‘বাজেট বাস্তবায়নে ব্যর্থ হলে জবাবদিহি করতে হবে’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সংসদে মোহাম্মদ নাসিম

walton

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: বাজেট বাস্তবায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বাস্তবায়নে যে-ই ব্যর্থ হোক, মন্ত্রী হলেও তাকে জবাবদিহি করতে হবে। সেই সঙ্গে ব্যাংক ঋণখেলাপিদের ছাড় না দিয়ে তাদের প্রতি জিরো-টলারেন্স নীতি গ্রহণ করতে হবে। 

একই সঙ্গে বেসরকারি শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তিতে স্থানীয় সংসদ সদস্যদের (এমপি) যুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন তিনি। 

জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটের উপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে মঙ্গলবার (২৫ জুন) সাবেক এই মন্ত্রী এ দাবি জানান।  

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, এই সংসদে যে জনপ্রতিনিধি আছেন তারা জনগণের কাছে দায়বদ্ধ। শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের যে এমপিওভুক্ত করা হবে তার প্রক্রিয়ার সঙ্গে সংসদ সদস্যদের অন্তর্ভুক্ত করা হোক। কারণ এই এমপিরা জনগণের প্রতিনিধি তাদের এমপিওভুক্তিতে অবশ্যই প্রাধান্য দিতে হবে। 

‘রাজনীতিবিদরাই দেশ পরিচালনা করে, দেশকে এগিয়ে নিয়ে যায়। ভুল ত্রুটি হতে পারে কিন্তু তারাই দেশ পরিচালনা করে, এই রাজনীতিবিদরাই দেশ স্বাধীন করেছে।’ 

তিনি বলেন, মোবাইল ফোনে যে অতিরিক্ত কর ধার্য করা হয়েছে সেটা প্রত্যাহার করুন। সঞ্চয়পত্র হচ্ছে গরিবের সোনার বাটি। এর ওপর উৎসে কর ধার্য করবেন না। গ্যাসের দাম কমানোর জন্য, গরিবের বিদ্যুতের দাম কমানোর জন্য প্রয়োজনে ভর্তুকি দিন। জিয়া, এরশাদ, খালেদা জিয়া ক্ষমতায় ছিলেন দীর্ঘদিন। 

‘এই সময় ব্যাংকিং সেক্টরসহ প্রশাসনে সর্বত্রই জামায়াত-শিবির বসেছিলো। তারা চেষ্টা করে যাতে শেখ হাসিনার সরকার ব্যর্থ হয়। এ বিষয়গুলো দেখতে হবে ব্যবস্থা নিতে হবে। অর্থমন্ত্রীকে বলবো- এই বাজেট অবশ্যই বাস্তবায়ন করতে হবে। যারা করতে পারবে না তাদের জবাবদিহি করতে হবে। সে মন্ত্রী হলেও তাকে জবাবদিহিতা করতে হবে।’ 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ব্যাংক থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট হয়ে গেলো। এদের ছাড় দেওয়া যাবে না এই টাকা আদায় করতে না পারলে এদের সস্পদ বিক্রি করে গ্যাস, বিদ্যুতে ভর্তুকি দিন। এদের প্রতি জিরো টলারেন্স দেখাতে হবে। 

‘সুবিধাবাদি ব্যবসায়ীরা আজ সংসদে। তারা সরকারের মধ্যেও ঢুকে পড়েছে। এরা সুবিধাবাদী, এরা দুই দিক থেকেই সুবিধা নেয়। এরা গার্মেন্টেস মালিক হয়েছে, মিডিয়ারও মালিক হয়েছে। আমাদের কাছ থেকে লাইসেন্স নিয়ে আমাদের বিরুদ্ধেই আবার লেখে।’ 

তিনি বলেন, বিএনপির সবই ভুল। জীবনের পাতায় পাতায় ভুল। নির্বাচনের সময় তারা ড. কামাল হোসেনকে ভাড়া করে নিয়ে আসলো। তিনি আওয়ামী লীগে ফেইলর, তাকে ভাড়া করলো। সে মাঠ ফাঁকা করে দিলো, আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিলাম। বিএনপি কৌশলে হেরে গেছে।

‘আমাদের কাছে কৌশলে আপনারা বারবার হেরে গেছেন। জিয়া, এরশাদের শাসনামলে আমাদের ওপর নির্যাতন চালানো হয়েছে। আমাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এরশাদের সময়ও আমাকে গ্রেফতার করা হয়েছিলো।’

বিএনপির সংসদ সদস্যদের উদ্দেশ্য করে আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, বিএনপির সদস্যরা সংসদকে অবৈধ বলেন, আবার কিভাবে বৈধ হয়ে সংসদে বসে আছেন?   

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৭ ঘণ্টা, জুন ২৫, ২০১৯ 
এসকে/এমএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: সংসদ অধিবেশন
সংগীতজ্ঞ রবিশঙ্করের জন্ম
ইতিহাসের এই দিনে

সংগীতজ্ঞ রবিশঙ্করের জন্ম

করোনা চিকিৎসায় চীনের সাফল্য তুলে ধরলো হুয়াওয়ে
চট্টগ্রামে ৭টার পর থেকে বন্ধ দোকান, প্রবেশ মুখে চেকপোস্ট
মঙ্গলবার থেকে পটুয়াখালী শহরের প্রবেশ বন্ধ
সন্ধ্যা ৬টার পর রাজশাহীতে ওষুধ ছাড়া সব দোকান বন্ধ


১৬ এপ্রিলের মধ্যে শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের অনুরোধ
এবার বাংলাদেশ ছাড়লো রাশিয়ার নাগরিকরাও
করোনা: সিঙ্গাপুরে সেবা বন্ধ করেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন
শখ করে নয়, পেটের টানে কাজে আসছি 
দূষণ কমায় পাঞ্জাব থেকে দেখা গেলো হিমাচলের বরফপাহাড়