php glass

কয়লা ও জীবাশ্ম জ্বালানিতে বিনিয়োগ বন্ধের দাবি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোর সংবাদ সম্মেলন

walton

খুলনা: আসন্ন জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে সদস্য দেশগুলোর কয়লাসহ সব ধরনের দূষণকারী জ্বালানি বিনিয়োগ বন্ধের দাবি জানিয়েছে পরিবেশবাদী সংগঠনগুলো।

সোমবার (২৪ জুন) দুপুরে খুলনার একটি অভিজাত  হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি তোলা হয়।

উপকূলীয় জীবনযাত্রা ও পরিবেশ কর্মজোট (ক্লিন), ইক্যুইটি অ্যান্ড জাস্টিস ওয়ার্কিং গ্রুপ (ইক্যুইটিবিডি), প্রান্তজন ট্রাস্ট, এশিয়া-প্যাসিফিক মুভমেন্ট অন ডেট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ও সায়োনারা কোল-এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ক্লিন-এর প্রধান নির্বাহী হাসান মেহেদী। 

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন পরিবেশ-কথক গৌরাঙ্গ নন্দী ও মাহবুব আলম প্রিন্স।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, শক্তিশালী ২০টি দেশের এই জোট সম্মিলিতভাবে পৃথিবীর জ্বালানিসংশ্লিষ্ট গ্রিনহাউজ গ্যাস নির্গমনের ৮০ শতাংশের জন্য দায়ী। সুতরাং ক্ষতিকর কয়লা ও জীবাশ্ম জ্বালানি রোধে এই দেশগুলোর সুনির্দিষ্ট দায়-দায়িত্ব আছে। কিন্তু তারা সেটি না করে বরং ক্ষতির মাত্রা বাড়িয়ে তুলছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, শুধু ২০১৬ সালে জি-২০ভুক্ত দেশগুলো কয়লা ও অন্যান্য নোংরা জ্বালানিখাতে ১৪ হাজার ৭শ কোটি ডলার ভর্তুকি দিয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে হাসান মেহেদী জানান, উন্নত ও অগ্রসর দেশগুলো আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে কয়লা ও অন্যান্য ক্ষতিকর জ্বালানি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। কিন্তু তারা সেটা মানছে না। আবার তাদের দেশের ক্ষতিকর বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো বাংলাদেশের মতো স্বল্পোন্নত দেশগুলোয় স্থানান্তর করে দিচ্ছে। 

তিনি জানান, বিগত ৫-৬ বছরে জি-২০ভুক্ত এশীয় দেশ ভারত, চীন, জাপান ও কোরিয়া বাংলাদেশে ৩২টি কয়লা-বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করবে বলে চুক্তি সই করেছে। এ বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো আমাদের উপকূলীয় পরিবেশ প্রতিবেশের উপর অত্যন্ত ক্ষতিকর প্রভাব ফেলবে।

সংবাদ সম্মেলনে আগামী ২৮-২৯ জুন অনুষ্ঠেয় জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের নেতাদের কাছে পরিবেশবাদী সংগঠনগুলো পক্ষ থেকে কয়লা ও জীবাশ্ম জ্বালানিভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বিনিয়োগ বন্ধ করা, শতভাগ নবায়নযোগ্য জ্বালানি প্রবর্তনের জন্য অধিক হারে বিনিয়োগ করা, দূষণকারী শিল্প-কারখানা বন্ধ করা এবং জ্বালানিখাতে জনগণের মালিকানা ও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাপনা চালু করার দাবি জানানো হয়। 

এ উপলক্ষে আয়োজকরা আগামী ২৭ তারিখ দেশব্যাপী প্রতিবাদ কর্মসূচির ডাক দেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৬ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০১৯
এমআরএম/এএ

সাভারে বিদ্যুতায়িত হয়ে যুবকের মৃত্যু
চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকে কুপিয়ে জখম
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
সংযোগ সড়ক না থাকায় ভরসা মই
ভৈরবে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীর মৃত্যু


উল্লাপাড়ার অরক্ষিত সেই রেলক্রসিংয়ে নিযুক্ত হলো গেটম্যান
মাগুরায় ডেঙ্গু মশার উপদ্রবে সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ
নয়নার হাত ধরে কলকাতা পাচ্ছে বাংলাদেশের স্বাদ
‘মোবাইল ছিনতাইয়ের জেরে’ রিফাত খুন!
রিইমাজিং নেটওয়ার্কিং ও ডেটা সেন্টারস সামিট অনুষ্ঠিত