সূবর্ণচরে ফের গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রতীকী ছবি

walton

নোয়াখালী: পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় প্রতিপক্ষের লোকজন কর্তৃক ছয় সন্তানের জননীকে (৩৫) গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার (৩১ মার্চ) রাত ১টার দিকে নির্যাতিতা গৃহবধূকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে ভোট শেষে কেন্দ্র থেকে ফেরার পথে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার উত্তর বাগ্গা গ্রামের রুহুল আমিনের মৎস্য খামারে এ ঘটনা ঘটে। 

চিকিৎসাধীন নির্যাতিতা গৃহবধূর অভিযোগ, ৩১ মার্চ উপজেলা পরিষদের ভোট চলছিল।তিনি ও তার স্বামী চশমা প্রতীকের ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তাজ উদ্দিন বাবরের পক্ষে কাজ করছিলেন। ভোট শেষে সন্ধ্যায় তিনি ও তার স্বামী মোটরসাইকেলে করে নিজেদের বাড়িতে ফিরছিলেন। 

পথে তালা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থক ইউসুফ মাঝির নেতৃত্বে ১০/১২জন তাদের গতিরোধ করে মারধর করে। এসময় বেচু মাঝি, বজলু ও আবুল বাসার তার স্বামীকে আটকে রেখে তাকে পার্শ্ববর্তী রুহুল আমিনের মৎস্য খামারে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে তার স্বামীর চিৎকারে এলাকার লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। 

সোমবার সকালে খবর পেয়ে চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহেদ উদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খিষা হাসপাতালে ওই গৃহবধূকে দেখতে যান। 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খিষা বলেন, নির্যাতিতার অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এর আগে একই উপজেলায় গত ৩০ ডিসেম্বর রাতে ভোটের জেরে চার সন্তানের এক জননী গণধর্ষণের শিকার হন।

বাংলাদেশ সময়: ১১১৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০১, ২০১৯/আপডেট: ১৩২৩ ঘণ্টা
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: নোয়াখালী
Nagad
করোনা: বগুড়ায় একদিনে সুস্থ ৮২, শনাক্ত ৪৮
ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযান, ৮৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা
বাগাতিপাড়ায় ট্রেনের ধাক্কায় এক ব্যক্তির মৃত্যু
ইমরান খানের দলের সামনে ‘অসন্তোষের গ্রীষ্ম’
কারখানায় বৈদ্যুতিক ফাঁদ, সংস্পর্শে একজনের মৃত্যু


অক্টোবরে শুরু মেসি-নেইমারদের বিশ্বকাপ বাছাই
বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা ও উদ্ভাবন বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে
পর্যায়ক্রমে দেশের সব জেলায় বসবে পিসিআর ল্যাব 
এশিয়ার সর্ববৃহৎ সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র উদ্বোধন করলেন মোদী
লকডাউন বাস্তবায়ন না হওয়ায় পরিস্থিতি অবনতি হচ্ছে