php glass

ভবদহের জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন। ছবি: বাংলানিউজ

walton

যশোর: যশোরের দুঃখ খ্যাত ভবদহের জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানের দাবি জানিয়েছে অভয়নগর ও মনিরামপুর ভবদহ পানিনিষ্কাশন আন্দোলন কমিটি। সমস্যা সমাধানে টাইডাল রিভার ম্যানেজমেন্ট (টিআরএম) বাস্তবায়নসহ চলতি বর্ষা মৌসুমেই সংশ্লিষ্ট নদী ও খালগুলো খননের দাবি জানানো হয়েছে।

সোমবার (০১ জুলাই) বিকেলে যশোর প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি তুলে ধরা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আন্দোলন কমিটির আহ্বায়ক এনামুল হক বাবুল বলেন, আসন্ন বর্ষা মৌসুমে মণিরামপুর, অভয়নগর, কেশবপুর ও যশোর সদরের একাংশকে জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষা করতে হলে অবিলম্বে ভবদহ সুইসগেট থেকে কাশিপুর এবং লখাইডাঙ্গা পর্যন্ত খননের বিকল্প নেই।

আশির দশক থেকে শুরু করে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত অভয়নগর, মণিরামপুরম কেশবপুর ও যশোর সদরের একাংশে জলাবদ্ধতা ছিলো। ১৯৯৮ সাল থেকে বিল ভায়নায়, ২০০০ সালে বিল কেদারিয়ায়, ২০০৬ সালে বিল খুকশিয়ায় টিআরএমের মাধ্যমে নদীর নাব্যতা বজায় রাখা হয়। ফলে ওইসব উপজেলায় কোনো জলাবদ্ধতা হয়নি।

২০১২ সালে বিল খুকশিয়া টিআরএম বন্ধ করে দেওয়ায় হরি নদীতে ভবদহ থেকে কাশিপুর পর্যন্ত ১৭ কিলোমিটার পলি ভরাট হয়েছে। ফলে নতুন করে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির সম্ভবনা দেখা দিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- আন্দোলন কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও কুলটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখর চন্দ্র রায়, অভয়নগর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ ফরিদ জাহাঙ্গীর, মণিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নাজমা খানম, নওয়াপাড়া পৌরসভার মেয়র সুশান্ত কুমার দাস প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ০৬৩৪ ঘণ্টা, জুলাই ০২, ২০১৯
ইউজি/পিএম/এসএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: জল‍াবদ্ধতা যশোর
অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা নেই কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস পল্লিতে
অবৈধ জালে মাছের ডিম ও পোনা হচ্ছে ধ্বংস, প্রয়োজন সচেতনতা
‘আমার এই বাজে স্বভাব’ খ্যাত সংগীত পরিচালক পৃথ্বীরাজ আর নেই
মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থানগুলো এখনো অরক্ষিত
ফেরাউনের বাড়িতেই বেড়ে ওঠেন মুসা


অন্ধকার ময়মনসিংহে আসছে আলো
ডিমলায় দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ পেয়ে আনন্দিত ৩৬ পরিবার
পিরোজপুরে গণপূর্ত মন্ত্রীর নেতৃত্বে সুসংগঠিত আ’লীগ
৪৮ বছর ধরে উপেক্ষিত ধনবাড়ীর শহীদ বুদ্ধিজীবী মুহাম্মদ আখতার 
‘বিসমিল্লা’ দিয়ে শেষ হলো দুই বাংলার নাট্যমেলা