আশা করি সব দল নির্বাচনে আসবে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জাতীয় সংসদে বক্তৃতা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ফটো

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ আর্থ-সামাজিক সকল সূচকে এবং সব দিক থেকে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। দেশের মানুষ একটু সুখের মুখ দেখেছে। কোনো অশুভ শক্তি দেশের জনগণের এই সুখটা কেড়ে না নিতে পারে সেজন্য দেশবাসী সজাগ ও সতর্ক থাকার আহ্বান জানাবো। আশা করি সব দলই নির্বাচনে অংশ নেবে।

বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) বিকেলে দশম জাতীয় সংসদের ২১তম অধিবেশনের সমাপনী বক্তৃতায় তিনি একথা জানান। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দেশবাসী যদি মনে করেন তারা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে ভুল করেননি, তারা দেশকে এগিয়ে নিতে সহযোগিতা করছেন- তাহলে দেশের জনগণ আগামী নির্বাচনেও নৌকায় ভোট দিয়ে আবারও তাদের সেবার করার সুযোগ দেবেন। 

‘আমাদের বিরোধী দল এবং যারা আছে আমি আশা করি সকলে নির্বাচনে অংশ নেবেন এবং বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে দেশকে আমরা বিশ্বের দরবারে যে মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করেছি সেটা আমরা ধরে রেখে এগিয়ে যাবো। জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ে তুলবো।’ 

বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদের বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এবারের সংসদে ভদ্র, সুন্দর, সহনশীল পরিবেশ ছিল। গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে যেটা হওয়ার কথা ছিল মূলত সেটাই হয়েছে। অতীতে সংসদে খিসতি-খেউর, জনপ্রতিনিধি হলেও ফাইল ছোঁড়াছুঁড়ি, টেলিভিশনের ক্যামেরা ভাঙচুর, অভদ্র কথাবার্তায় এমন বিব্রত পরিস্থিতিতে পড়ে যেতাম, যাতে জাতির কাছে লজ্জিত হতাম। 

‘এবারের সংসদ ২০১৪ সালের নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে গঠন হয়েছে। সংসদ অধিবেশনে কোনো অশালীন ঘটনা হয়নি। বিরোধী দল সংসদে থেকে প্রত্যেকটা বিষয়ে গঠনমূলক আলোচনা ও সমালোচনা করেছেন।’

আরো পড়ুন>>
** 
দেশে এক লাখের বিপরীতে চিকিৎসক মাত্র ২৮ হাজার
 
তিনি বলেন, বাজেট অধিবেশনে দেশের ইতিহাসে সবচাইতে বড় বাজেট আমরা দিয়েছি। কারণ আমাদের একটাই লক্ষ্য তা হচ্ছে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা। আমরা প্রতিটি বছর প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৭ ভাগে ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছি। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উপনীত হয়েছি। বিশ্বের কেউ বাংলাদেশকে অবজ্ঞা করতে পারবে না। 
 
‘বাংলাদেশ এখন আর কোনো দিক থেকে পিছিয়ে নেই। আমরা ১১ লাখ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছি। বিশ্বব্যাপী আজ বাংলাদেশ সমাদৃত। আমাদের লক্ষ্য জনগণের কল্যাণ করা,’ যোগ করেন শেখ হাসিনা। 

তিনি বলেন, আমরা সারাদেশে খাদ্য নিরাপত্তা গড়ে তুলেছি। রোজার সময় প্রত্যন্ত অঞ্চলে খাদ্য শস্য পাঠাই। কিন্তু অনেক স্থানে এখন খাদ্য নেবার মতো লোক নেই। সবাই বলে আমাদের ঘরে খাবার আছে, ভিক্ষার চাল নেবো না। কারণ তাদের ঘরে খাদ্য আছে, ক্রয় ক্ষমতাও বেড়েছে। 

‘আমরা যেমন খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছি, পাশাপাশি পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিত করেছি। শুধু খাদ্য নয়, মাছ, তরিতরকারি ও মাংস উৎপাদনেও আমরা প্রায় স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছি। আমরা পুষ্টি ও আমিষ দিতে পেরেছি বলেই মানুষের আয়ুষ্কাল
 বেড়েছে। পুরুষদের ৭১ এবং মেয়েদের আয়ু ৭২ থেকে ৭৩ হয়েছে।’ 
 
প্রধানমন্ত্রী বলেন, মিলিটারি ডিক্টেররেরা ক্ষমতা দখল করে উপকারের বদলে দেশের সর্বনাশ করে গেছে। মতিঝিলে একসময় ঝিল ছিল। আইয়ুব খান তা বন্ধ করে দেয়। সেগুনবাগিচা ও পান্থপথে আগে খাল ছিল। জেনারেল এরশাদ সাহেব এসে সেই খাল বন্ধ করে দিয়ে বক্স কালভার্ট নির্মাণ করেন। এতে পানি এখন আর নামতে পারে না। জিয়া এয়ারপোর্ট থেকে দীর্ঘ রাস্তার দু’ধারে থাকা সকল কৃষ্ণচুড়া গাছ কেটে ফেলে। 

‘আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে, ক্ষমতায় আসতে পারলে আমরা সকল বক্স কালভার্ট ভেঙে ফেলে নিচে খাল এবং উপর দিয়ে এলিভেটেড রাস্তা করে দেবো,’ বলেন শেখ হাসিনা। 
 
সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের মেয়াদ আরো ২৫ বছর বৃদ্ধির সমালোচনাকারীদের উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, নারীর ক্ষমতায়নের কারণে সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের মেয়াদ আরো ২৫ বছর বৃদ্ধি করতে সংসদে সংবিধান সংশোধন করা হয়েছে। এতে কোনো নারীর সরাসরি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে বিজয়ী হয়ে আসার পথে কোনো বাধা হবে না। কিন্তু এটা নিয়েও নারী আন্দোলনের অনেকে সমালোচনা করেন।

‘তাদের বলবো এতো কথা না বলে আগামী নির্বাচনে সরাসরি অংশ নিন, জনগণের কাছে যান, ভোট নিয়ে সংসদে আসুন। কিন্তু ভালো একটা কাজ করার পরও কেন জনগণকে বিভ্রান্ত করছেন?’
 
বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০১৮
এসএম/এমএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: সংসদ
নিজেদের অবস্থান থেকে পুলিশকে সহযোগিতা করুন
বাগেরহাটে অস্ত্র-গুলিসহ যুবক আটক
উলিপু‌রে অ‌টো‌রিকশার ধাক্কায় শিশু নিহত
‘গানের খেয়া’র প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন
আরো শক্তিশালী হয়েছে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক
নায়ক-গায়ক জাফর ইকবালের জন্ম
এনটিআরসিএ’র নতুন চেয়ারম্যান খান মোহাম্মদ বিলাল
আমার বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে: ড. কামাল
আবুল হাসান সাহিত্য পুরস্কার-সম্মাননায় ৪ সাহিত্যিক ভূষিত
ছাত্রদল-যুবদলের ৯ নেতাকর্মী কারাগারে