ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১২ সফর ১৪৪২

জাতীয়

দক্ষিণ এশীয় শিল্পের নতুন দিগন্ত ঢাকা আর্ট সামিট

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭১৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৮
দক্ষিণ এশীয় শিল্পের নতুন দিগন্ত ঢাকা আর্ট সামিট ঢাকা আর্ট সামিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত/ছবি: শাকিল 

ঢাকা: চতুর্থবারের মতো ঢাকায় শুরু হয়েছে বিশ্বের ৩৫টি দেশের তিন শতাধিক শিল্পী নিয়ে দক্ষিণ এশীয় শিল্পকলার সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী ‘ঢাকা আর্ট সামিট’।

শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন হয়।
 
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সামিটের উদ্বোধন ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

এসময় সেখানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান ‍নূর এবং তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।
 
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপিতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন সামদানী আর্ট ফাউন্ডেশনের পরিচালক নাদিয়া সামদানী, ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান ফারুক সোবহান প্রমুখ।
 
প্রদশর্নী চলবে ১০ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টা পর্যন্ত। এছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এ প্রদর্শনী সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।
 ঢাকা আর্ট সামিটে সম্মানিত অতিথিরা
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে চিত্রশিল্পের অনেক পুরনো ও ঐতিহ্যবাহী ইতিহাস রয়েছে। এই ইতিহাস সবার সামনে তুলে ধরতে হবে। এখানে দক্ষিণ এশিয়ার প্রদর্শনীর ইতিহাসও তুলে ধরা হবে। ফলে এই সামিট আয়োজনের মধ্যদিয়ে দক্ষিণ এশীয় শিল্পের নতুন দিগন্ত উন্মোচন হবে। আমি প্রদর্শনীর সাফল্য কামনা করছি।
 
এবারের আয়োজনে সহযোগিতা করছে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, শিল্পকলা একাডেমি, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড, বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট অথরিটি এবং জাতীয় জাদুঘর। এছাড়া সামিটে ১২০ জনের বেশি বক্তার অংশগ্রহণে থাকছে ১৬টি প্যানেল আলোচনা ও দুটি সিম্পোজিয়াম।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৩০৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০২, ২০১৮
এসআইজে/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa