ঢাকা, শনিবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৮ আগস্ট ২০২০, ১৭ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

রাজশাহীতে চলছে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০১৯
রাজশাহীতে চলছে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান উচ্ছেদ অভিযান চলবে আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত

রাজশাহী: জনদুর্ভোগ দূর করতে ফুটপাত ও রাস্তারপাশে অবৈধ স্থাপনা এবং দোকানপাট উচ্ছেদ অভিযানে নেমেছে রাজশাহী সিটি করপোরেশন।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে শুরু হয়েছে এ অভিযান। যা চলবে আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত।

সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল এ অভিযান পরিচালনা করছেন।

সকালে মহানগরীর মাস্টারপাড়া কালিমন্দিরের পাশ থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। পদ্মাপাড় হয়ে হজরত শাহ মখদুম (রহ.) মাজার পর্যন্ত প্রথমদিনের উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হবে।  

দ্বিতীয় দিন অর্থাৎ মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) টিকাপাড়া থেকে অর্কিড ছাত্রাবাস, কল্পনা হল থেকে ঢাকা বাস টার্মিনাল পর্যন্ত, তৃতীয় দিন ১৭ এপ্রিল (বুধবার) ঝাউতলা মোড় থেকে লক্ষ্মীপুর কাঁচাবাজার হয়ে লক্ষ্মীপুর মোড় হয়ে ঘোষপাড়া মোড় পর্যন্ত, চতুর্থ দিন ১৮ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) আলুপট্টি থেকে সাহেব বাজার হয়ে ফায়ার সার্ভিস পর্যন্ত, পঞ্চম দিন ১৯ এপ্রিল (শুক্রবার) শহীদ কামারুজ্জামান চত্বর থেকে আম চত্বর পর্যন্ত, রাজশাহী জেলা মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়াম সংলগ্ন ১৯ নং ওয়ার্ড রোড পর্যন্ত, ৬ষ্ঠ দিন ২০ এপ্রিল (শনিবার) বন্ধগেট থেকে সিটি হাট পর্যন্ত, সপ্তম দিন ২১ এপ্রিল (রোববার) কাশিয়াডাঙ্গা হতে কাঁঠালবাড়িয়া হয়ে আইটি ভিলেজ হয়ে কোর্ট চত্বর পর্যন্ত, অষ্টম দিন ২২ এপ্রিল  (সোমবার) শহীদ কামারুজ্জামান চত্বর থেকে স্মৃতি অম্লান (ভদ্রা মোড়) হয়ে চৌদ্দপাই পর্যন্ত, ৯ম দিন ২৩ এপ্রিল (মঙ্গলবার) ফায়ার সার্ভিস মোড় থেকে সিঅ্যান্ড মোড় হয়ে কোর্ট চত্বর পর্যন্ত, ১০ম দিন ২৪ এপ্রিল (বুধবার) বহরমপুর রেলক্রসিং থেকে বাইপাস মোড় হয়ে কাশিয়াডাঙ্গা পর্যন্ত, ১১তম দিন ২৫ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) ভেড়িপাড়া থেকে টি-বাঁধ হয়ে সার্কিট হাউজ হয়ে দরগা গেট পর্যন্ত উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হবে।

এর আগে গত ৯ এপ্রিল (মঙ্গলবার) রাজশাহী সিটি করপোরেশনের বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সিদ্ধান্ত হয়, জনদুর্ভোগ দূর করতে করপোরেশনের উদ্যোগে অবৈধ স্থাপনা ও ফুটপাত দখলমুক্ত করতে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

সকাল থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ফুটপাত বা রাস্তার ধারে দোকান বসাতে পারবেন না ব্যবসায়ীরা। ফুটপাত ও রাস্তার পাশের ব্যবসায়ীরা বিকেল চারটা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যবসা করতে পারবেন। তবে কোনো ব্যবসায়ী ফুটপাত বা রাস্তায় স্থায়ীভাবে ব্যবসার মালামাল/সরঞ্জাম রাখতে পারবে না।

বিকেল চারটায় মালামাল এনে দোকান বসিয়ে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যবসা করতে পারবেন। এরপর রাত ১০টায় দোকান সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে। ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করে তাদের ব্যবসার জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০১৯
এসএস/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa