সেনবাগে গৃহবধূ হত্যা মামলায় স্বামী ও দেবর গ্রেফতার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: প্রতীকী

নোয়াখালী: নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার উত্তর রাজারামপুর গ্রামে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূ জাহেদা খাতুন শাম্মি হত্যার ঘটনায় তার স্বামী আলী আহম্মদ সোহেল (২৭) ও দেবর রুবেলকে (২৩) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) সকালে ফেনী জেলার ফুলগাজী থেকে সোহেল ও ফেনী সদরের ট্রাংক রোড থেকে রুবেলকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে শাম্মির স্বামী, দেবর ও 
ভাসুর মিলে শাম্মিকে শারীরিক নির্যাতন করে। পরে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করে। পরদিন ২৮ সেপ্টেম্বর ভোরে তারা ওই গৃহবধূর মরদেহ দাগনভূঁঞা উপজেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রেখে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় নিহতের চাচা আব্দুল আউয়াল বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে সেনবাগ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে বলেন, ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী সোহেল ও দেবর রুবেল পলাতক ছিলেন। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে দুপুরে আসামিদের নোয়াখালী বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০১৯
জিপি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: গ্রেফতার হত্যা মামলা নোয়াখালী
আগুনের ভয়াবহতা কমেছে, স্বজনদের খুঁজছেন অনেকে
বরিশালে বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষাশহীদদের স্মরণ
শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস
প্রথম প্রহরে ফুলেল শ্রদ্ধায় ভাষাশহীদদের স্মরণ
একুশের প্রথম প্রহরে ভাষাশহীদদের বিনম্র শ্রদ্ধা


আইএস সম্পৃক্ত শামীমা বাংলাদেশের নাগরিক নয়
ফেনী শহীদ মিনারে জনতার স্রোত
চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ ১৬
গৌরব, প্রেরণা আর অহংকারের অমর একুশ
ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে খুলনায় মানুষের ঢল