php glass

চুয়াডাঙ্গায় পৃথক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের ২ আরোহী নিহত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজ

walton

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার দর্শনা ও নয়মাইল এলাকায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর)দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার হাউলী গ্রামের আজিজুল মল্লিকের ছেলে জুলফিকার আলী (৪২) ও ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুণ্ডু উপজেলার কাপাসহাটিয়া গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান পলাশ (৩৪)।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে হাউলী থেকে মোটরসাইকেলে করে জীবননগরের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন জুলফিকার আলী। এসময় দর্শনার ফিলিং স্টেশন এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে জুলফিকার ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে।

অপরদিকে চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার নয়মাইল এলাকায় প্রাইভেটকারের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের আরোহী মেহেদী হাসান পলাশের মৃত্যু হয়।

স্থানীয়রা জনিয়েছেন, মঙ্গলবার দুপুরে ঝিনাইদহ থেকে চুয়াডাঙ্গার দিকে যাচ্ছিলেন পলাশ। এসময় নয়মাইল এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি প্রাইভেটকার মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে আরোহী পলাশ রাস্তায় ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান জানান, প্রাইভেটকারসহ চালককে আটক করা হয়েছে। অপর দুর্ঘটনার ট্রাকচালক পলাতক থাকলেও ট্রাকটি পুলিশি হেফাজতে রয়েছে। দুর্ঘটনায় মরদেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চুয়াডাঙ্গা
ডিএসইর সূচক বাড়লেও কমেছে সিএসইতে
মাঠে সতীর্থকে মেরে বড় শাস্তির অপেক্ষায় শাহাদাত
দীপন হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পিছিয়ে ১ ডিসেম্বর
নতুন বিয়ে, জরুরি ঘর আর অফিস ব্যালেন্স 
বন্দুকযুদ্ধে ‘আইজ্জা ডাকাত’ নিহত


‘রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো যাবে, কিন্তু রাতারাতি সম্ভব নয়’
২ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কিনলেন সিসিক মেয়র
শিক্ষার্থীদের চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের উপযোগী করতে হবে   
দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে বরিশালে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ
সরকারের প্রতি দেশের মানুষের সমর্থন নেই: মিনু