শাবিপ্রবিছাত্রের আত্মহত্যা, শিক্ষকদের দোষারোপ পরিবারের

শাবিপ্রবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শান্তা তাওহিদার সঙ্গে প্রতীক

শাবিপ্রবি (সিলেট): শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিন প্রকৌশল ও প্রযুক্তি (জিইবি) বিভাগের এক শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার করেছেন।

সোমবার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে কাজলশাহ এলাকার একটি বাসার দরজা ভেঙে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। 

নিহত শিক্ষার্থীর নাম মো. সাইফুর রহমান প্রতীক। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিন প্রকৌশল বিভাগের ২০১১-১২ সেশনের শিক্ষার্থী ছিলেন।

এ ঘটনাকে আত্মহত্যা উল্লেখ করে বিভাগীয় শিক্ষকদের দায়ী করেছে তার পরিবার।

এ বিষয়ে সিলেট কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসাইন ভূঁইয়া বাংলানিউজকে বলেন, বিকেলে ওই শিক্ষার্থীর রুমের দরজা ভেঙে তার মরদেহ উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এটি আত্মহত্যা। আমাদের ধারণা, রোববার (১৩ জানুয়ারি)মধ্যরাতে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

এদিকে প্রতীকের আত্মহত্যার জন্য শাবির জিইবি বিভাগের শিক্ষকদের দায়ী করেছেন তার বড় বোন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ বৈকল্য বিভাগের শিক্ষক শান্তা তাওহিদা।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি অভিযোগ করেন, অনার্স এ প্রথম শ্রেণিতে প্রথম হওয়া স্বত্ত্বেও তার ভাই প্রতীককে মাস্টার্সে সুপারভাজার দেওয়া হয়নি, বিভিন্ন কোর্সে নম্বর কম দিয়েছে।

তিনি স্ট্যাটাসে লিখেছেন, প্রতীক টিচার হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিল এটাই তার অপরাধ, গত ছয়মাস ধরে ডিপার্টমেন্ট তিলেতিলে মেরে ফেলছে আমার ভাইকে। আমার কলিজার টুকরা কষ্ট সহ্য না পেরে কাল সুইসাইড করেছে।

অভিযোগের বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক জহির উদ্দিন আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, তার পরিবারকে জানানো হয়েছে। সবার সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৭ ঘন্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১৯
এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: সিলেট আত্মহত্যা
মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার জয়
ডিজিটাল কেওয়াইসি চালু করলো নগদ
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে দুই ডাকটিকিট
চকবাজারে ফের আগুন আতঙ্ক, ছোটাছুটিতে আহত ৭
চকবাজার ট্র্যাজেডি: কারণ অনুসন্ধানে আইইবি’র কমিটি


‘সংস্কৃতিচর্চা জাতিকে অশুভ শক্তি থেকে বিরত রাখে’ 
শেষ ছুটির দিনে প্রাণবন্ত বইমেলা
উত্তরায় বাসের ধাক্কায় কিশোরের মৃত্যু
চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্বাস, সম্পাদক ফরিদ
‘ঢাকাকে সুন্দর-আধুনিক শহরে পরিণত করবো’