নাঙ্গলকোটে গৃহবধূকে হত্যার পর ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নাঙ্গলকোটের মানচিত্র

কুমিল্লা: কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলায় আছমা আক্তার সাথী নামে এক গৃহবধূকে হত্যার পর মরদেহ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) সকালে পৌর সদরের বাতুপাড়ায় গ্রামের শশুর বাড়ি থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

আছমা একই উপজেলার কাজী জোড়পুকুরিয়া গ্রামের সৌদি প্রবাসী শাহ-জালাল মজুমদারের মেয়ে। তিনি দুই সন্তানের জননী।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শাহ-জালাল সপরিবারে সৌদি আরব থাকতেন। গত ৩ বছর আগে দেশে ফিরে উপজেলার পৌর সদরের বাতুপাড়ায় জহিরুল ইসলাম নামে এক ফার্নিচার ব্যবসায়ীর সঙ্গে মেয়েকে বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন আছমার ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিলেন। এ তিন বছরে আছমা দুই মেয়ে সন্তানের মা হয়। মেয়ে সন্তানের মা হওয়ায় তার ওপর নির্যাতনের মাত্রা আরও বেড়ে যায়। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে ঘর থেকে তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, নিহত আছমার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। হত্যার বিষয়ে ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫২ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০১৮
ওএইচ/

‘উপকূল দিবস’ ঘোষণার দাবীতে ফেনীতে মানববন্ধন
খিজিরের সঙ্গে বড় পর্দায় শানুর অভিষেক
বরিশালে বাল্কহেড ডুবির ঘটনায় নদী থেকে উদ্ধার ৫
সোনারগাঁয়ে অটোচালকের লাশ উদ্ধার
বিদায় নিলেন মার্ভেল কমিক্স কিংবদন্তী স্ট্যান লি
জার্মান রাষ্ট্রদূত বরিশাল যাচ্ছেন মঙ্গলবার
কিশোরগঞ্জে আগুনে পুড়ে ১০ ঘর ছাই
আস্থা রাখুন, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ফখরুল
মীর মশাররফ-হুমায়ূন আহমেদের জন্ম
ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা পেলো ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ