করোনা: মানসিক স্বাস্থ্যসেবায় ‘মনের ডাক্তার’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: প্রতীকী

walton

ঢাকা: করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে আমাদের প্রত্যেকের জীবনই নানাভাবে প্রভাবিত হয়েছে। এবং হচ্ছে। আমাদের বেশির ভাগের কাছেই এ এক ভয়ঙ্কর নতুন অভিজ্ঞতা। করোনা পরিস্থিতিতে নিজের ও পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা, অনাগত ভবিষ্যৎ, করণীয় এসব নিয়ে সাধারণ মানুষ এমনকি বিশেষজ্ঞরাও অনিশ্চয়তায় ভুগছেন।

স্বাভাবিকভাবেই এটি একটি চাপমূলক পরিস্থিতি। এ সময়ে মানসিকভাবেও সুস্থ থাকা এবং সেইসঙ্গে নিজের ও অন্যদের যত্ন নেওয়াটা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। তাই সবার মানসিক স্বাস্থ্যের যত্নে বাংলাদেশ ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি সোসাইটি (বিসিপিএস), ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং টেলি সাইকিয়াট্রি রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন নেটওয়ার্কের (টিআরআইএন) যৌথ উদ্যোগে সবার জন্য বিনামূল্যে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এ সেবা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি সোসাইটি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগের ৭২ জন ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট স্বেচ্ছায় প্রস্তুত আছেন। আর এই সেবা সহজে সবার কাছে পোঁছানোর দুরূহ কাজটি করছে টেলি সাইকিয়াট্রি রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন নেটওয়ার্কের উদ্ভাবনী এবং সব ধরনের মানসিক স্বাস্থ্যসেবার একটি বিশেষায়িত অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ‘মনের ডাক্তার’।

খুব সহজেই মনের ডাক্তারের ওয়েবসাইট (https://monerdaktar.com) থেকে সরাসরি বা মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করে সেখানে Corona Psychological Care অপশনে রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন। এখান থেকে পছন্দের চিকিৎসা মনোবিজ্ঞানীর সঙ্গে অডিও বা ভিডিও’র মাধ্যমে কথা বলার সুযোগ নিতে পারেন। করোনা পরিস্থিতিতে আপনার শারীরিক সুস্থতার পাশাপাশি মানসিক সুস্থতাও জরুরি। তাই ভালো থাকুন, ভালো রাখুন।

এ উপলক্ষে সম্প্রতি একটি অনলাইন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. ইমদাদুল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোভিড-১৯ রেসপন্স টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. শরীফ আখতারুজ্জামান, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ও টিআরআইএনের চেয়ারম্যান ড. মোসাদ্দেক হোসেন কামাল, অধ্যাপক ড. উপমা কবীর, ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও চেয়ারপারসন নাজমা খাতুন, অধ্যাপক ড. মাহমুদুর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক কামাল আহমেদ চৌধুরী এবং সহযোগী অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামান মজুমদার।

ড. মাহমুদুর রহমানের (বিসিপিএস) সভাপতিত্বে সভায় অনলাইনে সেবাদান এবং গ্রহণের প্রক্রিয়ার ওপর একটি ভিডিও উপস্থাপন করেন টিআরআইএনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. তানজির রশিদ সরণ।

এছাড়া আয়োজনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিসিপিএসের কার্যকরী কমিটির সদস্য, টিআরআইএনের পরিচালনা কমিটির সদস্য এবং ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগের শিক্ষকরা। সবাই এই উদ্যোগকে অত্যন্ত যুগোপযোগী বলে অভিমত ব্যক্ত করেন এবং এ তথ্য সবার কাছে পৌঁছে দেবার অঙ্গীকার করেন, যাতে সাধারণ মানুষ এতে উপকৃত হতে পারেন এবং করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে সক্ষমতা অর্জন করতে পারেন।

বক্তাদের মতে, এই সময়ে মানসিক চাপ, উদ্বেগ, ভবিষ্যতের দুশ্চিন্তা, আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা, নিজের ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নানা ভাবনা ঘিরে ধরা খুবই স্বাভাবিক। আর এসব বিষয় কয়েক গুণ বেশি মাত্রায় কাজ করতে পারে তাদের মধ্যে, যারা নিজে করোনা আক্রান্ত বা আক্রান্ত কারও সেবায় সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছেন। এক্ষেত্রে হতে পারেন পরিবারের সদস্য, স্বাস্থ্য পেশাজীবী, হাসপাতালের কর্মী, আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কর্মী অথবা এমন পরিস্থিতিতেও যাদের নিয়মিত বাইরে কাজে যেতে হচ্ছে, তারা। এছাড়াও সর্বসাধারণের জন্যও করোনা বিষয়ক মানসিক সহায়তার প্রয়োজন হতে পারে।

বাংলাদেশ সময়: ০১১০ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০২০
টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় করোনা ভাইরাস
নবাবগঞ্জে ১৯৫ নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত ৮৯
অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েই জীবিকার তাগিদে ছুটছে ঢাকামুখী মানুষ
রামপুরায় সাংবাদিকের ওপর ‘সন্ত্রাসী’ হামলা
করোনা: চট্টগ্রামে আরও ২৩৭ জন আক্রান্ত
কবি ওয়াল্ট হুইটম্যানের জন্ম


সেই খোরশেদের স্ত্রীর অবস্থার অবনতি, হাসপাতালে ভর্তি
সাড়ে ৬ হাজার ইয়াবাসহ লোহাগাড়ায় গ্রেফতার দুই
করোনা রোগীর সংস্পর্শে এলেও যেতে হবে না আইসোলেশনে!
সরকারি আদেশ মানতে হাসপাতাল মালিকদের হুঁশিয়ারি নাছিরের
লিবিয়াতেই ২৬ বাংলাদেশিকে দাফন