php glass

ঈদগাহে কেবলই জায়নামাজ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নগরের শাহী ঈদগাহ পরিদর্শন করেন পরিতোষ ঘোষ। ছবি: বাংলানিউজ

walton

সিলেট: ঈদ কেন্দ্রিক নিরাপত্তায় কেবল জায়নামাজ ব্যতীত অন্য কিছু বহন নিষিদ্ধ করেছে সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)।

অবশ্য বৃষ্টি হলে ছাতা সঙ্গে আনতে পারবেন বলেও পুলিশের তরফ থেকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এরআগে, সোমবার (০৪ জুন) সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার পরিতোষ ঘোষ নগরের শাহী ঈদগাহ পরিদর্শন করেন।

তিনি বলেন, নগরের প্রধান জামাত শাহী ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হবে। এখানে তিন স্তরের নিরাপত্তায় মুসল্লিদের তল্লাশি করে প্রবেশ করানো হবে। তবে ঈদগাহে জায়নামাজ ব্যতীত অন্য কিছু সঙ্গে আনা যাবে না।

এদিকে, পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নগরবাসীর সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষ্যে মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে বিশেষ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

বিশেষ নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে- ঈদগাহ মাঠের নিরাপত্তা, ঈদগাহে যাওয়ার সময় নগদ টাকা, মোবাইল ফোন সঙ্গে নিলে বিশেষ সতর্কতা, ঈদের জামাতের সময় অপরিচিত/দুষ্কৃতিকারী কেউ যেন বাসায় প্রবেশ না করে তা নিশ্চিত করা, অপরিচিত ব্যক্তির দেওয়া খাদ্য গ্রহণে সর্তক থাকা, ঈদের জামাতের আশেপাশে ও ফুটপাতে বোতলজাত পানীয় পান করার ক্ষেত্রে সর্তক থাকা, ঈদ উপলক্ষে বাসা/বাড়িতে গৃহকর্মী নিযুক্ত করলে তাদের প্রতি বিশেষ নজর রাখা, ঈদগাহ মাঠে জায়নামাজ ব্যতীত অন্য কিছু না নেওয়া, নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করে ঈদগাহ্ মাঠে প্রবেশ ও বাহির পথে নজরদারি রাখা, যানযট নিরসনকল্পে গাড়ি ঈদগাহ থেকে দূরে রাখার আহ্বান জানিয়েছে পুলিশ।

বাসা/বাড়ির নিরাপত্তা: ঈদের ছুটি চলাকালীন বাসাবাড়ির নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বাসার দরজা-জানালায় তালা দেওয়া, বাড়ির মালিক ও তত্ত্বাবধায়ককে জানিয়ে যাওয়া, ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা সচল রাখা, দরজায় নিরাপত্তা এলার্মযুক্ত তালা দেওয়া, বাড়ির সামনে সন্দেহজনক কাউকে ঘোরাফেরা করতে দেখলে পুলিশ ফাঁড়ি ও থানাকে অবহিত করার ব্যাপারে বিশেষ অনুরোধ জানানো হয়েছে।

 
মার্কেট, শপিংমল, কার পার্কিং ও ব্যাংক লেনদেন বিষয়ে নিরাপত্তা: মার্কেট/শপিং মলে কোনো নগদ অর্থ না রাখা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান যথাযথভাবে তালাবদ্ধ করা, স্বর্ণের দোকান, ব্যাংক, বীমা, অর্থলগ্নি প্রতিষ্ঠান হলে সিসিটিভি এবং এলার্ম স্কিম ব্যবহার, ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন এবং বহনে সতর্ক থাকা, স্থানান্তরে পুলিশের সহায়তা নেওয়া, মার্কেট/শপিং মলে নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মচারীর বিশ্বস্ততা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া, চাবি নিজের কাছে রাখা, গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য নির্ধারিত স্থান ব্যবহার করা, পকেটমার, ছিনতাইকারী, প্রতারক ও দুষ্কৃতিকারী হতে সাবধান থাকা, স্ব স্ব মার্কেট/শপিং মলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা, বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিরবিচ্ছিন্ন রাখতে জেনারেটর করা ইত্যাদি।

রাস্তা ও যাত্রাপথে নিরাপত্তা: যাত্রাপথে প্রয়োজনে টহল পুলিশের সহায়তা নেওয়া। রাত্রিকালে জনবহুল রাস্তা দিয়ে চলাচল করা। শেয়ার সিএনজি পরিহার করা। সন্দেহভাজন মোটরসাইকেল ব্যবহারকারী থেকে সতর্ক থাকা। রাস্তায় অপরিচিত কারও কাছ থেকে কোনো কিছু না খাওয়া। যাতায়াতের সময় সহযাত্রী বেশে থাকা অজ্ঞান পার্টি ও মলম পার্টির খপ্পর হতে সতর্ক থাকা। বাসস্ট্যান্ডে সতর্কতার সঙ্গে চলাচল, ট্যাক্সি/অটোরিকশা বা ভাড়ায় চালিত অন্যান্য গাড়ি ভাড়া করার সময় রেজিস্ট্রেশন নম্বর এবং ড্রাইভারের নাম ঠিকানা লিখে রাখা, এবং ট্রাকে ভ্রমণ না করা।

যানজট নিরসনে ট্রাফিক সচেতনতা: ট্রাফিক সিগন্যাল মেনে চলা, নির্দিষ্ট লেনে গাড়ি চালান, রাস্তার বিপরীতে গাড়ি না চালানো, যত্রতত্র বাস ও সিএনজি না থামানো, যত্রতত্র গাড়ি ও সিএনজি পার্কিং না করা, হেলমেট পরিধান করে মোটরসাইকেল চালনো, মোটরসাইকেলে লুকিং গ্লাস ব্যবহার করা। গাড়ি চালানো অবস্থায় মোবাইলে কথা না বলা ইত্যাদি নির্দেশনা মেলে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এছাড়া যেকোনো প্রয়োজনে ৯৯৯ বা পুলিশের ০৮২১৭১৬৯৬৮, ০১৭৩৩৭৪৫৭৫, ০১৯৯৫১০০১০০ নম্বরে যোগাযোগ করার  আহ্বানও জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৪১০ ঘণ্টা, জুন ০৪, ২০১৯
এনইউ/এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ঈদুল ফিতর সিলেট
ভোট ছাড়া নির্বাচন হলে পেঁয়াজ ছাড়া রান্নাও হয়: গয়েশ্বর
বড় লিডের পথে ভারত
মহানবী (সা.)-এর জনসেবামূলক কার্যক্রম
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে হত্যা
গাজীপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ১


অপেক্ষার প্রহর গুনছেন সুমির মা
রাজধানীতে ‘তারা বিজনেস ওনার্স ফেয়ার’ শুরু
‘সেরা রায়’ বলে অযোধ্যায় মন্দির করতে মুসলিম নেতার অনুদান
ওয়ানডেতে গাঙ্গুলী, টেস্টে কোহলি
কলেজ শিক্ষকদের চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন