সংস্কৃতিকর্মীদের জন্য ৫০ কোটি টাকা অনুদানের দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: প্রতীকী

walton

ঢাকা: দেশের সংস্কৃতিকর্মীদের জন্য ৫০ কোটি টাকা অনুদানের দাবি জানিয়েছেন জাতীয় ভিত্তিক সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর নেতারা।

শুক্রবার (৩ এপ্রিল) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতির মাধ্যমে তারা এর পাশাপাশি সরকারের কাছে আরও তিনটি দাবি জানান।

দাবিগুলো হলো- আপদকালীন পরিস্থিতি বিবেচনায় দলের অসচ্ছল সদস্যদের সহায়তার জন্য প্রত্যেক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নামে আগের নির্ধারিত আর্থিক বরাদ্দের অর্থ দ্বিগুণ করে দেওয়া হোক, তালিকাভুক্তি অসচ্ছল শিল্পীদের প্রত্যেকের নামে বাৎসরিক বরাদ্দ দ্বিগুণ দেওয়া হোক এবং দেশব্যাপী ছড়িয়ে থাকা হাজার হাজার লোকশিল্পীদের তালিকা শিল্পকলা একাডেমির মাধ্যমে প্রণয়ন করে তাদের প্রত্যেককে এককালীন নূন্যতম পাঁচ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হোক। সেসঙ্গে সার্বিক সংকট মোকাবিলায় উপরিউক্ত খাতে ৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তারা দাবি জানান।

বিবৃতিদাতারা হলেন- সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ ও সাধারণ সম্পাদক হাসান আরিফ, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী লাকী ও সেক্রেটারি জেনারেল কামাল বায়েজীদ, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সভাপতি আসাদুজ্জামান নূর ও সাধারণ সম্পাদক আহকামউল্লাহ, জাতীয় কবিতা পরিষদের সভাপতি ড. মুহাম্মদ সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক তারিক সুজাত, বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদের সভাপতি মান্নান হীরা ও সাধারণ সম্পাদক আহাম্মেদ গিয়াস, বাংলাদেশ গণসঙ্গীত সমন্বয় পরিষদের সভাপতি ফকির আলমগীর ও সাধারণ সম্পাদক মানজারুল ইসলাম চৌধুরী সুইট, বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থার সভাপতি মিনু হক ও সাধারণ সম্পাদক শেখ মাহফুজুর রহমান, বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদের সভাপতি জামাল আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক কামাল পাশা চৌধুরী এবং আইটিআই বাংলাদেশ কেন্দ্রের সভাপতি নাসির উদ্দিন ইউসুফ ও সাধারণ সম্পাদক দেবপ্রসাদ দেবনাথ।

বিবৃতিতে তারা বলেন, আমরা সবাই জানি যে, এদেশের সংস্কৃতিকর্মীরা প্রধানত সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকেই সংস্কৃতি চর্চা করে থাকে। স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে আজ কয়েক হাজার সংস্কতিকৃ সংগঠন নিজ নিজ অবস্থান থেকে সংস্কৃতি চর্চায় নিয়োজিত রয়েছে। এ সমস্ত দলের অধিকাংশ সদস্যই ছোট চাকরি, ব্যবসা, টিউশনি করে জীবিকা নির্বাহ করে। আবার অনেকে রয়েছে ছাত্র এবং বেকার। করোনা ভাইরাস সংকটের কারণে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে এই পরিবারগুলো ব্যাপক আর্থিক অনটনের মধ্যে দিনযাপন করছে। অপরদিকে বাংলাদেশের গ্রামে-গঞ্জে ছড়িয়ে থাকা হাজার হাজার লোকশিল্পী অস্তিত্বের সংকটে নিমজ্জিত। এমনই পরিস্থিতিতে দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গন মহা সংকটের মুখোমুখি।

বাংলাদেশ সময় ১৭৪৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০২০ 
ডিএন/আরবি

প্রধানমন্ত্রীর অনুদান পেলো ৩৯৭টি মসজিদ
সিআরপিকে ১০ কোটি টাকা অনুদান দিলেন প্রধানমন্ত্রী
তামাদির বিষয়ে সুস্পষ্ট নির্দেশনা চেয়ে নোটিশ
বিএনপি নেতার মৃত্যুতে মির্জা ফখরুলের শোক
আইপিএল আয়োজন করতে চায় আরব আমিরাত


চার কার্যদিবস পর সূচক বাড়লো পুঁজিবাজারে
পেশা পরিচালনা করতে পারবেন গাইবান্ধার সেই ১৭ আইনজীবী
করোনায় মারা গেলেন সাংবাদিক মোনায়েম খান
পঞ্চগড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু
ওষুধের বাজার হাজারী গলিতে ৪ ম্যাজিস্ট্রেটের সাঁড়াশি অভিযান