ফেনীতে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে পিয়ন আটক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অফিস সহকারীকে (পিয়ন) কৃষ্ণ চন্দ্র দাস/ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ফেনী: ফেনী সরকারি জিয়া মহিলা কলেজের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে কৃষ্ণ চন্দ্র দাস (৩০) নামে ফেনী সরকারি কলেজের এক অফিস সহকারীকে (পিয়ন) আটক করেছে পুলিশ।

php glass

কৃষ্ণ চন্দ্র দাস পাঁছগাছিয়া ইউনিয়নের মালাকার বাড়ির হারাদন চন্দ্র দাসের ছেলে।

বুধবার (০৭ জুন) দুপুরে ভুক্তভোগী ছাত্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ কৃষ্ণ চন্দ্র দাসকে পুলিশে সোপর্দ করেন।

ছাত্রীর পরিবার সূত্র জানা গেছে, গত ৬ মে ফেনী সরকারি কলেজ কেন্দ্রে অনার্স তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষায় নকল করার অভিযোগে সরকারি জিয়া মহিলা কলেজের সমাজকর্ম বিভাগের শিক্ষার্থীকে (ভুক্তভোগী ছাত্রী) বহিস্কার করা হয়। পরে ওই শিক্ষার্থী কান্নাকাটি শুরু করলে তার বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহার করে দেবে বলে পাশের একটি কক্ষে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে ওই অফিস সহকারী।

কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ বলেন, সকালে ভুক্তভোগী ছাত্রী ওই অফিস সহকারী কৃষ্ণ চন্দ্র দাসের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করলে তাকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়।

ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদ খান চৌধুরী জানান, আসামিকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৫ ঘণ্টা, জুন ০৭, ২০১৭
এসএইচডি/ওএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ধর্ষণ
জাতীয় স্মৃতিসৌধ যেন লাল-সবুজের একখণ্ড বাংলাদেশ
বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে বিদেশিরা ঈর্ষা করে: ঢাবি ভিসি
শ্রেষ্ঠ সন্তানদের ফুলেল শ্রদ্ধায় স্মরণ করছে জাতি
 ইতালিতে জাতীয় গণহত্যা দিবস পালিত
বরিশাল নগরে যাত্রী ওঠা-নামার জন্য স্ট্যান্ড হবে 


জাতির বীরসন্তানদের রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
এক সন্তান প্রসবের ২৬ দিন পর ফের জমজ জন্মদান
কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসে গণহত্যা দিবস পালিত
জাতীয় গণহত্যা দিবস পালিত হলো পাকিস্তানে
‘পাকিস্তানিরা বাঙালিদের কুকুর-বিড়াল মনে করতো’