ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৪ আগস্ট ২০২০, ১৩ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

ঈশ্বরদীতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

উপজেলা করসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-১৯ ০৬:৫৫:৪১ পিএম
ঈশ্বরদীতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

পাবনা (ঈশ্বরদী): পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার দাশুড়িয়া ইউনিয়নে সাথী আক্তার (২৪) নামে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। 

ঘটনার পর থেকে তার মাদকসেবী স্বামী জহুরুল ইসলাম সরদার পলাতক রয়েছেন।

সোমবার (১৯ আগস্ট) সকাল ১০টায় সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

এর আগে রোববার (১৮ আগস্ট) সন্ধ্যায় উপজেলার  দাশুড়িয়া ইউনিয়নের শ্যামপুর সরদার পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে সন্ধ্যায় ঈশ্বরদী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।   

দাশুড়িয়া ইউনিয়নের পল্লী চিকিৎসক তফিজুল ইসলাম, ওই পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে  বাংলানিউজকে জানান, প্রায় ১১ মাস আগে দাশুড়িয়া ইউনিয়নের শ্যামপুর মাদ্রাসাপাড়া গ্রামের মৃত দখিল সরদারের মাদকসেবী ছেলে জহুরুল ইসলাম সরদারের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী আটঘরিয়া উপজেলার মাজপাড়া ইউনিয়নের মাজপাড়া পূর্বপাড়া গ্রামের আতিয়ার রহমানের মেয়ে সাথীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই মাদকসেবী জহুরুল সরদার নানা অজুহাতে সাথীকে শারীরিক ও  মানসিকভাবে  নির্যাতন করতেন।  

শনিবার (১৭ আগস্ট) দিনগত রাতে জহুরুল তার মাকে সঙ্গে নিয়ে সাথীকে বেধড়ক মারধর করেন। এতে সাথী অসুস্থ হয়ে পড়েন। রোববার (১৮ আগস্ট) সন্ধ্যার দিকে আবারও মারধরের একপর্যায়ে গলা টিপে ধরলে সাথী মারা যান। হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহের জন্য জহুরুল ও তার মা সাথীর মরদেহ ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখে পালিয়ে যান। সন্ধ্যার পর এলাকার লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে ঈশ্বরদী থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে। সাথী ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন বলে জানা গেছে।

দাশুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বকুল বাংলানিউজকে জানান, জহুরুল এর আগেও একটি বিয়ে করেছিলেন। সেখানে তার ২টি সন্তান রয়েছে। মাদক সেবন ও অত্যাচারের কারণে সেই স্ত্রী তাকে তালাক দিয়ে চলে যান। পরে আবার সাথীকে বিয়ে করেন। জহুরুল সম্প্রতি ইয়াবাসহ গ্রেফতার হয়ে ৩ মাস জেলও খেটেছেন।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে ঈশ্বরদী থানায় দণ্ডবিধির ৩০৬ ধারায় একটি হত্যা মামলা নথিভুক্ত হয়েছে। আসামি ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।    

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫২ ঘণ্টা, আগস্ট ১৯, ২০১৯
আরএ 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa