php glass

মাদার টেক্সটাইলের ঋণ পুনঃতফসিলের প্রস্তাব ন্যাক্কারজনক

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ

walton

ঢাকা: ব্যাংকিং খাতে ঋণ পুনঃতফসিলীকরণের বিদ্যমান সব নীতিমালা অগ্রাহ্য করে বস্ত্র খাতের খেলাপি প্রতিষ্ঠান মাদার টেক্সটাইলকে সুবিধা দিতে রূপালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ বাংলাদেশ ব্যাংকে যে প্রস্তাব পাঠিয়েছে তাকে ন্যাক্কারজনক বলে অভিহিত করেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

রোববার (৬ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে এ প্রস্তাব নাকচ করে দিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি। একইসঙ্গে রূপালী ব্যাংকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার পাশাপাশি ব্যাংকিং খাতের ভয়াবহ দুর্গতি কাটিয়ে উঠতে দ্রুত স্বাধীন কমিশন গঠনের দাবিও পুনর্ব্যক্ত করেছে টিআইবি।

বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামানকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, মাদার টেক্সটাইলের ঋণ পুনঃতফসিলের প্রস্তাব সংক্রান্ত যে খবর বেরিয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, কোম্পানিটি সাতবার পুনঃতফসিলের সুবিধা পেলেও ঋণ পরিশোধের কোনো আগ্রহ দেখায়নি গেলো দুইযুগে। তারপরও রূপালী ব্যাংক পর্ষদ সম্পূর্ণ সুদ (৪শ কোটি টাকা) মওকুফ করে আসল আদায়ে দীর্ঘমেয়াদি (২০৪০ সাল পর্যন্ত) সুযোগ দেওয়ার অভাবনীয় সুপারিশ বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদনের জন্য পাঠিয়েছে।

সংবাদ মাধ্যম থেকে আমরা আরও জানতে পেরেছি যে, এহেন ঋণ পুনঃতফসিলের জন্য নূন্যতম অর্থ (মোট ঋণের ৫ ভাগ) এককালীন পরিশোধের যে ব্যাংকিং নিয়ম রয়েছে তাও অগ্রাহ্য করা হয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদ যেভাবে বিদ্যমান সব নীতিমালা অগ্রাহ্য করে এ প্রস্তাব দিয়েছে তাতে প্রমাণ হয় যে, তারা কার্যত কায়েমি স্বার্থের কাছে জিম্মি হয়ে গেছে এবং নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে তারা ন্যূনতম পেশাদারিত্ব দেখানোর সক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ব্যাংকিং খাতকে ব্যবহার করে জনগণের আমানতের টাকা যেভাবে লুটপাট করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেওয়ার কোনো বিকল্প থাকতে পারেনা এমন মন্তব্য করে ড. ইফতেখারুজ্জামান রূপালী ব্যাংকের প্রস্তাবটি নাকচ করে দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি আরও বলেন, প্রস্তাব নাকচ করে দেওয়ার মধ্যেই বিষয়টি সীমাবদ্ধ রাখা সমীচীন হবে না। বরং এমন বিধিবহির্ভূত প্রস্তাব আসার পেছনের কারণ খতিয়ে দেখতে হবে এবং পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। কোনো যোগসাজশের ঘটনা ঘটে থাকলে বা পরিচালনা পরিষদের ওই সুপারিশের পেছনে স্বার্থের দ্বন্দ্ব থাকলে তা চিহ্নিত করে কঠোর প্রতিকারমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে।

ইচ্ছা করা খেলাপি গ্রাহকের স্বার্থ রক্ষায় ব্যাংকিংখাতে যে অশুভ আঁতাত চলছে তার রাশ এখনই টেনে ধরার আহ্বান জানিয়ে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, ব্যাংকিং খাত সংস্কারে একটি স্বাধীন কমিশন গঠনের আর কোনো বিকল্প নেই। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করতে চাই যে, সরকার পরিস্থিতির গুরুত্ব যথাযথভাবে অনুধাবন করে কাঙ্খিত সংস্কারের জন্য খাত সংশ্লিষ্ট নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে অতি দ্রুত একটি কমিশন গঠন করবে। যারা বাস্তবতার নিরিখে স্বল্প, মধ্যম ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা পেশ করবেন, যা কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও সরকার কায়েমি স্বার্থের ঊর্ধ্বে উঠে তা বাস্তবায়ন করবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৬, ২০১৯
ইইউডি/ওএইচ/

ইবতেদায়ি পরীক্ষার্থীকে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ
ইসরায়েলের জেলে নায়েলের ৪০ বছর, আশাবাদী পরিবার
রাজশাহীতে আখমাড়াই শুরু
যেন এক টুকরো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়!
হাত হারিয়ে পা দিয়েই পিইসি পরীক্ষা দিচ্ছে মুক্তামনি


উইকেটে জেঁকে বসা পূজারাকে ফেরালেন এবাদত
নরসিংদীর এমপি বুবলীকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার
ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক বরাবরই ভালো: মমতা
ভারত মুক্তিযুদ্ধের সময় পাশে ছিল তা ভুলিনি: প্রধানমন্ত্রী
২ উইকেট হারিয়েই বড় লিডের পথে ভারত