ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৬ আগস্ট ২০২০, ১৫ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

বেতনের দাবিতে আদমজীতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৮
বেতনের দাবিতে আদমজীতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ। ছবি: বাংলানিউজ

নারায়ণগঞ্জ: বকেয়া বেতনের দাবি ও কারখানা বন্ধের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডের রফতানিমুখী একটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা।

শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত ইপিজেড এলাকার প্রধান গেইটের সামনে সোয়াদ ফ্যাশনের শ্রমিকরা নারায়ণঞ্জ-আদমজী ইপিজেড-ডেমরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

বকেয়া বেতন, ছুটি ও ফান্ডের টাকা পরিশোধ না করায় এবং শ্রমিকদের না জানিয়ে কারখানা বন্ধের নোটিশ দেওয়ায় বিক্ষুব্ধ হয়ে তারা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

এতে এ সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে শিল্পাঞ্চল পুলিশ ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ এসেও কোনো শ্রমিকদের সড়ক থেকে সরাতে পারেনি। শ্রমিকদের বিক্ষোভ।  ছবি: বাংলানিউজবিক্ষোভকারী পোশাক শ্রমিকদের অভিযোগ, সোয়াদ ফ্যাশনে সাড়ে তিন হাজার শ্রমিক কাজ করছে। পাঁচ থেকে ছয়মাস ধরে ঠিকমতো বেতন পরিশোধ করছে না কারাখানা কর্তৃপক্ষ। সেসঙ্গে বোনাস, ছুটি ও রিজার্ভ ফান্ডের টাকাও দেওয়া হয়নি। এ অবস্থায় এসব পোশাক শ্রমিকরা বাসা ভাড়াসহ সংসার চালানো নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করছেন।

এদিকে শ্রমিকরা কারখানা বন্ধের নোটিশ পেয়ে আরও বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন।

সোয়াদ ফ্যাশনের কর্মরত আরিফ হোসেন বাংলানিউজকে জানান, কর্তৃপক্ষ আমাদেরকে না জানিয়ে হঠাৎ কারখানা বন্ধ করে দেয়। শুনতে পেরেছি মালিক অন্যত্র কারাখানা বিক্রি করে দিয়েছে। একইসঙ্গে বিগত ৪ বছরের ছুটি, ফান্ড ও রিজার্ভের টাকাও আমাদেরকে পরিশোধ করা হয়নি।

একই কারখানার শ্রমিক সবুজ বাংলানিউজকে জানান, আমরা বেপজার কর্মকর্তাদেরকে বিষয়টি অবহিত করেছি।

তারা বলছেন, এ ব্যাপারে তারা কিছুই জানে না। অথচ এর আগে মালিকপক্ষ বেতন নিয়ে গড়িমসি করলে আমরা বেপজার কাছে গেলে কারখানা এই সমস্যা সমাধানের জন্য তারা আমাদের বিভিন্ন ধরনের আশ্বাস দেন। কিন্তু আজ তারা বলছে কিছুই জানে না। কেন তাদের মুখে আজকে এমন দায়িত্বহীন কথা শোনা যাচ্ছে।

মোসাম্মৎ বেগম বাংলানিউজকে জানান, আমাদের সম্পূর্ণ পাওনা পরিশোধ না করে কেন কর্তৃপক্ষ হঠাৎ কাউকে কিছু না জানিয়ে কারাখানা বন্ধ করে দিলো? আমরা ঘর ভাড়া দেবো কোথা থেকে আর খাবার জোগাবো কোথা থেকে? এছাড়া আমরা এই মুহুর্তে কোথায় চাকরি পাবো ? আমরা আমাদের পরিবার নিয়ে খুবই হতাশায় আছি। আমরা আমাদের সব পাওনা চাই। আমাদের ৪ মাস ১৩ দিনের সম্পূর্ণ বেতন দিতে হবে। এজন্য আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এদিকে বিক্ষুব্ধ পোশাক শ্রমিকরা সকাল থেকে ইপিজেট গেট সংলগ্ন আদমজী-ডেমরা-নারায়ণগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে রাখায় সকাল থেকেই সড়কের দু’দিকেই দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। ফলে সড়কটিতে একেবারেই যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভে সড়কের পাশে এবং ইপিজেটের গেইটে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা এবং ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের সদস্যরা অবস্থান নেয়।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নজরুল ইসলাম জানান, কারখানাটি অন্য মালিকের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। শ্রমিকরা চলতি মাসের বেতনের দাবিতে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করছেন। শ্রমিকদের পাওনার বিষয়ে শ্রমিক ও মালিকপক্ষের সঙ্গে আলোচনা চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৮
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa