php glass

সার্কিট হাউজ মাঠ মাতাচ্ছে ‘শান্ত রাজা’

এম আব্দুল্লাহ আল মামুন খান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শান্ত রাজার মাথায় হাত বুলাচ্ছেন দুলাল মিয়া। ছবি: অনিক খান

walton

ময়মনসিংহ: নাম শান্ত রাজা। নামের মতোই শান্ত হলেও দামে বেশ চড়া। পুরো হাটে নিজের একচ্ছত্র দাপট ধরে রেখেছে। এক কথায় নগরীর ঐতিহ্যবাহী সার্কিট হাউজ হাট পুরোটাই মাতাচ্ছে কালো আর সাদা রঙের এ স্বাস্থ্যবান গরু। তাকে সামলাতে ১১ জনের প্রয়োজন হওয়ায় দিনমান হৈ-চৈ তাকে ঘিরেই।

এক কান দু’কান করে সবার মুখে মুখেই ছড়িয়ে পড়েছে কোরবানির এ পশুটির নাম। অগুনতি মানুষজন দূর-দূরান্ত থেকে ভিড় করছেন।

হাটে ৪২ মণ ওজনের এ গরুর দাম মালিক হেঁকেছেন ১০ লাখ টাকা। হল্যান্ডের হলেস্ট্রিয়াল ফ্রিজিয়াম জাতের সুঠাম স্বাস্থ্যের এ ষাঁড়টির নিচে বিকোতে রাজি নন মালিক নেত্রকোনা জেলার দুলাল মিয়া।

তার দাবি, এ গরুটিকে দেশীয় পদ্ধতিতে নিজের খামারে মোটাতাজা করা হয়েছে। কৃত্রিম ওপায়ে ক্ষতিকারক কোনো ওষুধ প্রয়োগ করা হয়নি। এ গরুটির উচ্চতা ৬ ফুট ৬ ইঞ্চি। প্রায় তিন বছরের শ্রম-ঘামে নিজের সন্তানের মতোই দরদ দিয়ে গরুটিকে বড় করে তুলেছেন।

নেত্রকোনার দুলাল মিয়ার বাড়ি স্থানীয় মেদমি ইউনিয়নের টেঙ্গায়। তার নিজস্ব খামার রয়েছে। সেখানে গাভীসহ বেশ কিছু ষাঁড় গরু রয়েছে। এ গরুগুলোকেও দেশীয় পদ্ধতিতেই মোটাতাজা করা হচ্ছে। সেগুলো আগামী কোরবানির ঈদে বিকোনোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি।

ময়মনসিংহের সর্ববৃহৎ সার্কিট হাউজ হাটে শনিবার (১০ আগস্ট) সকালে ‘শান্ত’রাজার আবির্ভাব ঘটে। দাম চাচ্ছেন ১০ লাখ টাকা। তবে বিকেল পর্যন্ত দাম উঠেছে মাত্র ৬ লাখ টাকা। দরদামের পাশাপাশি সেলফি তোলার হিড়িক পড়েছে।হাটে শান্ত রাজা। ছবি: অনিক খানশান্ত রাজার মালিক দুলাল মিয়া জানান, প্রতিদিন রাজার পেছনে ভূসি, কুড়া, খৈল, ভুট্টা, সয়াবিন, খড়, ঘাস বাবদ হাজারখানেক টাকা খরচ হয়েছে। স্বাস্থ্য আর কালো রঙের জন্যই গরুটি হাটে সবচেয়ে আকর্ষণীয়। এ গরু থেকে কমপক্ষে ৩৫ মণের মতো মাংস হবে।

এ খামারির ভাষ্য হচ্ছে, রাজা এমনিতে শান্ত হলেও এতো মানুষের ভিড়ে মাঝে মধ্যেই মেজাজ হারাচ্ছে। কেউ রাজাকে হাত বুলাতে গেলেই গরুটি ক্ষিপ্ত হচ্ছে। তখন গরুর মালিক রাজাকে হাত না বুলানোর পরামর্শ দিচ্ছেন। কিন্তু কে শোনে কার কথা!

ঢাকার বদলে ময়মনসিংহের এ হাটে ‘শান্ত রাজা’র স্থান হওয়ায় কদর হচ্ছে না বলেও জানালেন এ গরুর সঙ্গে সম্পৃক্ত কেউ কেউ। তারা এখন নিজেদের সিদ্ধান্তে হ্যাপিত্যাশও করছেন। তারা বলছেন, গরু কেনার বদলে দরদাম আর অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থেকেই প্রত্যেকেই বিদায় নিচ্ছেন।

স্থানীয় সূত্র বলছে, সার্কিট হাউজ হাটটি মূলত জমেই ঈদের আগের দিন। অর্থাৎ, শনিবারও (১০ আগস্ট) এ হাট পুরোমাত্রায় জমেনি। আর এতো দামি গরু কেনার মতো ক্রেতাও নেই এই হাটে। গতবারও ত্রিশালের এক খামারি ৬ লাখ টাকা দামের গরু টানা দু’দিন হাটে বসিয়ে রেখে হতাশ মনে বাড়ি ফিরেছিলেন।শান্ত রাজার মাথায় হাত বুলাচ্ছেন দুলাল মিয়া। ছবি: অনিক খানএমন তথ্য দুলাল মিয়ার সামনে উপস্থাপন করলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, ‘শান্ত রাজাকে সন্তানের মতোই মানুষ করেছি। ১০ লাখ টাকার এক টাকা কমেও ওকে বিক্রি করবো না। প্রয়োজনে আমার কাছেই রেখে দোবো।’

শান্ত রাজাকে ঘিরে ভিড় করে থাকা একাধিক ক্রেতা বাংলানিউজকে বলেন, ময়মনসিংহের হাটে এতো দামি গরু এবারই প্রথম। স্বভাবতই গরু কেনার চেয়ে দেখার লোকের ভিড় থাকবেই। এটাও তো হাটের একটি বড় গুণ। তবে দাম না ছাড়লে এ গরু বিক্রি কঠিন হয়ে পড়বে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৩ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০১৯
এমএএএম/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ময়মনসিংহ কোরবানি
আশুলিয়ায় মাদক মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার
আগরতলায় বন সংরক্ষণ বিষয়ক ৩ দিনের কর্মশালা
সেই কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা করেছিলেন হাফেজ মুজিবুল
বানিয়াচংয়ে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা
বাঘারপাড়ায় ৬৭১ বস্তা সরকারি চাল জব্দ


বগুড়া-সৈয়দপুর গ্যাস সরবরাহে জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু
নারায়ণগঞ্জে ইটভাটার বিদ্যুৎ লাইনে জড়িয়ে শিশুর মৃত্যু
সিলেটে সেরা করদাতার সম্মাননা পাচ্ছেন ৩৫ জন
র‌্যাবের অভিযানে ৭ মাদকবিক্রেতা আটক
আগে নিজেদের আইন মানতে হবে