পার্বত্য চুক্তি পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়নের দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সভায় বর্ষপূর্তি উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক প্রফুল্ল কুমার চাকমা। ছবি: বাংলানিউজ

walton

খাগড়াছড়ি: পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নে দৃশ্যমান অগ্রগতি না হওয়ায় চরম ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এমএনলারমা) নেতারা। তারা অভিযোগ করছেন সরকারের সদিচ্ছা না থাকায় এখনো চুক্তি পরিপূর্ণ বাস্তবায়ন হয়নি।

রোববার (২ ডিসেম্বর) সকালে পার্বত্য চুক্তির ২১ তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে খাগড়াছড়ির পানখাইয়াপাড়ার একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত আলোচনা সভায় সমিতির নেতারা এ অভিযোগ করেন।

বর্ষপূর্তি উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক প্রফুল্ল কুমার চাকমার সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বিমল কান্তি চাকমা, রাজনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক বিভূ রঞ্জন চাকমা, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক সুদর্শন চাকমা, যুব বিষয়ক সম্পাদক প্রণব চাকমা, দফতর সম্পাদক উজ্জ্বল ত্রিপুরা, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সিন্ধু কুমার চাকমা, রবি শংকর তালুকদার, সুসময় চাকমা, প্রীতিময় চাকমা প্রমুখ।
 
সভায় বক্তারা বলেন,  চুক্তির অধিকাংশ ধারা এখনো বাস্তবায়ন হয়নি। গুরুত্বপূর্ণ ভূমি কমিশন কার্যকর করতে সরকার কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। সরকার আন্তরিক থাকলে চুক্তি পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়নের সময় লাগতো না।

পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনকে দ্রুত কার্যকর ও চুক্তির সব ধারা অবিলম্বে বাস্তবায়নের দাবি জানান বক্তারা । 

এর আগে পার্বত্য জেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে পায়রা উড়িয়ে বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান ও সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা। পরে একটি র‌্যালি বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে টাউন হল প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়। এতে চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা ও বাঙালিসহ বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষ অংশ নেন। র‌্যালি শেষে টাউন হল প্রাঙ্গণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে আলোচনা সভা হয়।
 
সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সেনাবাহিনীর খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হামিদুল হক, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সেক্টর কমান্ডার কর্নেল গাজী মোহাম্মদ সাজ্জাদ, জাতীয় প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা সংস্থার (ডিজিএফআই) অধিনায়ক কর্নেল মাহবুবুর রহমান সিদ্দিকী, পার্বত্য জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান, পুলিশ সুপার মো. আহমারউজ্জামান প্রমুখ।
 
এছাড়া বিকেলে খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামে সেনাবাহিনীর খাগড়াছড়ি রিজিয়ন ও পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্যোগে শান্তি-সম্প্রীতি কনসার্ট হওয়ার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০১৮
এডি/আরআইএস/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: খাগড়াছড়ি
১২ লাখের বেশি শিক্ষার্থীর উপবৃত্তি পৌঁছে দিল বিকাশ
সুনামগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যু
অনলাইন শিক্ষার সম্ভাবনা নিয়ে গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে সেমিনার
থিয়েটারকর্মীদের খাবার দিচ্ছেন সালমান খান
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৮১৬ জনসহ মোট সুস্থ ১০৫৯৭ জন


মে মাসে ২২ কোটি টাকার চোরাচালান জব্দ বিজিবির
ঝিনাইদহে সাপের ছোবলে শিশুর মৃত্যু
বিএসএফ করোনার বিধিনিষেধ না মানায় এত সংক্রমণ: বিপ্লব
চাল আত্মসাৎ, খুলনায় আ’লীগ নেতার ডিলারশিপ বাতিল
বাগেরহাটে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে গণপরিবহন