সাংবাদিকতায় গোলাম সারওয়ার-মোয়াজ্জেম হোসেন অনুসরণীয়

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

দুই সম্পাদক স্মরণে প্রেস ক্লাবে শোকসভা/ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দৈনিক সমকালের সাবেক সম্পাদক গোলাম সারওয়ার ও ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস সাবেক সম্পাদক এএইচএম মোয়াজ্জেম হোসেন নিষ্ঠার সঙ্গে সাংবাদিকতা করে গেছেন। এ দুই সাংবাদিক আমাদের জন্য অনুকরণীয়। তাদের পথ অনুসরণ করেই বাংলাদেশের সাংবাদিকতা সামনের দিকে আরো এগিয়ে যাবে। তাদের অনুসরণ করলে গণমাধ্যম শক্তিশালী হবে বলে মনে করেছেন সাংবাদিক নেতারা। 

শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে ওই দুই সম্পাদক স্মরণে আয়োজিত শোকসভায় প্রথিতযশা সাংবাদিকরা এমন প্রত্যাশা করেন।

সম্পাদক পরিষদ আয়োজিত এ শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও নিউজ টুডের সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ। এতে বক্তব্য রাখেন প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, নিউ এজ সম্পাদক নূরুল কবির, সমকালের প্রকাশক একে আজাদ, হলিডে সম্পাদক কামাল উদ্দিন আহমেদ, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি মুহম্মদ শফিকুর রহমান, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি, যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম, সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খন্দকার মুনীরুজ্জামান, সাংবাদিক জাহিদুজ্জামান ফারুক প্রমুখ। 

শোকসভায় প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, গোলাম সারওয়ার ও মোয়াজ্জেম হোসেন দু’জনেই সাংবাদিকতার বিভিন্ন মাধ্যমে সক্রিয়ভাবে যুক্ত ছিলেন। তারা দু’জনেই অত্যন্ত সজ্জন ব্যক্তি ছিলেন।  সাংবাদিকতা জগত একটা সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, তারা বেঁচে থাকলে আমাদের সহায়ক হতো। তিনি সংবাদপত্রের স্বাধীনতা ও মানদণ্ডের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। সেখানে আমরা প্রয়াত দুই সাংবাদিকের অবদান ও কর্ম অনুসরণ করবো।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও নিউজ টুডের সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, তাদের অনুসরণ করলে গণমাধ্যম শক্তিশালী হবে।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি মুহম্মদ শফিকুর রহমান বলেন, কোনো নিউজে সমস্যা থাকলে সারওয়ার ভাই নিজেই লিখে দিতেন। দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারতেন। তেমনি মোয়াজ্জেমও পারতেন। তারা দু’জনেই অসাধারণ ছিলেন।  

শোকসভায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইয়াসমিন বলেন, তারা আমাদের অভিভাবক। তাদের দেখানো আলোকবর্তিকা আমরা এগিয়ে নিয়ে যাবো। তিনি ক্লাবের উদ্যোগে প্রয়াত দুই সাংবাদিকদের লেখা নিয়ে সংকলন প্রকাশের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

সমকাল পত্রিকার প্রকাশক একে আজাদ বলেন, সারওয়ার ভাই একজন উঁচু মানের মানুষ ছিলেন। তার হাত ধরেই দেশে দু’টি কাগজ প্রতিষ্ঠা হয়েছে এবং গুনে মানে পাঠকপ্রিয় হয়েছে। সাংবাদিক মোয়াজ্জেম হোসেন প্রসঙ্গে এ কে আজাদ বলেন,  মোয়াজ্জেম হোসেনের 'ডেপথ অব নলেজ' ছিল অতুলনীয়। তিনি তার কর্মে সেটা প্রমাণ করেছেন।

শোকসভায় যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম বলেন, আপাদমস্তক সাংবাদিক ছিলেন তারা। তাদের কর্ম এ প্রজন্মের সাংবাদিকদের উজ্জীবিত করবে, পথ দেখাবে।

সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি বলেন, গোলাম সারওয়ার তার কর্মদক্ষতা, পেশাদারিত্ব দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমকালকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তার সেই চেতনাকে ধরে রেখেই সমকাল এগিয়ে যাবে।

নিউ এজ সম্পাদক নূরুল কবির বলেন, একই মাসে দু’জন বরেণ্য সাংবাদিককে হারানো বেদনায়ক। তারা অত্যন্ত সজ্জন ব্যক্তি ছিলেন। তাদের পেশাগত দক্ষতা অনেক দূর পর্যন্ত ছড়িয়েছিল। তরুণ প্রজন্মের অনেক সাংবাদিককে তারা তৈরি করেছেন। সারওয়ার বণার্ঢ্য পেশাগত জীবন থেকে অনেক কিছু শেখার আছে।

মানজমিনের সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, সারওয়ার ভাই ছিলেন আমার প্রিন্সপাল। তার মতো বার্তা সম্পাদক আর এ দেশে আর জন্ম নেবে কিনা সন্দেহ ছিল। হাজার হাজার সাংবাদিক আছে কিন্তু সারওয়ার ভাইয়ের মতো পরিশ্রমি সাংবাদিক পাওয়া যাবে না। মোয়াজ্জেম ভাইও তার কর্মের মধ্যে বেচে থাকবেন।

হলিডে সম্পাদক কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন,দু’জনেই বড় সাংবাদিক ছিলেন। আমাদের দিকপাল ছিলেন। তাদের দেখানো পথেই নবীন সাংবাদিকরা আরও দূর এগিয়ে যাবে। 

গত ১৩ আগস্ট সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার ইন্তেকাল করেন। আর গত ১ আগস্ট ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন ইন্তেকাল করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০২১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৮ 
টিআর/এসএইচ

ক্যাচ মিসেই জিম্বাবুয়ের হার
আক্ষেপ করে মাহাথির বললেন, পদত্যাগ করে ফেলতে পারি
চালকের ভুলে পাম্পে আগুন!
কৃত্রিম চাঁদ বানাবে চীন!  
মায়ের কোল থেকে শিশু কেড়ে নিলো পিকআপ
কবি জীবনানন্দ দাশের প্রয়াণ
ছেলেকে সেঞ্চুরি উৎসর্গ করলেন ইমরুল
বান্দরবানে বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২
দর্শক সাড়ায় উচ্ছ্বসিত বাপ্পি
বাংলাদেশ দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন