আব্দুল কাদেরের উপর পুলিশি নির্যাতনের পরবর্তী শুনানি ৫ ডিসেম্বর

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ রসায়ন বিভাগের ছাত্র আব্দুল কাদেরের উপর পুলিশি নির্যাতনের ঘটনায় পরবর্তী শুনানি আগামী ৫ ডিসেম্বর সোমবার ধার্য করেছেন আদালত।

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ রসায়ন বিভাগের ছাত্র আব্দুল কাদেরের উপর পুলিশি নির্যাতনের ঘটনায় পরবর্তী শুনানি আগামী ৫ ডিসেম্বর সোমবার ধার্য করেছেন আদালত।

সোমবার কাদেরের বিষয়ে গঠিত বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন আদালতে উপস্থাপনের পর আদালত এদিন ধার্য করেন।  

৪০ পৃষ্ঠার এ প্রতিবেদনে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলো মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী ও বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেনের বেঞ্চে এ প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

সংশ্লিষ্ট আদালতের ডেপুর্টি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এবিএম আলতাফ হোসেন জানান, কাদেরের বিষয়ে পুলিশি তদন্ত রিপোর্ট দাখিলের পর সোমবার এ বিষয়ে শুনানি হবে।

এ ধরনের নির্যাতনের ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা, ফৌজদারী অপরাধ ও ক্ষতিপূরণের পৃথক পৃথক মামলা করা যায় বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

প্রতিবেদনে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে সুপারিশে বলা হয়, আব্দুল কাদেরকে সন্দেহবশত আটক করা হয় এবং একজন দুর্বৃত্তের মিথ্যা অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় ও নির্যাতন করা হয়। আব্দুল কাদেরের বক্তব্য ও তার পরিচয়ের বিষয়ে কোনওরূপ অনুসন্ধান না করেই সম্পূর্ণ মনগড়াভাবে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়।

ওই কার্যক্রমে পুলিশের দায়িত্বের প্রতি চরম অবহেলা স্বেচ্ছাচারিতা ও অন্যায়ভাবে একজনকে মিথ্যা মামলা জড়ানোর প্রবণতা পরিলক্ষিত হয়েছে। সুতরাং ভবিষ্যতে এরূপ ঘটনারোধে নিম্নলিখিত পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন।

(ক) কোনও ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের সময় যে অপরাধের অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে সে অপরাধে আদৌ সংশ্লিষ্ট কি-না তদবিষয়ে প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বনের জন্য পুলিশ সদস্যের প্রতি নির্দেশনা জারি করা।

(খ)কোনও ব্যক্তিকে পুলিশ হেফাজতে নির্যাতন না করার বিষয়ে উচ্চ আদালতসহ প্রচলিত আইনে যে নির্দেশনা রয়েছে তা যথাযথভাবে পালনের জন্য পুলিশের উচ্চ পর্যায় থেকে সকল পুলিশ সদস্যের প্রতি প্রয়োজনীয় আদেশ প্রদান করা।

(গ)কোনও ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করার পূর্বে অবশ্যই সে ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট ঘটনায় আদৌ জড়িত কি-না তার প্রাথমিক প্রমাণের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া এবং
(ঘ)পুলিশের সকল প্রকার মামলা দায়েরের ক্ষেত্রে অবশ্যই সত্য ঘটনাকে অবলম্বন করেই মামলা করতে হবে। কোনও পরিস্থিতিতেইে সত্য ঘটনাকে আড়াল করে মিথ্যা বক্তব্য সাজিয়ে মামলা যেন কেউ না করতে পারে সে বিষয়ে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক কঠোর নির্দেশনা জারি করা।

প্রসঙ্গত, এ ব্যাপারে গত ২৮ জুলাই একটি বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন আদালত।

সে নির্দেশনানুযায়ী আইন ও বিচার মন্ত্রণালয়ের সচিব (দায়িত্বপ্রাপ্ত) আশীষ রঞ্জন দাসকে এ দায়িত্ব দেওয়া হয়। তিনি তদন্ত শেষে আজ প্রতিবেদনটি দাখিল করেন।

একই দিন একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত খবরের সূত্র ধরে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চ সুয়োমোটো রুল জারি করে। এছাড়া ওই দিন কাদেরকে হয়রানিমূলকভাবে গ্রেপ্তার ও নির্যাতনের অভিযোগে পুলিশ বিভাগের তিনজন কর্মকর্তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেন। এ বিষয়গুলো খতিয়ে দেখার জন্য হাইকোর্ট একজন যুগ্মসচিব পর্যায়ের কর্মকর্তার নেতৃত্বে তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০১১

Nagad
নালিতাবাড়ী-ঝিনাইগাতীতে ২৫ গ্রাম প্লাবিত
বিপিও উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগের আহ্বান পলকের
বিনিয়োগ আকর্ষণে নীতিমালা সংস্কারের পরামর্শ
ভুয়া চিকিৎসকসহ ৩ জনকে কারাদণ্ড, হাসপাতাল সিলগালা
পশ্চিমবঙ্গে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১,৫৬০ জন


নভোএয়ারে ভ্রমণ করলে ফ্রি কাপল টিকিট
‘টাউট’ শহীদুলের আইন পেশা, আছে মানবাধিকার সংগঠন!
সব বিভাগে ভারী বর্ষণের শঙ্কা, বন্যার অবনতি
অর্ধেক দামে মিলবে কৃষি যন্ত্রপাতি, একনেকে প্রকল্প
খুলনায় নতুন করোনা রোগী শনাক্ত ৭৩, মোট ৩১০৮