ঢাকা, সোমবার, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১০ আগস্ট ২০২০, ১৯ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

নারায়ণগঞ্জে হত্যা মামলার ৬ আসামি গ্রেফতার, রিমান্ড

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯
নারায়ণগঞ্জে হত্যা মামলার ৬ আসামি গ্রেফতার, রিমান্ড প্রতীকী ছবি

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে হোসিয়ারি শ্রমিক রফিকুল ইসলাম হৃদয় (২৮) হত্যা মামলার ছয় আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। দুপুরে আদালতে পাঠিয়ে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে সদর মডেল থানা পুলিশ।

পরে, নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নুরুন্নাহারের আদালত তাদের এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।  

গ্রেফতার আসামিরা হলেন পাইকপাড়া নয়াপাড়া এলাকার মৃত কাজী সামসুদ্দোহা ওরফে ছেন্দা মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম (৫২), রিপন (৪৫), ইব্রাহীম (৪০), স্বপন মিয়ার ছেলে আরফিন (২৭), নুরুল ইসলামের স্ত্রী সালমা (৪৫), ফতুল্লার মধ্য নরসিংপুর এলাকার দুদু মিয়ার ছেলে কামাল (৩০)।

এ মামলায় পলাতক রয়েছেন ফতুল্লার মধ্য নরসিংপুর এলাকার দুদু মিয়ার ছেলে মেহেদী হাসান (২৪) ও আলামিন (২৭)।  

এর আগে, গত (৪ সেপ্টেম্বর) রাতে হত্যা মামলাটি দায়ের করেন হৃদয়ের মা জহুরা লাভলী।

মামলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, গত ৩ আগস্ট তার ছেলে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। পরে, ৪ তারিখ ধলেশ্বরী নদীতে একটি অজ্ঞাত মরদেহ পাওয়া গেছে খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে তা শনাক্ত করি। ওই দিন আমার স্বামী শাহ নেওয়াজ একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন। তবে, ময়নাতদন্তের পর জানতে পারি, হৃদয়কে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এর আগে, পূর্ব পরিচিত নুরুল ইসলামের মেয়ে নেহার (২৫) সঙ্গে হৃদয়ের সম্পর্ক রয়েছে জানিয়ে তাকে সামলাতে গত ৩১ জুলাই বাড়িতে এসে আমাদের হুমকি দেওয়া হয়।  

সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিপন বাংলানিউজকে বলেন, হত্যা মামলা দায়েরের পর আসামিদের গ্রেফতার করে আদালতে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আদালতে আসামিদের এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আব্দুল হাই।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯
একে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa