নীলফামারীতে বন্যার্তরা ত্রাণ পাননি, পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যানরা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায় বন্যার্তদের জন্য জরুরিভিত্তিতে বরাদ্দ করা ত্রাণ তিন দিনেও বানভাসী মানুষের হাতে পৌঁছেনি। এমন অবস্থায় জনরোষের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এলাকার ইউপি চেয়ারম্যানরা। অন্যদিকে বন্যাকবলিত এলাকার নলকূপগুলো নষ্ট হওয়ায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট।

নীলফামারী: নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায় বন্যার্তদের জন্য জরুরিভিত্তিতে বরাদ্দ করা ত্রাণ তিন দিনেও বানভাসী মানুষের হাতে পৌঁছেনি। এমন অবস্থায় জনরোষের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এলাকার ইউপি চেয়ারম্যানরা।

অন্যদিকে বন্যাকবলিত এলাকার নলকূপগুলো নষ্ট হওয়ায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট।

ইউপি চেয়ারম্যানরা অভিযোগ করেন, জেলা প্রশাসক বৃহস্পতিবার ৫ মেট্রিকটন চাল ও ১০ হাজার টাকা জরুরিভিত্তিতে বরাদ্দ দেন। কিন্তু ডিমলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মজিবর রহমান দু’দিন ধরে ডিমলার বাইরে থাকায় শনিবার পর্যন্ত তারা ওই ত্রাণ পাননি।

পূর্ব ছাতনাই ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক আব্দুল লতিফ খান বলেন, ‘ত্রাণের জন্য ক্ষতিগ্রস্তরা ছুটে আসছেন। বাধ্য হয়ে এলাকা থেকে পালিয়ে থাকতে হচ্ছে।’

টেপাখড়িবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম শাহিন বলেন, ‘বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা উপজেলা প্রশাসনে পাঠিয়েও কোনো বরাদ্দ পাইনি। ডিমলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কারণেই আমরা ত্রাণ পাচ্ছি না।’

ঝুনাগাছচাঁপানী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান একরামুল হক চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, আমার ইউনিয়নে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। জেলা প্রশাসক জরুরি ত্রাণ বরাদ্দ দিলেও সেই  ত্রাণ পাওয়া যায়নি।’

উল্লেখ যে গত বুধবার রাতে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করায় ডিমলা উপজেলায় বন্যা দেখা দেয়। এতে ৫ হাজার পারিবার বন্যা কবলিত হয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার জরুরিভিত্তিতে জেলা প্রশাসক ৫ মেট্রিকটন চাল ও নগদ ১০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৯ ঘণ্টা, আগস্ট ২২, ২০১০

বৃহস্পতিবার ঢাকাবাসীকে ইভিএমের ব্যবহার শেখাবে ইসি
বিএনপির ভোট করার অভ্যাস নেই: আইনমন্ত্রী 
পিকআপভ্যানের মুরগির খাঁচা থেকে গাঁজা জব্দ, আটক ৩
ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট খেলতে নেমে শাস্তি পেলেন ফিল্যান্ডার
‘নির্দেশ মানতে গিয়ে মার খেতে হয়েছে’


সিলেটে বাসচাপায় বৃদ্ধ নিহত
ওয়ারীতে শ্রমিকদল নেতা গুলিবিদ্ধ
মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী হত্যা মামলায় ৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ
‘করোনা ভাইরাস রোধে প্রবেশদ্বারে স্ক্যানার বসানো হয়েছে’
‘ধর্ম ব্যবহার করে কেউ যেনো সাম্প্রদায়িকতা না ছড়ায়’