পাট, ভুট্রা, সবজি ক্ষেত ও বীজতলাসহ বিভিন্ন ফসল। রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নের কামারপাড়া এলাকায় প্রায় এক কিলোমিটার জুড়ে ধরলা নদীর প্রবল ভাঙন শুরু হওয়ায় গত ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে ১০টি বাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে।  

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলা পর্যায় থেকে নিমজ্জিত ও ক্ষতিগ্রস্থ ফসলের ব্যাপারে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সদর উপজেলায় ৪৫ হেক্টর পাট, ৮ হেক্টর সবজি ও ১২ হেক্টর রোপা আউস তলিয়ে যাওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে।  

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, কুড়িগ্রামের নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। উজানে ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকতে পারে। চলতি মাসের শেষের দিকে ব্রহ্মপুত্র অববাহিকায় নদ-নদীর পানি বিপৎসীমা অতিক্রমের সম্ভাবনা রয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৫ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২০
এফইএস/এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa