রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় ২ ব্যক্তির মৃত্যু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রতীকী ছবি

ঢাকা: রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১০ আগস্ট) সকালে পৃথক এলাকায় এ ঘটনাগুলো ঘটে। নিহতরা হলেন ইব্রাহীম ও বিল্লাল হোসেন।
php glass
গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ৮টার দিকে ইব্রাহীমকে ও সকাল সাড়ে ১১টায় বিল্লালকে মৃত ঘোষণা করেন। খিলগাঁও মেরাদিয়া ভূঁইয়াপাড়া ২০৪ নম্বর বাসায় থাকতেন ইব্রাহীম। তার বাবা হিরণ মিয়া বাংলানিউজকে জানান, পেশায় টাইলস মিস্ত্রি ছিলেন ইব্রাহীম। ছয়মাস আগে বিয়ে করেন তিনি। সকালে নিজের রুমে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেন তিনি। সকাল ৬টার দিকে তাকে দেখতে পেয়ে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে আনার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তবে তার গলায় ফাঁস দেওয়ার কারণ জানাতে পারেনি স্বজনরা। এদিকে রামপুরা বনশ্রীর জে-ব্লকের ৭ নম্বর রোড, ১ নম্বর ভবনের নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কাজ করতেন বিল্লাল হোসেন। থাকতেন ওই ভবনেই। তার বাড়ি চাঁদপুর জেলায়। নির্মাণাধীন ওই ভবনের ঠিকাদার আব্দুর রশিদ বাংলানিউজকে জানান, সকাল ৬টার দিকে বিল্লাল হোসেন নির্মাণাধীন ওই নয়তলা ভবনের ছয়তলায় উঠে মোটর দিয়ে দেওয়ালে পানি দেওয়ার জন্য। ছয়তলায় পানি দেওয়ার সময় ভবনের দ্বিতীয় তলায় পড়ে যান তিনি। পরে দেখতে পেয়ে ভবনের শ্রমিকরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (এসআই) বাচ্চু মিয়া এসব তথ্য নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, ময়না তদন্তের জন্য দু'টি মরদেহই মর্গে রাখা হয়েছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট থানায় বিষয়গুলো জানানো হয়েছে। বাংলাদেশ সময়: ১৩১৬ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০১৮ এজেডএস/এএটি
জাতীয় স্মৃতিসৌধ যেন লাল-সবুজের একখণ্ড বাংলাদেশ
বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে বিদেশিরা ঈর্ষা করে: ঢাবি ভিসি
শ্রেষ্ঠ সন্তানদের ফুলেল শ্রদ্ধায় স্মরণ করছে জাতি
 ইতালিতে জাতীয় গণহত্যা দিবস পালিত
বরিশাল নগরে যাত্রী ওঠা-নামার জন্য স্ট্যান্ড হবে 


জাতির বীরসন্তানদের রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
এক সন্তান প্রসবের ২৬ দিন পর ফের জমজ জন্মদান
কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসে গণহত্যা দিবস পালিত
জাতীয় গণহত্যা দিবস পালিত হলো পাকিস্তানে
‘পাকিস্তানিরা বাঙালিদের কুকুর-বিড়াল মনে করতো’