বর্ষায় চাহিদা বেড়েছে নড়াইলের ডুঙ্গার

মো. ইমরান হোসেন, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

তুলারামপুরের ডুঙ্গার হাট। ছবি: বাংলানিউজ

নড়াইল: বর্ষাকাল এলেই নড়াইলে জমে ওঠে ‘ডুঙ্গা’ বেচাকেনা। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। তাই কর্মব্যস্ততা বেড়েছে ডুঙ্গা কারিগরদের। প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও বিভিন্ন জেলার ব্যবসায়ীরা এখান থেকে ডুঙ্গা কিনে আশেপাশের অন্তত ১০টি জেলায় বিক্রি করছেন। সব মিলিয়ে জমে উঠেছে নড়াইলে ডুঙ্গার হাট। 

php glass

নড়াইল জেলার চাঁচুড়ী, তুলারামপুর, দিঘলিয়াসহ বিভিন্ন হাটে ডুঙ্গা বিক্রি হয়। এরমধ্যে তুলারামপুরে জেলার মধ্যে বৃহত্তর ডুঙ্গার হাট বসে। এখানে সপ্তাহের শুক্রবার ও সোমবারে হাট বসে।

ডুঙ্গা ব্যবসায়ী তালেব মুন্সি বাংলানিউজকে জানান, বর্ষার শুরু থেকে অর্থাৎ জুলাই থেকে অক্টোবর পর্যন্ত চার মাস তুলারামপুর হাটে ডুঙ্গা বেচাকেনা চলে। এখানকার প্রতিটি হাটে কয়েক’শ ডুঙ্গা বেচাকেনা হয়। আর এই ডুঙ্গার সুনামও রয়েছে বেশ। তাই এ হাটে ডুঙ্গা কিনতে আসেন নড়াইলের বিভিন্ন উপজেলাসহ পার্শ্ববর্তী মাগুরা, ফরিদপুর, যশোর, গোপালগঞ্জ, বাগেরহাট, খুলনাসহ বিভিন্ন জেলার ব্যাবসায়ীরা।

ডুঙ্গা কারিগরেরা জানান, বছরে তাদের ৪ থেকে ৫ মাস এই কাজ করতে হয়। বাকি সময় তারা অন্য কাজ করেন। এসময় যে যতো বেশি কাজ করে তার তত বেশি আয় হয়। এ কাজে প্রতিদিন একজন কারিগর ৭০০ থেকে ১২শ’ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারেন। আর একজন শ্রমিক ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা পর্যন্ত।

ডুঙ্গা তৈরিতে ব্যস্ত কারিগরেরা। ছবি: বাংলানিউজব্যবসায়ী আকিদুল খান বাংলানিউজকে জানান, আকার ভেদে একটি তাল গাছ তিন থেকে ৬ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়। সাধারণত একটি তালগাছ থেকে দুটি ডুঙ্গা তৈরি হয়। ক্রেতার চাহিদা আর পরিমাপ বুঝে একেকটি ডুঙ্গা ৩ হাজার থেকে ৭ হাজার পর্যন্ত বিক্রি হয়।

সাতক্ষীরা থেকে ডুঙ্গা কিনতে আসা ব্যবসায়ী আসাদ আলী বাংলানিউজকে জানান, এই হাট থেকে ডুঙ্গা কিনে তিনি বিভিন্ন জেলায় নিয়ে বিক্রি করেন। রাস্তার পাশে হাট তাই এখান থেকে ডুঙ্গা কিনে সহজে ভ্যান, নসিমন, করিমন, মিনি ট্রাক ও ট্রাকে পরিবহন করা যায়।

আসলাম ফকির নামে অারেক ব্যবসায়ী বাংলানিউজকে জানান, গত বছরের চেয়ে এ বছর আকার ভেদে প্রতি পিস ডুঙ্গা ১২শ’ থেকে ১৫শ’ টাকা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।

এ বিষয়ে কারিগর ও ব্যবসায়ী আনিচুল বাংলানিউজকে জানান, প্রতিটি তালগাছের দাম কমপক্ষে ১ হাজার টাকা বেড়েছে। ডুঙ্গা তৈরিতে যেসব সরঞ্জাম (কোদাল, কুড়াল, করাত, দা) লাগে সেসবের দাম অনেক বেড়েছে। তাই এ বছর ডুঙ্গার দাম একটু বেশি। তবে তিনি দাবি করেন ডুঙ্গার দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই রয়েছে।

খালে ও বিলে পরিপূর্ণ নড়াইলের বিভিন্ন এলাকা। বর্ষকাল এলেই এসব এলাকা পানিতে তলিয়ে যায়। এজন্য মাছ ধরা, বিল থেকে শাপলা তোলা ও পারাপারের কাজে এই ডুঙ্গা ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩০ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০১৮
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ডুঙ্গা কারিগর
বরিশাল নগরে যাত্রী ওঠা-নামার জন্য স্ট্যান্ড হবে 
জাতির বীরসন্তানদের রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
এক সন্তান প্রসবের ২৬ দিন পর ফের জমজ জন্মদান
কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসে গণহত্যা দিবস পালিত
জাতীয় গণহত্যা দিবস পালিত হলো পাকিস্তানে


‘পাকিস্তানিরা বাঙালিদের কুকুর-বিড়াল মনে করতো’
বিধি লঙ্ঘনে এমপি খোকাকে সোনারগাঁও ছাড়ার নির্দেশ ইসির
কালরাত্রি স্মরণে ‘ব্ল্যাক আউট’ সিলেটেও
গণহত্যা দিবসের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দাবিতে রাজশাহীতে
শহীদেরা অন্ধকারকে জয় করে আমাদের জীবনে আলো জ্বেলে গেছেন