php glass

কামরাঙ্গীরচরে ছেলের ছুরিকাঘাতে মায়ের প্রেমিকের মৃত্যু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

হেলালকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ছবি: বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: দুই সন্তানের জননীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে তাকে পাবনা থেকে নিয়ে পালিয়ে ঢাকায় আসার পর ওই নারীর ছেলের ছুরিকাঘাতে হেলাল (৪২) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। হেলাল নিজেও বিবাহিত এবং সন্তানের জনক ছিলেন।

বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকার কামরাঙ্গীরচরের মাহাতাব গ্যাস পাম্প সংলগ্ন দিলু রোডের একটি টিনশেড বাড়িতে ছুরিকাঘাতে আহত হওয়ার পর হেলালকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

ছুরিকাঘাতকারীর নাম সানি। তিনি হেলালের পরকীয়া প্রেমিকা সাবিনার ছেলে। আর সাবিনা ছিলেন হেলালের বন্ধুর স্ত্রী। তারা পাবনার সদর উপজেলার বাসিন্দা।

দু’পক্ষেরই পরিচিত মিন্টু মিয়া নামে এক ব্যক্তি বাংলানিউজকে জানান, হেলাল ও সাবিনা দু’জনেই বিবাহিত এবং সন্তানের জনক-জননী থাকলেও পরকীয়া সম্পর্কে জড়ান। এরপর মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে পাবনা থেকে পালিয়ে দু’জনে দিলু রোডের ওই টিনশেড বাড়িতে ওঠেন।

সাবিনার ছেলে সানি খোঁজ পেয়ে বুধবার সকালে দিলু রোডের বাসায় এসে হেলালকে মারাত্মকভাবে ছুরিকাঘাত করে। রক্তাক্ত অবস্থায় মিন্টুসহ কয়েকজন হেলালকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করলেও পরে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

ঘটনার পরপরই সাবিনা পালিয়ে যান। খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না সানিকেও।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বাংলানিউজকে হেলালের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৯
এজেডএস/এইচএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: পরকীয়া
‘জাতীয় ছাত্র সমাজকে লাঠিয়াল বাহিনী হিসেবে দেখতে চাই না’ 
সংসদে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন রাঙ্গা
দুঃসময়ে দলের প্রতি আস্থা রেখেছিলেন বাবু: নওফেল
জাবি উপাচার্যকে ৮দিনের আল্টিমেটাম আন্দোলনকারীদের
এশিয়ান-ওশেনিয়ান অ্যাওয়ার্ড জিতলো ইজেনারেশন


নারীর উন্নয়ন ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়: ইন্দিরা
ফ্রন্টিয়ার প্রযুক্তি নিয়ে পাঠ্যসূচি করতে হবে: পলক
ইয়েমেনে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ১০ হুথির মৃত্যু
কাউখালীতে হত্যা মামলায় ২ যুবকের ফাঁসি
বাহুবলে ডাকাতির সময় রিভলবারসহ আটক ১