বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড মেনে নেওয়া হবে না: আইনমন্ত্রী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ক্রসফায়ারের নামে বিচার বহির্ভূত কোনো হত্যাকাণ্ডকে সরকার মেনে নেবে না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ। সেইসঙ্গে এ ধরনের হত্যাকাণ্ড বন্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ারও ঘোষণা দেন তিনি।

php glass

ঢাকা: ক্রসফায়ারের নামে বিচার বহির্ভূত কোনো হত্যাকাণ্ডকে সরকার মেনে নেবে না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ।

সেইসঙ্গে এ ধরনের হত্যাকাণ্ড বন্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ারও ঘোষণা দেন তিনি।

সোমবার বিকালে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়নে ‘আমাদের অধিকার ও গণতান্ত্রিক সমাজে পুলিশের ভূমিকা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।

যৌথভাবে আলোচনা সভাটি আয়োজন করে বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট), নাগরিক উদ্যোগ ও কমওয়েলথ হিউম্যান রাইটস ইনিশিয়েটিভস (সিএইচআরআই)।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে বলছি এবং আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বলেছেন আইন বহির্ভূত কোনো হত্যাকাণ্ড মেনে নেওয়া হবে না।’

এর আগে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান বিচার বহির্ভূত হত্যার ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘এ ধরনের বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড কোনো সমাজেই থাকা উচিত নয়।’

পুলিশের সীমাবদ্ধতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পুলিশের মানবাধিকার নিশ্চিত না করে তাদের কাছ থেকে মানবাধিকার আশা করা ঠিক নয়।

‘আমাদের যে সংখ্যক পুলিশ সদস্য আছে তা দিয়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা করা সম্ভব নয়। কেবল আলাউদ্দিনের চেরাগ হলেই এই অসম্ভবকে সম্ভব করা সম্ভব!’  

পরে আইনমন্ত্রী তার বক্তৃতায় কোনো অপরাধীকে বিচার ছাড়া ক্রসফায়ারে হত্যা করাকে আরও বড় অপরাধ হিসেবে অভিহিত করে বলেন, ‘এ কাজে যারা জড়িত তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ ব্যাপারে সাক্ষীরা যাতে নির্ভয়ে তথ্য দিতে পারে সেজন্য ‘উইটনেস প্রটেকশন অ্যাক্ট’ করার কথা বলেন মন্ত্রী।

এ ছাড়া যারা দুর্নীতি বিষয়ক তথ্য দেবে তাদের নিরাপত্তা দিতেও আলাদা আইন করার কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘... এ ব্যাপারে কাজ চলছে।’

কিশোররা যাতে জেলে গিয়ে আরও বড় অপরাধী হয়ে না ওঠে, সেজন্য তাদের অপরাধকে মামলা ছাড়া বিকল্প উপায়ে সমাধান করা যায় কিনা সে ব্যাপারেও সরকার ভাবছে বলে  জানান শফিক আহমেদ।

সভার শুরুতে ‘পুলিশ সম্পর্কে ১০১ প্রশ্নোত্তর’ নামে একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন আইনমন্ত্রী।

ড. কামাল হোসেনে সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক নুরুল হুদা, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা এএসএম শাহজাহান প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৯ ঘণ্টা, আগস্ট ৩০, ২০১০

সৈয়দপুর-ঢাকা আকাশপথে প্রতিদিন ১৪ ফ্লাইট 
বিএসএমএমইউ’র সঙ্গে টাটা মেমোরিয়ালের চুক্তি
পাথরঘাটায় আওয়ামী লীগ নেতা বহিষ্কার
পেকুয়ার দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ৩
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ক্যাম্পাসের নকশা উপস্থাপন


বিএসইসির সংবাদ সম্মেলন সোমবার
এবি ব্যাংকের কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ
উখিয়ায় ৩ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জন
‘বঙ্গবন্ধু হত্যার রাতে মার্কিন ও পাক দূতাবাস খোলা ছিল’
রায়গঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৭, আটক ৫