‘সকল আন্দোলনে মিলনের অনুপ্রেরণা আধার হয়ে থাকবে’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বুকের তাজা রক্ত ঢেলে যে ডা. মিলন স্বৈরাচার সরকারের পতন তরান্বিত করেছিলেন আজও তার স্বপ্নপূরণ হয়নি। তারপরও ডা. মিলনের আত্মত্যাগ মানুষের অধিকার আদায়ের সকল আন্দোলনে অনুপ্রেরণার অসীম আধার হয়ে থাকবে।

ঢাবি: বুকের তাজা রক্ত ঢেলে যে ডা. মিলন স্বৈরাচার সরকারের পতন তরান্বিত করেছিলেন আজও তার স্বপ্নপূরণ হয়নি। তারপরও ডা. মিলনের আত্মত্যাগ মানুষের অধিকার আদায়ের সকল আন্দোলনে অনুপ্রেরণার অসীম আধার হয়ে থাকবে।

রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বরে শহীদ ডা. মিলন সংসদের উদ্দ্যোগে শহীদ ডা. সৈয়দ শামসুল আলম মিলনের ২১ তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে ‘গণঅভ্যুথান: শহীদ ডা. মিলন দিবস’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তার এসব কথা বলেন।

আলোচন সভায় জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, আগামী ২০১৪ জাতীয় নির্বাচন জিততে হলে মাহাজোটে বর্তমানে বিরাজমান সমন্বয়হীনতা দূর করে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। বর্তমান মহাজোট সরকাররের অভ্যন্তরে সমন্বয়হীনতা রয়েছে।

ইনু আরও বলেন বলেন, ‘ডা. মিলনের স্বপ্ন পূরণ হয়নি। যে মিলনদের রক্তের মাধ্যমে আমরা গণতন্ত্র এনেছি তা কিছু নেতানেত্রী দখল করে নিয়েছে। আমাদের স্বাধীনতার ৪০ বছরে ইতিহাসে আন্দোলন ছাড়া কোনও কিছুই আমরা অর্জন করতে পারিনি।’

প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ উপদেষ্টা অধ্যাপক সৈয়দ মোদ্দাচ্ছের আলী বলেন, মিলন ছিলেন সৈরাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারী এক সাহসী যুবক। দেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় তার আতœত্যাগ জাতি আজীবন মনে রাখবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা যারা বড় পদে আছি তারাই ভুল করি।আমাদের দেশের সাধারণ মানুষের কথা শুনতে হবে। রেখে ক্ষমতায় টিকে থাকা যাবে না। আর তাই জনগণের কাছে থেকেই আমাদের শহীদ মিলনের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালের নির্বাচন জাতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ। জাতির জন্য অনেক কিছু করার জন্য আমাদের ২০১৪ নির্বাচনে নির্বাচিতগুলো হতে হবে। আর এ নির্বাচনে একত্তরের পরাজিত শক্তি (বিএনপি-জামায়াত জোট)কে পরাজিত করতে হবে।

মুিক্তযোদ্ধা ও বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক এবং শহীদ ডা. মিলন সংসদের সভাপতি কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোয়াজ্জেম হোসেনর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন মিলনের মা সেলিনা আক্তার, সংগঠনের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, যুগ্ম-মহাসবি অধ্যাপক ডা. সালাহ্উদ্দিন আহমেদ সেলিম, শহীদ মিলনের জননী সেলিনা আক্তার, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডা. শরফুদ্দিন আহমেদ।

এদিকে সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রহুল কবির রেজভী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরি প্রাঙ্গনে শহীদ মিলনের স্মৃতি ভাস্কর্যে পুষ্প অপর্ণ করেন।

এছাড়াও শহীদ মিলন স্মৃতি ভাস্কর্য পুষ্প অপর্ণ করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ), আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, শহীদ ডা. মিলন পরিবার, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন, ঢাকা মেডিকেল কলেজ, জাতীয় যুব জোট, বাংলাদেশ, যুব মৈত্রী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ কমিউন্স্টি পার্টি, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল, বাংলাদেশ চিকিৎসক সংসদ, বাংলাদেশ বির্তক সংসদ ও বাংলাদেশ যুব আন্দোলনসহ বিভিন্ন সামাজিক, পেশাজীবী ও রাজনৈতিক সংগঠন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০১১

Nagad
চীনের সঙ্গে ৯০০ কোটি রুপির ব্যবসা বাতিল হিরোর
সিলেটে বিনামূল্যে বাসায় পৌঁছাবে অক্সিজেন সেবা
সাংবাদিক নাজমুল হকের জন্ম
ইতিহাসের এই দিনে

সাংবাদিক নাজমুল হকের জন্ম

স্বর্ণের মাস্ক পরছেন ভারতীয়!
জাপানে বন্যা-ভূমিধস, ১৫ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা


ভুতুড়ে বিল: ডিপিডিসির ৫ প্রকৌশলী বরখাস্ত, ৩৬ জনকে শোকজ
ইন্ডাস্ট্রি একাডেমিয়া লিংকেজ তৈরি করা খুবই জরুরি: উপমন্ত্রী
সীমান্তে ২৮টি ভারতীয় গরু জব্দ
লাল-সবুজ পতাকা অস্তিত্বে, তাই শিবনারায়নের পাশে দাঁড়িয়েছি
রাজশাহীতে হারিয়ে যাওয়া সেই শিশুটি বাবাকে ফিরে পেয়েছে