ঢাকা, রবিবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৭, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১ সফর ১৪৪২

জাতীয়

নেত্রকোনায় প্রথমবার এডিস মশার সন্ধান, জনমনে আতঙ্ক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯২৮ ঘণ্টা, আগস্ট ২৬, ২০১৯
নেত্রকোনায় প্রথমবার এডিস মশার সন্ধান, জনমনে আতঙ্ক চব্বিশটি টায়ারের ভেতর এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে। ছবি: বাংলানিউজ

নেত্রকোনা: নেত্রকোনা সদরসহ দশটি উপজেলার মধ্যে এ প্রথমবার শহরের বনুয়াপাড়া এলাকায় লার্ভাসহ অসংখ্য এডিস মশা দেখা গেছে। এটি জনসাধারণের জন্য খুবই আতঙ্কের বিষয় বলে দাবি সচেতন মহলের। স্বেচ্ছায় জমিয়ে রাখা পুরনো টায়ারের ভেতর এডিস মশা ও এর লার্ভা জন্ম নেওয়ায় মো. খায়রুল ইসলামকে অর্থদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

দেশের বিভিন্ন জায়গায় এডিসের লার্ভা শনাক্ত হওয়ার পর নেত্রকোনায় এ প্রথম বনুয়াপাড়ায় এর সন্ধান পেলো ‘এডিস মশা ও লার্ভা শনাক্তকরণ টিম’।

টিমের সদস্যরা রোববার (২৫ আগস্ট) বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বনুয়াপাড়ার মদন ও কেন্দুয়া বাসস্টেশনে অভিযান চালান।

পরে, টায়ারের মালিক মো. খায়রুল ইসলামকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দুই হাজার টাকা জরিমানা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাখাওয়াত জামিল সৈকত। আদালত পরিচালনা শেষে সবক’টি টায়ার পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

এসময়, জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মো. আব্দুল হক, জেলা সিভিল সার্জন অফিসের সহকারী কীটতত্ত্ববিদ মঞ্জুরুল হকসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

স্যানিটারি ইন্সপেক্টর আব্দুল বলেন, আগে দেশের বিভিন্ন স্থানে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলেও নেত্রকোনার কোথাও এর দেখা পাওয়া যায়নি। বনুয়াপাড়াতেই প্রথম এডিস মশা পাওয়া গেছে। এলাকাটি দেখে মনে হয়েছে যেন এডিস মশা তৈরির কারখানা।  

তিনি বলেন, অপরিচ্ছন্ন পরিবেশের জন্যই এমনটি হয়েছে, যা প্রত্যেকের জীবনের জন্য হুমকি। চব্বিশটি টায়ারের ভেতর থেকে অসংখ্য এডিস মশা ও লার্ভা শনাক্ত করা হয়েছে।

স্যানিটারি ইন্সপেক্টর বলেন, এডিস মশা ও লার্ভা সশক্তকরণে জেলার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. নিলোৎপল তালুকদারকে প্রধান করে নয় সদস্য বিশিষ্ট টিম গঠন করা হয়েছে। টিমের পক্ষ থেকে প্রতিদিন জেলার বিভিন্নস্থানে কাজ করা হচ্ছে। এডিস মশা শনাক্তকরণের পাশাপাশি মানুষকে সচেতন করা হচ্ছে।

নেত্রকোনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক  (রাজস্ব) মুহাম্মদ আরিফুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও সচেতনতার লক্ষ্যে নিরলস পরিশ্রম করছে জেলা প্রশাসন। চলছে পরিচ্ছন্নতা অভিযান। আশা করা যায়, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও সচেতনতার মাধ্যমেই ডেঙ্গু সমস্যা মোকাবিলা করা সম্ভব হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৫৩০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৬, ২০১৯
একে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa