ঢাকা, শনিবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০, ২৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

শরীয়তপুরে সহযোগীসহ ভুয়া পুলিশ সুপার আটক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১১৮ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০১৯
শরীয়তপুরে সহযোগীসহ ভুয়া পুলিশ সুপার আটক

শরীয়তপুর: শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলায় রাকিব আহম্মেদ (২৫) নামে এক ভুয়া পুলিশ সুপার ও তার সহযোগী মসজিদের ইমাম দেলোয়ার হোসেনকে (৩০) আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বুধবার (২৮ আগস্ট) বিকেল ৩টার দিকে গোসাইরহাট উপজেলার হাটুরিয়া পাঁচকাঠি এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক রাকিব আহম্মেদ গোসাইরহাট উপজেলার হাটুরিয়া পাঁচকাঠি গ্রামের মৃত আব্দুল মোতালেব হাওলাদারের ছেলে এবং খাজা কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান খাজা মজিবুর রহমানের ভাগ্নে (বোনের ছেলে)।

তার সহযোগী দেলোয়ার বেপারী ভুয়া পুলিশ সুপার রাকিবের এলাকায় একটি মসিজদে ইমামতি করেন। তিনি একই জেলার ডামুড্যা উপজেলার বালিয়াকান্দি গ্রামের খলিল বেপারির ছেলে।  

পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানান, ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার পরিচয় দিয়ে রাকিব চাকরি দেওয়ার কথা বলে অনেকের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। রাকিব ঢাকায় থেকে পড়াশোনা করেন। মাঝে মধ্যে শিল্পপতি মামার দামি গাড়িতে চড়ে এলাকায় এসে মানুষের কাছে নিজেকে এসপি পরিচয় দেন এবং তাদের সাহায্য সহযোগিতার কথা বলেন।  

প্রায় এক বছর আগে ডামুড্যা উপজেলার দশমনতারা গ্রামের আবু তাহের হাওলাদারের ছেলে উজ্জল হাওলাদার ও একই গ্রামের শাহে আলম বেপারীর ছেলে তৌহিদুল ইসলামকে চাকরি দেওয়ার কথা বলে দেলোয়ার বেপারীর সহযোগিতায় তাদের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন ভুয়া পুলিশ সুপার রাকিব আহম্মেদ।  

এক বছর পার হয়ে গেলেও চাকরি দিতে না পারায় গত বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) তারা রাকিব ও তার সহযোগী দেলোয়ারের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে গোসাইরহাট উপজেলার নিজ বাড়ি থেকে রাকিব ও তার সহযোগি দেলোয়ারকে আটক করে।  

বাংলাদেশ সময়: ২০৫১ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০১৯
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa