ঢাকা, বুধবার, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ আগস্ট ২০২০, ২১ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

ক্রেতার চেয়ে দালাল বেশি, নাজেহাল বিক্রেতারা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০২৫ ঘণ্টা, আগস্ট ২৭, ২০১৭
ক্রেতার চেয়ে দালাল বেশি, নাজেহাল বিক্রেতারা কেনা-বেচা জমে না ওঠায় হতাশ খামারি ও পশু পালনকারীরা। ছবি: বাংলানিউজ

নীলফামারী: নীলফামারীর বিভিন্ন হাট-বাজারে কোরবানির পশু উঠতে শুরু করলেও কেনা-বেচা জমে ওঠেনি। তবে ক্রেতার চেয়ে দালালের সংখ্যা বেশি বলে অভিযোগ করছেন বিক্রেতারা।  

সদর উপজেলার শাখামাছা ও ঢেলাপীর, ডোমার উপজেলার বোড়াগাড়ি এবং জলঢাকা উপজেলার মীরগঞ্জ হাট ঘুরে জানা গেছে, এবারের ভয়াবহ বন্যার প্রভাবে ক্রেতা না থাকায় হাটে গরু-ছাগল এনেও বিক্রি করতে পারছেন না বিক্রেতারা। এর ওপরে দালালদের দৌরাত্ম্য অস্বাভাবিকভাবে বেড়েই চলেছে।

পুরো জেলায় এবারের বন্যায় কৃষকদের ঘর-বাড়ি ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ফলে তাদের হাতে নগদ টাকা-পয়সার চরম অভাব। এ কারণে যেসব কৃষক এককভাবে কোরবানি দিতেন, তারা এবার ভাগে গরু কিনে কোরবানি দেওয়ার চিন্তায় হাটে এসেছেন। ফলে বেচা-কেনা অনেক কম বলে জানিয়েছেন খামারি ও পশু পালনকারীরা।

দালালদের দাপটে অসহায় হয়ে পড়েছেন ক্রেতা-বিক্রেতারা।   ছবি: বাংলানিউজবিক্রেতাদের অভিযোগ, গরু হাটে নিয়ে আসার আগেই দড়ি ধরে দখলে নিয়ে যাচ্ছেন দালালরা। এরপর মালিক সেজে সেই গরু বেশি দামে বিক্রি করে প্রকৃত মালিককে কম দিচ্ছেন। এ নিয়ে ঝগড়া হতেও দেখা গেছে বিভিন্ন হাটে।

গত বছরের কোরবানির হাটের তুলনায় প্রতিটি গরুতে এবার ১০ হাজার টাকা করে কম পাচ্ছেন বলেও দাবি তাদের।

সৈয়দপুরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নওশাদ ঢেলাপীর হাটে এসে ২ লাখ টাকায় ষাঁড় কিনে পিক-আপে নিয়ে যান। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, গরুর দাম এবারে মোটামুটি সহনীয়। তবে হাটে দালালদের দাপটে অসহায় হয়ে পড়েছেন ক্রেতা-বিক্রেতারা।

ওই হাটে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ আড়াই লাখ টাকা এবং সর্বনিম্ন ২৮, ৩৫, ৫০ ও ৭০ হাজার টাকা দামের গরু আনা হয়েছে।

ঢাকা থেকে আসা পাইকারি ব্যবসায়ী বাবু ও শাহাদত বলেন, ‘হাটে গরু কেনা ঝুঁকির কাজ। বেশিরভাগ গরুই আসে বিভিন্ন খামার থেকে। খামারগুলোতে গরু মোটা-তাজা করতে ব্যবহার করা হয় অ্যান্টিবায়োটিক হরমোনসহ নানা রাসায়নিক উপাদান। এমন গরু দেখতে স্বাস্থ্যবান হলেও মাংস স্বাস্থ্যকর নয়। ঢাকায় নেওয়ার সময় অনেক গরু পথেই মারা যায়। ফলে গরু ব্যবসায় ক্ষতির আশঙ্কা থাকে। এবার রাসায়নিক ছাড়া গরু কেনার কথা ভাবছি আমরা’।

‘কোরবানিদাতা ক্রেতাদের এবারের পছন্দ হল দেশি গরু। এ হাটে তাই দেশি গরু খুঁজছি’।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৭, ২০১৭
এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa