ঢামেক হাসপাতালের চিকিৎসক হোম কোয়ারেন্টিনে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢামেক হাসপাতাল। ফাইল ফটো

walton

ঢাকা: ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের হৃদরোগ বিভাগের এক চিকিৎসককে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। কিছুদিন আগে করোনা শনাক্ত হওয়ার আগে এক রোগী তার বিভাগে চিকিৎসাধীন ছিলেন। 

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) ঢামেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. খান আবুল কালাম আজাদ বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ১০/১২ দিন আগে এক রোগী ওই চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিয়েছিলেন। পরবর্তীতে ওই রোগী রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) করোনা ভাইরাস টেস্ট করালে সেখানে তার পজেটিভ রেজাল্ট আসে। এটি জানতে পেরে ওই চিকিৎসককে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। বর্তমানে তিনি বাসায়ই অবস্থান করছেন। 

অধ্যাপক ডা. খান আবুল কালাম আজাদ বলেন, রোগীরা তথ্য গোপন করার কারণে এই সমস্যা পোহাতে হচ্ছে। এভাবে ডাক্তার-নার্সরা হোম কোয়ারেন্টিনে গেলে রোগীদের চিকিৎসা দেবে কারা? তাই রোগীদেরই চিকিৎসকদের কাছে কিছু লুকানো ঠিক হবে না। 

বৈশ্বিক মহাহারিতে পরিণত হওয়া করোনা ভাইরাসে এ পর্যন্ত বাংলাদেশে পাঁচজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে আইইডিসিআর। এছাড়া আক্রান্ত হয়েছেন ৩৯জন। দেশজুড়ে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন বিদেশফেরতসহ হাজারো মানুষ। 

বাংলাদেশ সময়: ১২২৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০২০
এজেডএস/এমএ 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: করোনা ভাইরাস
করোনায় বাংলাদেশে ২০-৫০ লাখ মৃত্যুর আশঙ্কা অতিরঞ্জিত: মোমেন
প্লেন যোগাযোগ খুলে দেওয়ার তাগিদ দিচ্ছে যুক্তরাজ্য: মোমেন
কোয়ারেন্টিন শেষে সিরাজগঞ্জে ৫০২ জনকে ছাড়পত্র
বাবা বলতেন, শরীরের সঙ্গে লেগে থাকা টাইট পোশাক না পরতে
পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত খেলাধুলা স্থগিত


গুজব রটানো হলে আইনগত ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন: সিভিল সার্জন
করোনা যুদ্ধে হাসপাতালে ১ মিলিয়ন ইউরো দান করলেন জাভি
মধুপুরে ওষুধের কাটন থেকে নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার
‘সাধারণ রোগীর চিকিৎসা না দিলে লাইসেন্স বাতিল’
ট্রাক-অটোরিকশার সংঘর্ষে দুই গার্মেন্টসকর্মী নিহত